সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পেলেন বব ডিলান

তার গান মানবতার পক্ষে। তাঁর গান চিরকাল যুদ্ধের বিপক্ষে। তিনি পৃথিবীখ্যাত মার্কিন সঙ্গীতশিল্পী ও গীতিকার বব ডিলান। পুরো নাম রবার্ট অ্যালেন জিমারম্যান। এ বছর নোবেল সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন বব ডিলান। সঙ্গীতে কাব্যিক মূর্ছনা সৃষ্টির জন্য এই পুরস্কার পেলেন তিনি।
নোবেল কমিটির স্থায়ী সচিব সারা দানিয়ুস বলেন, বব ডিলানকে একজন পূর্ণাঙ্গ কবি হিনেবেই এই পুরস্কার দেয়া হয়েছে। ইংরেজী সাহিত্যের দীর্ঘ ঐতিহ্য আর নিজস্ব মৌলিকত্ব ডিলানের লেখার মূল শক্তি।
গত ১৩ অক্টোবর সুইডিশ নোবেল কমিটি এই ঘোষণা দেয়। বব ডিলান সাহিত্যে নোবেল বিজয়ী ১১৩তম ব্যক্তি। তিনি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মানুষের বন্ধু হিসেবে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন।
৭৫ বছর বয়সী এই গায়ক ও গীতিকার আগামী ১০ ডিসেম্বর স্টকহোমে এই পুরস্কার গ্রহণ করবেন।
বব ডিলান ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষ নিয়ে জর্জ হ্যারিসনের সাথে বিখ্যাত কনসার্ট ফর বাংলাদেশেও অংশ নিয়েছিলেন।
বব ডিলান ১৯৪১ সালের ২৪ মে আমেরিকার মিনেসোটার ডুলুথে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর প্রথম অ্যালবামের নাম ছিল ‘বব ডিলান’। অ্যালবাম প্রকাশের আগে তিনি বিভিন্ন ক্লাব আর ক্যাফেতে গান পরিবেশন করতেন। ১৯৬২ সালে এই অ্যালবাম প্রকাশের পর তাঁর জীবনের মোড় ঘুরে যায়। এরপর একে একে প্রকাশিত হয় তাঁর অ্যালবাম ‘ব্রিঙিং ইট অল ব্যাক হোম(১৯৬৫) ‘হাইওয়ে রিভিজিটেড’(১৯৬৫), ব্লন্ডি অন ব্লন্ডি(১৯৬৬), ওহ মার্সি(১৯৮৯), টাইম আউট অব মাইন্ড(১৯৯৭) এবং মডার্ন টাইম(২০০৬)।
১৯৭১ সালে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের নিরীহ, নিরস্ত্র জনগণের ওপর নির্বিচারে পাকিস্তানি বাহিনীর গণহত্যার খবর বন্ধুবান্ধব ও সংবাদমাধ্যমের মাধ্যমে জেনে কিছু একটা করার তীব্র তাগিদ থেকেই বিটলস খ্যাত জর্জ হ্যারিসন ও পণ্ডিত রবিশঙ্কর যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের মানুষের সাহায্যার্থে আয়োজন করেছিলেন কনসার্ট ফর বাংলাদেশ।
ওই কনসার্টে মার্কিন রক ও ফোকসংগীতের জগতে ষাটের দশকেই কিংবদন্তিতুল্য নাম বব ডিলান তাঁর বিখ্যাত ‘ব্লোইং ইন দ্যা উইন্ড’ গানটি পরিবেশন করেছিলেন।
সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পাওয়ার পর অবশ্য বব ডিলানের কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তিনি গণমাধ্যমের সঙ্গে খুব একটা যোগাযোগ রাখেন না বলেই জানা গেছে।

নান্দনিক প্রতিবেদক
তথ্যসূত্রঃ ইন্টারনেট