মধ্যরাতে একলা পথে…

রওনক হাসান

ফেইসবুক এর গরম আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে। প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতিক্রিয়া।

 

অনেক অনেক দিন পর মধ্যরাতে এই শহরের পথে হাটতে ইচ্ছে হলো । রাস্তায় নামতেই শীতের ঠান্ডা বাতাস আর কুয়াশার চাদরে , কারো বারান্দায় ফুটে থাকা কি যেনো এক ফুলের গন্ধে মাতাল অনুভব… হেটে যাচ্ছি …. হিশহুশ করে দুপাশ দিয়ে ছুটে যাচ্ছে লেক্সাস …এক্সট্রেইল …রিকশার বেলের টুংটাং ….সম্ভাব্য আততায়ীর সরু চোখের দৃষ্টি…ব্রীজের উপর আপাত নিরীহ একাকী রমনীর অসহায় চাহনি ….আদতে আহ্বান ….টহল পুলিশের গাড়ি চলতে চলতে হঠাৎ পাশে এসে ধীর হয়ে যায়….আমি তাকিয়ে হাসি ….সন্দেহ নিয়ে তারাও চলে যায় ….কেউ কিছু বলে না । বলেনা বলেই বোধহয় হঠাৎ এক চিলতে ভয়ের স্রোত শিরদাঁড়া বেয়ে নেমে যায় ।ভীষণ বিপন্ন বোধ হতে থাকে ! পকেট হাতড়ে সিগারেটের প্যাকেট খুঁজে দেখি নেই!ফেলে এসেছি অবাক জলপানে ।এই পথে …. প্রাণের ঢাকায় ….. কতো শতো রাত …রাত থেকে রাত … হাতে শুধুমাত্র একটুকরো আগুন আমার সঙ্গী । কেউ হীনতার সেসব রাতেতো কখনো এতো বিপন্ন বোধ হয়নি !!! আচ্ছন্ন হয়ে থাকতাম । ভীষণ উথাল পাথাল ….উদভ্রান্ত সেসব দিনগুলোতে ….মহীনের ঘোড়াগুলি …কতো কি করার আছে বাকি ভেবে ভেবে ভোর হতো ….আর আজ ! কিছু না করেও ক্লান্ত আর ভয় ! তোমার চোখের তারায় সাহস খুঁজে ফেরা এই আমি …সিগারেটের দোকান দেখা যাচ্ছে না কোথাও ….ভীষণ নিঃসঙ্গতায় …পরাস্ত সহিস …অধিবাস্তব আলোয় …সিনেমার মন্তাজ….উল্লাস এর মুহুর্ত গুলো ….ভীষণ অসুর এই….খরস্রোতা তিস্তার বিদ্যুৎ ঝলক ….রিসভের পাহাড়….হাজার বর্ষী পাইনের সারি …শচীনের গান….শেক্সপিয়ার….যাও যাও…নিভু নিভু দ্বীপ…..জীবন নিতান্ত এক চলমান ছায়া…..অথবা কোনো এক বিপন্ন বিস্ময়
আমাদের ক্লান্ত করে…আরো…ক্লান্ত…..লাশকাটা ঘরে সেই ক্লান্তি নাই !!!!
নাহ …. কথা বলে উঠেছে কেউ ….মামা চা দিমু ? না সিগারেট দাও । হাটছি ….আর নিঃসঙ্গ লাগছে না….এক টুকরো আগুনের কি শক্তি….. হঠাৎ একলাই হেসে উঠি ….সিগারেট আচ্ছি হে বেওয়াফা লাড়কি সে … এ বুকতো জ্বালাতি হে লেকিন হোটো পেতো আতি হে ….হাহাহা….আমার পাগলা ঘোড়ারে কই থেইকা কই লইয়া যাও….বাইজেন্টাইন সম্রাজ্ঞীর মতো ঘিরে থাক তোমাকে পৃথিবীর সমস্ত সুখ , প্রিয় আকাশী….লতিফুল ইসলাম শিবলী ভাই আর জেমস এর গান…অথবা রবীন্দ্রনাথ…যে রাতে মোর দুয়ারগুলি ভাঙ্গলো ঝড়ে….ও চাঁদ চোখের জলে লাগলো জোয়ার, দুঃখের পারাবারে….আমার সকল নিয়ে বসে আছি…যুবদার কন্ঠ ভেসে ওঠে …দূরে কোথাও…দূরে…দূরে…আমার মন বেড়ায় গো ঘুরে….ঘুরে এএএএ….এলআরবির গান….ডাস্টবিনের উচ্ছিষ্টর মতো ছড়ানো ছিটানো আমার আবেগ …আমি যে কার, আমিযে আসলে কার মতো !
পথ শেষ হয়ে গেলো !!! অথচ এই পথ তো শেষ হবার কথা নয় !!! আবার উল্টো দিক থেকে শুরু করবো নাকি !!! সেইই ভালো… এ এক অভ্যাসের চক্র….এই চক্রের ভিতরেই আমরা ঘুরে মরি ….সুকুমার রায়…..গিরিশ ঘোষ….সত্যজিত রায় …ঋত্বিক ঘটক…..উৎপল দত্ত….আমি বাংলার গেরিক….আমাকে মুৎসুদ্দির সামনে গলগ্রস্ত হয়ে থাকতে হয়….আসলে হুতাশনে কোনো নির্বাণ নেই … আসলে আমি বড় একা !!! ঘৃণার মতো একা !! দেবতার মতো একা !!! অবজ্ঞার মতো একা !!!!
থিয়েটার !!! দীর্ঘ দুই যুগ উজাড় করে দিয়েও যার আপন হতে পারলাম না ।
আগডুম বাগডুম….. ভালোবাসা যারে খায় তারে ঠিক এইভাবে সবটুকু খায় ….তুমি এসে হাতটা ধরলে এইসব একলহমায় উড়ে যেতো জানো ? এই শহর তখন হতো পদানত …আমি হতাম রাজহংস আর রাজহংসী হতে তুমি ….রাতের নিস্তব্ধতা ভেঙে হতো চৌচির । শহরের ঘুম যেতো ছুটে …তাই হয়তো তুমি আসো না ….ঘরে বসে থাকো চুপ …বৃহত্তর স্বার্থে…. হেঁটে যাই ….হাটতে হাটতে দাঁড়াই…. শুয়ে পড়লে কেমন হয় !! কতো রাত…কতো অসংখ্য রাত পিজির দেয়ালে …বইমেলায় বাংলা একাডেমীর ফুটপাতে …বিজয় উৎসবের মঞ্চের উপর রাতকে রাত পার করে দিয়েছি অথচ আজ বিক্ষিপ্ত কেনো মন !!! আবার রাস্তার ছেলে হতে ইচ্ছে হয়…. আকাশ কুসুম ভাবনায় আচ্ছন্ন যখন তখন বেজে ওঠে ফোন… রণজয়….।

ছবি: গুগল