কে এই সোফিয়া…

মঙ্গলবার রাত ১২টা ৩৯ মিনিটে থাই এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ঢাকায় পৌঁছেছে সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পাওয়া রোবট ‘সোফিয়া’।আজ থেকে শুরু হওয়া রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) পঞ্চমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তির বড়  ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’। এই প্রদর্শনী চলবে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত।এবারের এ প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করবে সৌদি আরবের নাগরিক রোবট সোফিয়া। এর সঙ্গে একদিনের সফরে ঢাকায় আসছেন এর নির্মাতা ডেভিড হ্যানসন। সকালে প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন সোফিয়া। অনুষ্ঠানে অতিথিদের সঙ্গে কথা বলেন সোফিয়া। মেলা উদ্বোধনের পর একটি অনুষ্ঠানেও অংশ নেন। এতে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন এবং প্রশ্নের উত্তরও দেন। সোফিয়াকে নিয়ে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে দুটি সেশন হবে। একটি হবে সাংবাদিকের সঙ্গে, অন্যটি হবে তরুণ অ্যাপ ডেভেলপার, গেম ডেভেলপার, সফটওয়্যার ডেভেলপার এবং উদ্ভাবকদের সঙ্গে।
হংকংভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হ্যানসন রোবটিক্স দেখতে অবিকল  মানুষের মত করে তাকে তৈরী করেন। যাতে সে মানুষের ব্যাবহারের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতেও শিখতে পারে এবং মানুষের সঙ্গে কাজ করতে পারে, এবং প্রায় সারা বিশ্ব জুড়ে তার সাক্ষাৎকার নেয়া হয়।

২০১৭ সালের ১১ অক্টোবর সোফিয়াকে জাতিসংঘের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয় সংক্ষিপ্ত বক্তৃতার মাধ্যমে উপ-মহাসচিব আমিনা জে মোহাম্মদের সঙ্গে। ২৫ অক্টোবর ২০১৭ তে রিয়াদে ভবিষ্যৎ বিনোয়গ সামিটে তাকে সৌদি আরবের নাগরিকত্ব প্রদান করা হয়, এবং এই প্রথম রোবট যে কোন দেশের নাগরিকত্ব লাভ করে। এতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে সৌদি আরবের মানবাধিকার এর রেকর্ড এর সমালোচনা করা হয়।

সোফিয়া সক্রিয় হয় ২০১৫ সালের ১৯ এপ্রিল। তাকে নকশা করা হয় অভিনেত্রী অড্রে হেপবার্ন এর মত করে।প্রস্তুতকারী ডেভিড হ্যানসনের মতে সোফিয়া কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন, প্রকৃত তথ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ এবং মুখে বিন্যাস বা ফেসিয়াল রেকজনাইজেশন করতে পারে। সোফিয়া মানুষের অঙ্গভঙ্গি এবং মুখের অভিব্যক্তি নকল করতে পারে এবং বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে ও বিভিন্ন বিষয়ের উপর কথোকপথন চালিয়ে যেতে পারে।রোবটটি কণ্ঠ পরিচিতি প্রযুক্তি ব্যাবহার করে আলফাবেট ইনকর্পোরেটেড (যেটি গুগলের পিতৃ প্রতিষ্ঠান)) এবং নকশা করা হয় যাতে সময়ের সঙ্গে চালাক হতে পারে। সোফিয়ার বুদ্ধিমত্ত্বার সফটওয়্যার নকশা করে সিঙ্গুলারিটিনেট নামের প্রতিষ্ঠান। কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা কার্যক্রম কথোপকথন এবং তথ্য প্রক্রিয়াজাত করে যেটি আগামীতে তার প্রতিক্রয়া উন্নত করতে সহায়তা করে। এটি অনেকটা কম্পিউটার প্রোগ্রাম  “এলিজা”  এর মত, যেটি মানুষের মত কথোপকথনের প্রথম কম্পিউটারগুলোর একটি।

হ্যানসন সোফিয়াকে নকশা করেন যাতে এটি ঘরের পরিষেবাকারী হিসাবে সঙ্গ দিতে পারে কিংবা কোন বড় অনুষ্ঠানে বা পার্কে ভিড়ের মধ্যে সহযোগিতা করতে পারে। তিনি বলেন যে, সোফিয়া মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করার মত পর্যাপ্ত পরিমাণ সামাজিক দক্ষতা অর্জন করবে।

তথ্য প্রযুক্তি ডেস্ক

ছবি: গুগল