ইংলিশদের বিপক্ষে সিরিজ জয় অধরা থেকে গেল

আহসান শামীমঃ  শেষ পর্যন্ত ইংলিশদের বিপক্ষে সিরিজ জয় অধরা থেকে গেল । ৪ উইকেট টাইগারদের হারিয়ে ২-১ সিরিজ জয় করেছে ইংলিশ বাহিনী ।এর ফলে ২৮ মাস পরে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল কোন সিরিজ জয়ের থেকে বণ্চিত হলো ।
বৃষ্টির জন্য সিরিজ জয় পরাজয়ের খেলা ছিল অনিশ্চিত। । এমন টানা বৃষ্টির পর সকালে হঠাৎ করে বৃষ্টির বিদায় । টসটা হয়ে গেল খুব গুরুত্বপূর্ণ। অবশ্য টস ভাগ্যটা বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফির খুব একটা ভালো বলা যায় না । সিরিজের শেষ ম্যাচেও টসটা ইংলিশদের পক্ষে । টস জিতে ফিল্ডিং নিতে ভুল করলেন না ইংলিশর অধিনায়ক জশ বাটলার । জয়ের জন্য ২৭৮ রানের টার্গেট ইংলিশদের ।ইংলিশ স্পিনার আদিল ৪ উইকেট নিয়ে টাইগারদের টার্গেট বড় হতে দেননি ।তারপরও চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামের সমীকরণে জয়ের ক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে ছিল বাংলাদেশের টাইগারা।
চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে এর আগে সর্বোচ্চ রান তাড়া করার রেকর্ড ২২৬ । ২০১১ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই ২২৬ রান করে জিতেছিল বাংলাদেশ। পরিসংখ্যান শেষ আট ম্যাচে বাংলাদেশের জয় সাতটা। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত সব কিছু টপকে বোলিং, রান আউট, ড্রপ ক্যাচ আর গ্রাউন্ড ফিল্ডিং এর ব্যর্থতায় সিরিজ জয়ের সুযোগ হাতছাড়া হয়ে গেল টাইগারদের হাত থেকে । সেইসাথে উপমহাদেশে নিজের মাঠে ৭ জয়ের রেকর্ডের স্পর্শ কারাটাও অধরা থেকে গেল ।
ব্যাটিংয়ে নেমে ৫০ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ২৭৭। শুরুতে তামিম ও কায়েস ভালো সুচনা করলেও দুজনেই কেউ অর্ধশত রান করতে পারেননি। ব্যক্তিগত ৪৬ রান করে প্যাভিলিয়নে স্টোকসের বলে আউট ফিরে যান ভালো খেলতে থাকা ইমরুল কায়েস। আর তামিম ফেরেন ৪৫ রানে করে। এর আগে অবশ্য প্রথম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডে তে পাঁচ হাজার রানের ঘরে পৌঁছে যান তামিম।সাব্বিরও আদিলের শিকার হন ৪৯ রান করে।ফর্মে থাকা মাহমুদুল্লাহ, আদিল রশীদকে এক ছক্কা মারার পরের বলেই আউট হন। ইংলিশ স্পিনার আদিল রশীদের বোলিং তোপে উড়ে যায় বাংলাদেশের মিডল অর্ডার। ৪০ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়েে ১৯৮ রান করে বাংলাদেশ। ৩০ থেকে ৪০-এই ১০ ওভারে সাব্বির, সাকিব ও নাসিরের উইকেট হারিয়ে মাত্র ৪০ রান তুলেছেন বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা। শেষদিকে সপ্তম উইকেটে মুশফিক রানে অপরাজিত থাকেন ৬৭ রানে । মোসাদ্দেক ৩৮ রান করেন ।
ইংলিশ অলরাউন্ডার মইন আলি ও অধিনায়ক জশ বাটলার ছাড়া সবাই ভালো রান করেন।
বাংলাদেশের অধিনায়কের আজকের ২ উইকেট দেশের সবচেয়ে উইকেট শিকারের কীর্তি অর্জন করেন । ম্যাচ সেরা ইংলিশ স্পিনার আদিল রশীদ ।সিরিজ সেরা একই দলের বেন স্টোকস।