প্যারিসে খোলামেলা রেস্তোরাঁ

রেস্তোরাঁর নাম ‘ও ন্যাচারাল’। সেখানে সবকিছুই প্রকৃতির মতো খোলামেলা। এমনকি খাবার খেতে আসা খদ্দেরদেরও শরীরে থাকতে পারবে না কোনো পোশাক। হোটেলের খাবার পরিবেশকরাও থাকবেন পোশাকহীন। এমনি এক চমকে দেয়া রেস্তোরাঁ প্রথমবারের মতো খুলেছে গেলো শুক্রবার প্যারিস শহরে। এ নিয়ে চলছে মহা হৈচৈ। উদ্যোক্তারা বলছেন, তারা প্রকৃতির সেই আমেজই ফিরিয়ে আনতে চান তাদের রেস্তোরাঁয়।

রেস্তোরাঁয় বৃহস্পতিবার রাতে ডিনারে বিশেষ অতিথিবর্গ হিসেবে হাজির ছিলেন প্যারিস নেচারিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সব সদস্য। রেস্তোরাঁর মালিকপক্ষ জানান, তাদের এরকম একটি সাহসী পদক্ষেপের পেছনে এই সংস্থাটির অনেক অবদান আছে।

এই রেস্তোরাঁয় একসঙ্গে ৪০ জন বসে খেতে পারবে। সেখানে একজন ব্যক্তির ডিনার করতে খরচ পড়বে ২৬ পাউন্ড। তবে কর্তৃপক্ষের শর্ত হচ্ছে রেস্তোরাঁয় প্রবেশের মুখেই পরনের সমস্ত কাপর খুলে ফেলতে হবে। এমনকি অন্তর্বাসও।

প্যারিসবাসী এমনিতেই মজা করতে এবং অলস সময় কাটাতে পছন্দ করে।তার সঙ্গে যদি এরকম অদ্ভূত খাবারের পরিবেশ তৈরী হয় তাহলে তো কথাই নেই। ফরাসী সরকারও নগ্নতা বিষয় নিয়ে নিজেদের খোলামেলা অবস্থান পরিষ্কার করেছেন আগেই। সম্প্রতি প্যারিসের অনেক সমুদ্র সৈকতে নগ্ন হয়ে যাবার অনুমতিও দেয়া হয়েছে। তািই উদ্যোক্তারা আসা করছেন তাদের রেস্তোরাঁর ব্যবসাও খুব দ্রুত জমজমাট হয়ে উঠবে।

রেস্তোরাঁর আশপাশের এলাকার মানুষ কিন্তু এরকম একটি খাবারের জায়গার ব্যাপারে খুব একটা উদ্বিগ্ন নয়। রেস্তোরাঁর ভেতরের কোনো দৃশ্য বাইরে থেকে চোখে পড়ার পথও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তারা ফরাসী পত্রপত্রিকাকে জানিয়েছে, ভেতরে কী হচ্ছে তা নিয়ে তারা চিন্তিত নয়।

লন্ডনে গত বছর ‘বুনিয়াদী’ নামে এরকম একটি রেস্তোরাঁর উদ্বোধন হয়েছে। সেখানেও নিয়ম করা হয়েছে পোশাক খুলে প্রবেশ করার। ‘ও ন্যাচারাল’ রেস্তোরাঁয় ফরাসী ঐতিহ্যবাহী সব খাবারই পরিবেশন করা হবে বলে জানা গেছে।

প্রাণের বাংলা ডেস্ক

তথ্যসূত্র ও ছবিঃ ডেইলি মেইল, ইন্ডিপেনডেন্ট