মাশরাফির ইনজুরি, শঙ্কায় বাংলাদেশ

আহসান শামীমঃ শঙ্কার কারণটা ক্যাপ্টেন মাশরাফির ইনজুরিন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে খেলতে পারবেন তো টাইগার টিমের ক্যাপ্টেন? এই নিয়ে চলছে জোর বিশ্লেষণ ।
মাশরাফি বিশ্ব ক্রিকেটের একমাত্র খেলোয়াড় যিনি আট বার হাঁটুতে অপারেশন করিয়েও দাপটের সঙ্গে খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন। শুধু তাই নয় এখনো সকালে ঘুম থেকে জেগে উঠার পর পা সোজা করে উঠে দাঁড়াতে প্রায়ই তাকে আধাঘন্টা সময় ব্যয় করতে হয় ।বাংলাদেশের সাবেক কোচ হোয়াটমোরের চোখে বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি একজন বিস্ময়কর খেলোয়াড়। তিনি মাশরাফি সম্পর্কে বলেছিলেন, খেলা শেষে প্রচন্ড ব্যথা অনুভূত হলে নিজেই নিজের হাঁটুর থেকে সুই ঢুকিয়ে অতিরিক্ত জমে থাকা পানি বের করে ফেলেন । কিন্তু সে কষ্টের ছাপ খেলার মাঠে কিছুই বোঝার উপায় নেই।
তাই আফগানদের বিপক্ষে যখন উইকেটে স্লিপ করে মাটিতে পরে যান বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি তখন সেটা চিন্তার বিষয় অবশ্যই । খেলার মাঠে নিজের ব্যাথার বিষয়টা মাথায় না নিয়েই দূরদর্শী নেতৃত্বের দিকে মনোযোগ দেন মাশরাফি বিন মুর্তজা ।খেলা শেষে মাশরাফি নিজেও পরিষ্কার করে কিছু বলতে পারেননি। mashrafe-mortaza-666
তবে প্রেস কনফারেন্সে অকপটে স্বীকার করেছেন, এখনো ব্যাথা আছে এবং আঘাত পাওয়া জায়গাটা ফুলেও গেছে। ইনজুরি সম্পর্কে নড়াইল এক্সপ্রেসের বলেন , আমি আবার দাঁড়ানোর পর কিন্তু আর ফুল রানআপে বল করিনি। ব্যথা নিয়ে শর্ট রানআপে বোলিং করেছি।
মাশরাফিকে যারা চেনেন, তাদের সবার জানা অসম্ভব মনের জোর এই মানুষটির। ছোট-খাট ইনজুরি তার কাছে কিছু না। কাজেই আঘাত গুরুতর না হলে হয়ত ৭ অক্টোবর ইল্যান্ডের বিপক্ষে ঠিকই মাঠে নেমে পড়বেন। দলের ম্যানেজার খেলা শেষে সাংবাদিকদের জানান, রাতের খাবার শেষ করে অধিনায়ক মাশরাফি পায়ের গোড়ালিতে বরফ দিয়ে ঘন্টা খানেক বসে থাকবেন ।এক্সরে কিংবা এমআরআই না করা পর্যন্ত ইনজুরির প্রকৃত ধরণ জানার উপায় নেই। তবে এটা নির্ভর করবে তার ব্যথা ও ফোলার ওপর। ব্যথা ও ফোলা কমে গেলে ধরে নিতে হবে ইনজুরি গুরুতর নয়।
অধিনায়ক মাশরাফি সাংবাদিকদের কাছে বলেছেন সকাল থেকেই তাঁর মনের মধ্যে একটা সংশয় কাজ করছিল ইনজুরি বিষয় ।
এদিকে আর মাত্র ৫ দিন পর ইংলিশদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরু। এ কদিন পুর্ণ বিশ্রামে থাকার পর ব্যাথা কমলেও মাঠে নামার জন্য এক দু’দিন অনুশীলন দরকার। ৭ অক্টোবর প্রথম ম্যাচের আগে মাশরাফি তা পারবেন কি না, তা নিয়ে সংশয় থেকেই যাচ্ছে।মাশরাফি আঘাত পাবার পর বিভিন্ন গনমাধ্যমে যে বর্ণনা এসেছে সেখান থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মনে করেন যে তার গোড়ালির লিগামেন্টে ছিড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে । যদি তাই হয় তাহলে সত্যিই বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফিকে মাঠের বাইরে অপেক্ষা করতে হবে দীর্ঘদিন ।
তাই শঙ্কায় বাংলাদেশ । আগামী শুক্রবার তো জোর লড়াই শুরু হচ্ছে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে।