জয় দিয়ে শুরু জয় দিয়ে জয় দিয়ে শেষ

আহসান শামীমঃ জয় দিয়ে শুরু জয় দিয়ে জয় দিয়ে শেষ । সিরিজ ও শততম জয়টা টাইগার বাহিনীর আফগানদের বিপক্ষে। দেশের মাঠে নতুন মাইলফলক ছুঁয়ে দেয়ার গৌরব। দলীয় ভাবে নিজ মাটিতে টানা ৬ ওয়ানডে জয়ের রেকর্ডের তালিকায় থাকা তৃতীয় দল শ্রীলঙ্কাকে টপকে ভারতের কীর্তিতে ভাগ বসালো বাংলাদেশ। ban-win-2
উপমহাদেশের দলগুলোর মধ্যে দেশের মাটিতে সর্বাধিক ওয়ানডে সিরিজ জয়ের রেকর্ড পাকিস্তানের । ওয়ানডেতে নিজের মাঠে ৭টি জয়ের তালিকায় সবার উপরে আছে পাকিস্তান । ভারতের সাথে এখন বাংলাদেশ টানা ৬ ওয়ানডে সিরিজ জয়ের রেকর্ডে করে তালিকায় দ্বিতীয় । পাঁচ জয় দিয়ে তৃতীয় অবস্থান শ্রীলঙ্কার ।
২০১৪ সালের নভেম্বর থেকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুইবার ও পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা আর শনিবার আফগানদের বিপক্ষে নিজেদের মাঠে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের কৃতিত্ব দেখিয়েছে টাইগাররা। এছাড়া ২০০৯ থেকে ২০১১ পর্যন্ত নিজ মাটিতে ৬টি ওয়ানডে সিরিজ জেতে ভারত।
বাংলাদেশের শততম ওয়ানডে জয়ের ইতিহাসটা একটু বেশিই দীর্ঘ ।১৯৮৬ এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার মোরাতুয়ায় পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের অভিষেক হয়। অভিষেক থেকে টানা ২২ ম্যাচ ছিল শুধুই হার। ১২ বছরের বেশি সময়ে মাত্র ২৩ ম্যাচ খেলা হতাশাজনক হলেও ২৩তম ওয়ানডেতে প্রথম জয়ের স্বাদ পায় বাংলাদেশ। ১৯৯৮ সালে ভারতে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টে ৬ উইকেটে হারায় কেনিয়াকে।শনিবার দেশের মাঠে তৃতীয় ওয়ানডেতে আফগানিস্তানকে ১৪১ রানে হারিয়ে ১০০তম জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। যেখানে প্রথম ৫০ জয়ের দেখা পেতে খেলতে হয়েছিল ২০৫ ম্যাচ। সেখানে পরের ৫০ জয় এসেছে মাত্র ১১০ ম্যাচেই ।
দলীয় ভাবে এইসব সাফল্যের পাশাপাশি ব্যক্তিগত সাফল্যের রেকর্ডেও পিছিয়ে ছিল না বাংলাদেশের টাইগারা । বিশ্বের শ্রেষ্ঠ শীর্ষ অধিনায়কের তালিকায় বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার নাম এখন জ্বলজ্বলে করছে। দেশের ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারে সাকিবের কাছাকাছি অবস্থান করছেন অধিনায়ক মাশরাফি । অবশ্য এই সিরিজে বিশ্বের এক নম্বর আসনটি আরো বেশি শক্তিশালী করে নিলেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান । অন্যদিকে দেশের ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বাধিক ৭টি সেঞ্চুরির করে সাকিবের রেকর্ড টপকে গেলেন ওপেনার তামিম ইকবাল ।