মুখের ত্বক ঠিক রাখার ৫টি উপায়

পূজা এসে গেছে।কিন্তু কখনও রোদ, কখনও বৃষ্টি।কিন্তু গরম পিছু ছাড়ছে না।আবহাওয়ার অদল-বদল চলছেই। আর তার প্রভাব পড়ছে আমাদের ত্বকে।তাই নানা রকম সমস্যা দেখা দিচ্ছে ত্বকে।ত্বকের সমস্যাগুলির মধ্যে অন্যতম হল ট্যান। মুখে ট্যান পড়লে তা ফেলা রাখা খুবই বিপজ্জনক হতে পারে। তাই রোদ থেকে ফিরে বাড়িতেই তৈরি করে ফেলুন এমন কিছু প্যাক যা সহজেই আপনার ত্বককে ট্যানমুক্ত করবে। জেনে নিন কিছু ঘরোয়া প্যাকে সহজেই আপনাকে ট্যান মুক্ত করতে পারে।

হলুদ আর বাঁধাকপি  ফেসপ্যাক:

বাঁধাকপি সেদ্ধ করে নিয়ে চটকে ছাকনিতে ছেঁকে রস বার করে নিন। এবার তার সঙ্গে মুলতানি মাটি মধু ও হলুদ মিশিয়ে নিন । তারপর উপকরণগুলো ভাল করে মিশিয়ে নিন। সেই মিশ্রণ মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে দিন।তারপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

মুসুর ডাল, অ্যালোভেরার ওটমেটোর রসের ফেসপ্যাক:

মুসুর ডাল গুঁড়ো করে তাতে অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে প্রয়োজন মতো মিশিয়ে নিতে পারেন টমেটোর রস। এবার  মুখ এবং ঘাড়ে যে যে অংশে ট্যান পড়েছে সেইসব জায়গায় লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।আপনি যদি ড্রাই স্কিনের সমস্যায় ভোগেন তাহলে অ্যালোভেরার বিকল্প আর কিছু নেই।

শসা ও টমেটোর ফেসপ্যাক:

এক টুকরো শসা ও দু-টুকরো টমেটো একসঙ্গে বেটে তাতে এক চামচ দুধ, এক চিমটে হলুদ, তিন থেকে চার ফোঁটা লেবুর রস, এক চামচ মধু ও দু চামচ বেসন মেশান।এবার মিশ্রণটি ভাল করে মুখে ও গলায় মাখুন। ২০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ট্যান তোলার অন্যতম সেরা উপায় টমেটোর রস। তাই রোদ থেকে ফিরে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন এই প্যাকটা।

কেশর ও টক দইয়ের ফেসপ্যাক:

সামান্য কেশর একরাত্রি পানিতে ভিজিয়ে  পরদিন সকালে তার সঙ্গে দু-চামচ টকদই, এক চামচ বেসন মিশিয়ে। মুখে লাগিয়ে রাখুন যতক্ষন না পর্যন্ত প্যাকটি অল্প শুকিয়ে যায়। তারপর ভাল করে মাসাজ করে তুলে প্যাকটি ফেলুন ।এবং ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।শুষ্ক ত্বকের জন্য প্যাকটি খুব উপকারী।

দুধ ও কেশরের ফেসপ্যাক:

একটি বাটিতে চার থেকে পাঁচ চামচ ঈষদুষ্ণ গরম দুধ নিন, তারপর এতে দু থেকে তিন ফোটা লেবুর রস দিয়ে অল্প কেশর মেশান। এই মিশ্রণ মুখে লাগিয়ে দশ থেকে পনেরো মিনিট রাখুন। তারপর ঠান্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন।এতে ত্বক উজ্জ্বল করে স্কিন টোন ঠিক রাখবে।

ছবি: অধরা খান সৌজন্যে