আমার বুয়ার টাচ মুবাইল

নীপা লায়লা

ফেইসবুক এর গরম আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে। প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতিক্রিয়া।

আমাদের হুমায়রা’র মা বিজলী এসেছে গ্রাম থেকে আমাকে ঘরের কাজে সাহায্য করতে। তো,এখন বিজলী, হুমায়রা আর জানু সম্মিলিতভাবে আমাকে বেশ সুখে শান্তিতেই রেখেছে। সেই শান্তির ঘরে চমক লাগিয়ে তিন চারদিন আগে বিজলী বললো,
-আপা চাইর হাজার ট্যাকা দেও তো!
-হঠাৎ চার হাজার টাকা দিয়ে কি হবে?
-হুমায়রা’র জইন্যে মুবাইল কিনবো-মুখে তার সোনার হাসি।
-আবার কেন কিনতে হবে?আমিতো হুমায়রাকে অনেক আগেই মোবাইল কিনে দিয়েছি বুয়া।
-উটা তো টাছ না আপা।অখন টাছ মুবাইল কিনবো।
-আচ্ছা।বলে মুখ পানসে করে চার হাজার টাকা দিয়ে দিলাম।টাকা পেয়ে এখন বলে,
-তুমি গিয়ে পছিন্দ কইরে একখান মুবাইল কিনে দেও আপা।
-নারে বুয়া আমি মোবাইল টোবাইল ভালো চিনিনা।আমার মোবাইলই আমার ছেলে মেয়েরা দেখেশুনে কিনে দেয়।আমি পারবো না।ড্রাইভারের সঙ্গে হুমায়রাকে নিয়ে আপনি গিয়ে পছন্দ করে কিনে নিয়ে আসেন।
-তুমি তাইলে ডেরাইভররে বইলে দিও।
-আচ্ছা বলে দিবো নে।

গত পরশু একখানা কম্পিউটারাইজড ইনভয়েস সহ সিম্ফনি কোম্পানির দারুণ এক মোবাইল ফোন নিয়ে মা মেয়ে হাসি মুখে আমাকে বলে,আরও চোদ্দশো টাকা লাগবে।বললাম,
-কখন গেলে তোমরা ফোন কিনতে? ওরা বলে,
-আমরা যাইনি কো।মাজহার ভাই গিয়ে পছন্দ কইরে নিয়ে এসেছে।ইটার দাম দেশী হইলেও ইটাই ভালা হবি মাজহার ভাই বইলছে।তুমি তারে চৈদ্দশো ট্যাকা দিয়ে দেও আপা। আমি মন ভারী আর মুখ হাসি করে মাজহারকে দিয়ে দিলাম চোদ্দশো টাকা।

আজ সকালে রান্না করার সময় আমাকে দাঁত কেলিয়ে বিজলী বলে,
-আপা হুমায়রার ফোনে বিডিও কল কইরে দেও।
-ভিডিও কল দিয়ে হুমায়রা কার সঙ্গে কথা বলবে বুয়া?আমার রান্না বন্ধ হয়ে গেছে ওনার কথা শুনে।
-বাড়িত কথা বইলবো আমরা।হামার মাইয়াগের সাতে।নাতী নাতনীর সাতে।
-ওদের কি ভিডিও কল দেয়া যায়?
-হয় আপা।ওগের ফেছবুকও আছে।
-ওহ্! আপনার মেয়েদের ফেইসবুক আছে?আচ্ছা তাহলে হুমায়রাকে বরং ফেইসবুকই খুলে দেই,কেমন?
-দেও আপা, দেও।ওইটাই ভালো হবিনে। এমন দাঁত ক্যালানি আমি আমার বাপের জন্মেও দেখিনি।
-ঠিক আছে বুয়া, মাজহার যখন পছন্দ করে ভালো মোবাইল কিনে দিয়েছে তখন ওকেই নাহয় বলবো হুমায়রার জন্য ফেইসবুক খুলে দিতে।
-আছছা আপা।

মাজহারকে বলেছি আজকে রাতে ডিউটি শেষ করে বাড়ি ফিরে যাবার আগে যেন হুমায়রাকে ফেইসবুক একাউন্ট ওপেন করে দেয়।আজ রাতে হয়তো আমার নিউজিফিডের people you may know এর জায়গায় হুমায়রার নাম আর হাসি মুখের ছবি ভেসে বেড়াবে।দিনেরাতে মা আর মেয়ে ফেইসবুক গুঁতাগুঁতি করবে আর নয়তো ম্যাসেঞ্জারে চ্যাট অথবা ভিডিও কল নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়বে।

কেন যেন বনবন করে মাথা ঘুরায় আমার!

ছবি: গুগল