একটু অন্যরকম

জেসিকা ইরফান

ফেইসবুক এর গরম আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে। প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতিক্রিয়া।

ছোট বেলায় কতবার রচনা লিখেছি ‘আমার প্রিয় ঋতু : বসন্ত ।’
বসন্ত আদৌ কেমন , কখন আসে কখন যায় বুঝেছি কিনা জানিনা কিন্তু এটা জানতাম ফাল্গুন ও চৈত্র দুই মাস বসন্ত কাল ।
সবাই যেহেতু প্রিয় ঋতু ‘বসন্ত কাল’ লিখতো , তাই নিজে নাম্বার একটু বেশি পাওয়ার জন্য রচনার মাঝে মাঝে বিভিন্ন বড় বড় জ্ঞানী গুণীদের নাম উল্লেখ করে তাঁদের ওই ঋতুর ওপর দু চার লাইন লেখা কোট করে দেওয়া ছিলো ভালো ছাত্র ছাত্রীর লক্ষন । এর মধ্যে বেশির ভাগ ছিল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা ।
এর দ্বারা আমাদের গুরুজনেরা আমাদের কি শেখাতে চাইতেন তা আমার কাছে এখনো রহস্য ।
একটু বড় হওয়ার পর আমার খুব লিখতে ইচ্ছে হতো লিখি আমার প্রিয় ঋতু বর্ষা । যখন আমি ক্লাস সেভেন কি এইটের ছাত্রী, সাহস করে তা আমি আমার সন্মানিত গৃহ শিক্ষককে জানাই ।
:স্যার আমি বসন্ত লিখবো না ।
:লেখবি না ! তো কি লেখবি ?
:বর্ষা লিখবো স্যার ।
:এই গাধা বলে কি ! বর্ষা ! দুনিয়ার ঝামেলার সময়টা তোর প্রিয় ?
:ঝামেলা কেন ? তাছাড়া বসন্ত তো আমি দেখিনা , বর্ষা দেখি ।
:ওই গাধা তোর দেখনের কাম কি ? তোরে দেখাইতে কি বসন্ত আসে না তোরে দেখতে আসে ?
:আমি যদি না-ই দেখি তাহলে কেন লিখবো আমার প্রিয় ?
:দুনিয়ার বড় বড় মাইনসের প্রিয় বইলা লেখবি । বসন্তরে তাঁরা ঋতুরাজ কইছে তর বর্ষারে কয় নাই তাই লেখবি ।
:বড় বড় মানুষের প্রিয় হলেই আমার প্রিয় হতে হবে ?
: হ্, হইবো । কারণ তানান তোর মতো গাধা না , অনেক ভাবনা চিন্তা কইরা ছয় ঋতুর মধ্যে বসন্তরেই বাছাই করছে , তুই জানস না বর্ষায় এই দেশের মানুষ ঘরের বাইরে যাইতে পারে না , কৃষকের কাজ কাম থাকে না ,মাইনষের ফুঁটা চাল দিয়া পানি পরে, রাতবিরাতে ঘুমাইতে পারেনা , রোগ বিরোগ বাইরা যায় ..
:কিন্তু স্যার আমার ভালো লাগে ( আমি সব বুঝেও স্বার্থপরের মতো বলি ) 
: আবারো বলে ‘আমার ভালো লাগে’ ! তর ভালো লাইগলে হইবো ? তুই কোথাকার তালেবান হইছস ? বড় বড় মাইনসের ভালো লাগতে হইবো !
:কিন্তু স্যার বর্ষায় আমার জন্ম,আমার বৃষ্টি খুব পছন্দ।( ছোট মাথার শেষ যুক্তি খাড়া করি )
:ওই তুই এমন কোন রথীমহারথী হইছস ? অ্যা ! যে বর্ষায় তর জন্ম বইলা তা প্রিয় হইতে হইবো ? তরে তো তোর জন্মের মাস লেখতে কিংবা কি পছন্দ তা লেখতে বলে নাই , বলছে প্রিয় ঋতু লেখতে ! বাচাল মেয়েছেলে ! একদম চুপ ।
যা কই তা মুখুস্ত কর । গাধা পিটাইয়া কোন দিন ঘোড়া বানান যায় না … দুনিয়ার গাধা সব আমার কপালে ..
আমি মনের দুঃখে গাধার মতোই মুখুস্থ করতে থাকি …( প্রিয় ঋতু বসন্ত আমার কাছে রোগ বসন্তের মতো লাগতে থাকে ।)
আমার খুব জানতে ইচ্ছে করে আজও কি ছাত্র ছাত্রীরা তাদের মনের কথা লিখতে পারে না বিদ্যালয়ের খাতায় ?
মানুষের মনের স্বাধীনতা , ইচ্ছে অনিচ্ছে যদি ছোটবেলা থেকে এমনি চাপা দিয়ে দেওয়া হয় তাহলে সত্যি কথা বলার বা লেখার স্বাধীন বোধের জন্ম হবে কয়জনের ?
নাকি সব আমার মতো গাধাই তৈরি হয় যুগ যুগ …।
এখন শুধু একটা জিনিষই বুঝি আমার ভালো লাগলে হবে না , বড় বড় মাইনসের ভালো লাগতে হইব … আমি কোন তালেবান নই ।

তাহলেই কেবল খুনাখুনি মারামারি বন্ধ হবে । নচেৎ নয়।

ছবি: গুগল