হাতুড়াসিংহ নিয়ে জটিলতা কাটেনি এখনো

আহসান শামীমঃ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির প্রকাশির এফটিপি বা ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রামের সূচি অনুযায়ী আগামী বছরের শুরুর দিকেই তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসবে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। মার্চ-এপ্রিলের দিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে যাবে টাইগার দল। দুই মাস বিরতির পর জুলাইয়ের দিকে দুটো টেস্ট এবং তিনটা ওয়ানডে খেলতে অস্ট্রেলিয়া সফরে যাবে টাইগাররা। ডিসেম্বরে বাংলাদেশের মাটিতে সিরিজ খেলতে আসার কথা  ওয়েস্ট ইন্ডিজের।

এদিকে টাইগার দলে প্রধান কোচ হাথুড়াসিংহের পদত্যাগ পত্র বিসিবি এখনও অনুমোদন না দিলেও , হাথুড়াসিংহ আপাত শ্রীলংকা দলের দায়িত্ব নেওয়ার অপেক্ষায়।বাংলাদেশের সাথে তার চুক্তির আইনী জটিলতা শেষ হলে তিনি দায়িত্ব নেবেন লঙ্কানদের বিষয়টা নিশ্চিত।দক্ষিন আফ্রিকা সফরের রিপোর্টও দায়িত্বে থাকাকালীন কোচ হাথুড়াসিংহ এখনও বিসিবির কাছে জমা দেননি। সব মিলিয়ে হাথুড়াসিংহের রহস্যজনক বিষয়গুলো মিমাংসিত না হলে বিপদে পরতে পারেন তিনি নিজেই।

হাথুড়াসিংহের যাই হোক বাংলাদেশের প্রধান কোচের পদ শূন্য।বরাবর বিসিবি সভাপতি ঢাল হিসাবেই হাথুড়াসিংহকে সর্মথন দিয়ে গনমাধ্যমের কাছে বলে এসেছিলেন,” কোচের একক সিদ্ধান্তে কখনও কোন একাদশ নির্বাচন হয় না , অধিনায়কেরও পরার্মশ থাকে।” কিছুদিন আগে বিপিএলের মাঠে গনমাধ্যমের কাছে মাশরাফি সোজাসাপ্টা জানান দেন যে তিনি কখনওই কোন কোচকে একাদশ নির্বাচনে অধিনায়কের মতামত নিতে দেখেননি।দল, একাদশ বা কোচ নির্বাচনে অধিনায়ক সবসময়ই নেপথ্যেই থেকে যান।

বিসিবি’র লক্ষ্য এখন নতুন কোচ খুঁজে বের করা। পাকিস্তানের পেসার ও সাবেক পাকিস্তানের কোচ ওয়াকার আগ্রহী থাকলেও বিসিবি এ বিষয় কোন মন্তব্য করেননি । আজ আসছেন দক্ষিন অফ্রিকা থেকে পাইবাস।সম্ভবত টাইগারদের পুরানো এই কোচ নতুন করে দায়িত্ব নিতে পারেন। ২০১২ সালে পাইবাস , খেলোয়াড়দের খাবার মান, চুক্তির শর্তের সাথে নিজেকে মানিয়ে নিতে না পারায় সাড়ে চার  মাস টাইগার দলের খেলোয়াড়দের প্রশিক্ষন দিয়ে চুক্তি না করেই দেশে ফিরে যান। ইংলিশ বংশোদ্ভূত এই দক্ষিণ আফ্রিকান কোচের ঢাকায় আসার বিষয়টা নিশ্চিত করেছেন বিসিবির মিডিয়া কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস, ‘হ্যাঁ, তিনি আজ সন্ধ্যায় আসছে। সাক্ষাৎকারের সময়টা নির্দিষ্ট করে বলতে পারছি না। হয়তো কাল দুপুরের দিকে বসবেন।’

নতুন কোচের ক্ষেত্রে হাতুরুসিংহের মতোই হাই প্রোফাইল ও টেকনিক্যাল কাউকে খুঁজছে বিসিবি। সেই বিবেচনাতেই আপাতত বিসিবির পছন্দের তালিকায় ওপরের দিকেই আছেন পাইবাস। বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, সম্ভাব্য কোচদের তালিকায় আছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আয়ারল্যান্ডের সাবেক কোচ ফিল সিমন্স এবং সাবেক অস্ট্রেলিয় খেলোয়াড়, কোচ ও নির্বাচক জিওফ মার্শও।অবশ্য তাঁরা সাক্ষাৎকার দিতে আসবেন কি না, সেটা জানা যায়নি।এর আগে ইংলিশ কোচ এন্ডি ফ্লাওয়ারের ব্যাপারে বিসিবি আগ্রহ প্রকাশ করলেও টাইগার দলের দায়িত্ব নিতে তিনি রাজি হননি।

ছবিঃ গুগল