সুন্দর পা চাই…

আজকাল পোষাকে এসেছে রকমফের। সবাই ঝুকে পড়েছে শর্ট স্কার্ট, শর্টস, হটপ্যান্ট, মিনিফ্রক ইত্যাদি দিকে।তবে এগুলো পরলে অবশ্যই পায়ের দিকে খেয়াল দিতে হবে। অনেকের পায়ে  দেখা যায় পা  ‍রুক্ষ,ফাটা, পায়ের ত্বক খসখসে, কালো কালো ছোপ ইত্যাদি নানান সমস্যা। মেয়েদের পা সুন্দর না হলে শর্ট কাপড় চোপড় পরাই নিরার্থক হয়ে যায়।তাই জানতে হবে পা সুন্দর করার উপায়।অনেকেই বলেন,অনেক কিছু করেছি, কিছুই হয়নি। এটা লাগাই ওটা মাখি, কতকিছু খাই তবুও হয়না। পার্লারে যাই নিয়মিত তাতেও এই দশা।চলুন আমরা দেখে নেই কিভাবে পায়ের যত্ন নিতে হয়।

গোসলের আগে:

  • গোসলের আগে যে কোন ভেজিটেবল ওয়েল অল্প গরম করে নিয়ে পা ম্যাসাজ করুন।এতে ত্বক নরম থাকবে।
  • পায়ের ত্বকের কালো ভাব দূর করতে সাবান ব্যবহার করবেন না।গোসলের আগে লেমন যুক্ত ক্রিম ম্যাসাজ করবেন পায়ে।
  • গোসলের আগে ঘরোয়া উপায়ে বেসনের সঙ্গে অল্প দুধ বা দই, হলুদ মিশিয়ে পেস্ট তৈরী করুন।এবং পায়ের উপর ২০ মিনিট এই পেস্ট লাগিয়ে রাখুন।তারপর ভেজা হাত দিয়ে আস্তে আস্তে মিশ্রনটি ঘষুন এর পর ধুয়ে ফেলুন।
  • গোসলের আগে ৫০মিলি গোলাপ জলের সঙ্গে ১চামচ গ্লিসারিন মিশিয়ে পায়ে লাগান।আধ ঘন্টাপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।এই প্যাক মেয়েদের পা এর রুক্ষ ভাব কমাতে সাহায্য করে।

গোসলের পর:

  • গোসলের পর অল্প ভেজা থাকা অবস্থায় অলিভ অয়েল দিয়ে পায়ের পাতায় মালিশ করুন।

পা ফাটার সমস্যা:

নিয়মিত পায়ের যত্ন নিলে পা ফাটার সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া সম্ভব।রাতে শোয়ার আগে ঈষদুষ্ণ জলে মোটা দানার নুন ও শ্যাম্পু মিশিয়ে ২০ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন। হিল স্ক্রাবার দিয়ে গোড়ালি ঘষুন। মরে যাওয়া কোষ ঝরে পরবে। মেটাল স্ক্রাবার ব্যবহার করবেন না।পা পরিষ্কার করার পর ভাল ক্রিম দিয়ে পা মালিশ করুন। তার পর গোড়ালিতে ক্রিম লাগান। তুলো বা পরিষ্কার কাপড় বা গজ দিয়ে গোড়ালি জরিয়ে রাখুন যাতে ক্রিম বিছানায় লেগে না যায় পায়েই থাকে সারারাত।পায়ের পক্ষে আরামদায়ক জুতো পরার চেষ্টা করুন।

জীবাণু সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে:

ভিজে পায়ে জুতো পরবেন না।জুতো বদলে বদলে পরুন এক জুতো রোজ পরবেন না।পা বেশী ঘামলে পানিতে ওডিকোলন মিশিয়ে ১০ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন। তার পর পা শুকনো করে মুছে পাউডার লাগিয়ে রাখুন।পায়ের গন্ধ কমাতে পানির সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে তাতে কিছুক্ষণ পা ডুবিয়ে রাখুন। গন্ধ কমবে আর পা নরম ও হবে।পায়ে ঘাম ও ধুলো ময়লা জমে ইনফেকশন দেখা দেয়।সুতির মোজা পরুন।প্রতিদিন পরিষ্কার মোজা পরবেন।পা শুকনো রাখার চেষ্টা করবেন।সমস্যা বাড়লে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন।

পায়ের ক্লান্তি কমাতে:

পায়ের পাতার এবং গোটা পায়ের নানান ব্যায়াম আছে করবেন। হালকা গরম জলে নুন ফেলে দিয়ে তার মধ্যে পা চুবিয়ে রাখলে আরাম পাবেন।মাঝে মাঝেই খালি পায়ে হাঁটুন।

ছবি: গুগল