বিরক্ত বাংলাদেশের কোচ

আহসান শামীমঃ অন্য রকম ফরম্যাটের ক্রিকেট খেলায় বাংলাদেশের অভিজ্ঞতার অভাব আছে । বিসিবির সভাপতি খুব ভালো কিছু আশাও করছেন না। কোচ হাথুরুসিংহের টার্গেট ব্যাটিং সফলতা অর্জন । ভালো লেগ স্পিনারের অভাবের চিত্রটা খুবই প্রকট আকার ধারণ করেছে । পেসারদের মধ্যে অধিকাংশই সুস্থ নন। সবমিলিয়ে লেজেগোবরে অবস্থা টাইগারদের টেস্ট খেলোয়াড়দের। এইসব কিছুই নিয়ে চিন্তিত টাইগারদের কোচ হাথুরুসিংহ।bangladesh-m2
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দল গঠনের সময় দূর্বলতাগুলো ধরা পড়েছে যখন ২০ অক্টোবর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হতে যাচ্ছে ইংলিশদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ । এইরকম জটিলতার মাঝে হঠাৎ করেই খেপেছেন কোচ হাথুরুসিংহ । বাংলাদেশ জাতীয় দলের সঙ্গে তার দু্ই বছরের দায়িত্ব শেষ হওয়ার পর আরও দুই বছর বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সাথে চুক্তি বাড়িয়েছেন। চান্দ্রিকা হাতুরুসিংহের তত্ত্বাবধানে অনেক সাফল্যের মুখই দেখেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। শান্ত স্বভাবের হাতুরুসিংহে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের নিয়ে অতিরিক্ত পরীক্ষা-নিরীক্ষা করায় বিরক্ত।রীতিমতো হতাশও লঙ্কান এই কোচ। তিনি বলেন, জাতীয় দলে খেলোয়াড় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার ব্যাপারটি মোটেও ঠিক নয়। এটা হবে ঘরোয়া ক্রিকেটে। ঘরোয়া ক্রিকেটের পরীক্ষিত ক্রিকেটাররাই খেলবেন জাতীয় দলের হয়ে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাংলাদেশে জাতীয় পর্যায়ে চলে খেলোয়াড়দের নিয়ে পরীক্ষা। ইংলিশদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে নতুন খেলোয়াড় খুঁজতে হচ্ছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে হাতুরুসিংহে বলেন, ‘আমি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খেলোয়াড়দের নিয়ে পরীক্ষা চালাতে পারি না। এটাই বাংলাদেশ ক্রিকেটের দুর্ভাগ্যজনক ব্যাপার। যার সম্মুখীন আমরা হচ্ছি। আমরা আসলে জাতীয় পর্যায়ে খেলোয়াড়দের পরীক্ষা করছি। এমনটা ঘটতে পারে না। এটা যেকোনো কিছুর চেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।’
বাংলাদেশ কোচ আরো বলেন, ‘আমাদের অনেকগুলো ইনজুরি সমস্যা আছে এবং খেলোয়াড়রা ফর্ম হারাচ্ছে। কারণ দীর্ঘদিন আমরা খেলিনি। আমি জানি না এখন ফাস্ট বোলাররা কোন পর্যায়ে আছে। এখন বিষয়টা দাঁড়িয়েছে আমাদের মধ্যে খেলোয়াড়দের ওপর যে আস্থা আছে, সেটার ওপরই নির্ভর করতে হবে। একইসাথে ধৈর্য্যশীল হতে হবে।’
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজটা বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে মানতে নারাজ হাতুরুসিংহে, ‘আমি এটাকে অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করতে চাই না। ম্যাচের পরিস্থিতি অনুযায়ী এটাকে শারীরিকভাবে উপস্থাপন করতে হবে। ম্যাচের জন্য নিজের আসল খেলাটার প্রস্তুতি নিয়ে থাকতে হবে। একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলার জন্য প্রস্তুত থাকলে মানিয়ে নেয়াটা সহজ হবে।’
এইসব কিছুর মাঝে আজ রোববার টেস্ট দলের খেলোয়াড়দের নাম ঘোষণা করেন টাইগারদের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। মুশফিকুরের অধিনায়কত্বে চার জন নতুন খেলোয়াড় টেস্ট দলে সুযোগ পেয়েছেন ।
চট্টগ্রাম টেস্টের স্কোয়াড : মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক সৌরভ, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, নুরুল হাসান সোহান, শফিউল ইসলাম, তাইজুল ইসলাম, সৌম্য সরকার, শুভাগত হোম চৌধুরী, মেহেদী হাসান মিরাজ, কামরুল ইসলাম রাব্বি ও সাব্বির রহমান রুম্মন।