সমাজে ভাল মেয়ে আসলে কারা…

ফেইসবুক এর গরম আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে । প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতীকক্রিয়া।

untitled-1

আমাদের ভদ্র সমাজে এমন মেয়ে খুঁয়ে পাওয়া যাবে না, যাকে জীবনে অন্তত একবার শুনতে হয়নি,
খারাপ মেয়ের মত কথা বলবা না ,কিংবা তুমি তো খারাপ হয়ে যাচ্ছ !
প্রশ্ন হল খারাপ মেয়ে কিভাবে হয় ? আসলে খারাপ মেয়েটা কি ? তারা কিভাবে কথা বলে ? আর ভাল মেয়েটাই আসলে কি ? সমাজে ভাল মেয়ে আসলে কারা ?
উত্তরটা খুব সোজা।
মেয়ে জিন্স পড়েছে, অমনি সে খারাপ মেয়ে। মেয়ে একটু জোরে হেসেছে, ওমনি সে খারাপ মেয়ে। মেয়ে রাত করে বাড়ি ফিরেছে, ওমনি সে খারাপ মেয়ে। মেয়ের ছেলে বন্ধু আছে, ওমনি সে খারাপ মেয়ে। মেয়েটার ব্লাউজের গলা বড়,অমনি সে খারাপ মেয়ে। মেয়ের লিপস্টিকের রঙটা কড়া , অমনি সে খারাপ মেয়ে। মেয়েটা একটা ছেলে কে ভালবাসে ওমনি সে খারাপ মেয়ে। মেয়েটা নারী অধিকারের কথা বলে, ওমনি সে খারাপ মেয়ে।
এমন না যে এই খারাপ মেয়ের তকমা থেকে হিজাব পড়া , বোরখা পড়া মেয়েরা রক্ষা পায়। হিজাব, বোরখা পড়া মেয়েটা কোন ছেলের সাথে কথা বলেছে , ওমনি তাকে শুনতে হয় , বোরখার নিচে , খ্যামটা নাচে।
হিজাব পড়া মেয়েটা অভিনয় করে , ওমনি সে খারাপ মেয়ে। হিজাব পড়া মেয়েটা নাচে অমনি সে খারাপ।
তাহলে ভাল মেয়ের সংজ্ঞা কি রে ভাই ? কিভাবে ভাল মেয়ে হওয়া যায় ? bangladeshi_girl
এক মেয়ে কে চিনি, জামাইয়ের মাইর খেত , কিন্তু কিছু বলত না , তাই সে অনেক ভাল বৌ ছিল। কিন্তু যে দিন স্বামী কে ডিভোর্স দিয়ে আলাদা হল , সে দিন থেকে সে খারাপ মেয়ে হয়ে গেল। তার প্রাক্তন স্বামী, শ্বশুর বাড়ির লোকেরা বলে বেড়াল বৌ এর চরিত্র ভাল না ।
তাহলে ভাল মেয়ে মানে হল , কিল খেয়ে চুপ থাকা , তাই তো ?
আর একটা খুব কমন কথা মেয়েরা প্রায়ী শুনতে পায় , বাস্তির মেয়েদের মত কথা বলবা না ।
আচ্ছা বস্তির মেয়েরা কি করে ?
বস্তির মেয়েরা স্বামীর কিল খেয়ে হজম করে না , কেউ গালি দিলে উত্তরে দুটা গালি দেয় , এরা কাজ করে টাকা উপার্জন করে, এদের গায়ে কেউ হাত দিলে এরা সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবাদ করে। এদের শিক্ষা নেই , সৌজন্যতা বোধ নেই , এদের ভাষা মার্জিত না, কিন্তু এরা মানুষ হিসেবে সফল। এই মেয়েরা প্রতিবাদী বলেই এরা সমাজের কাছে একটা গালি হয়ে গেছে । তাই এরা ভাল মেয়ে না।
মাকে কাঁদতে দেখে যে মেয়েটি বড় হয়েছে , সে ধরেই নিয়েছে এটাই বোধ হয় স্বাভাবিক । মেয়েরা একাকী কাঁদে, কাউকে কান্নার কারণ বলা মানে সম্মান হানি হওয়া। মেয়েরা সাড়া জীবন ভাল মেয়ে হওয়ার সাধনা করে আর এই সাধনায় তারা এক সময় ভুলে যায়,তারা আসলে মানুষ। এক সময় তারা মানুষ থেকে, মেয়ে মানুষ হয়ে যায়।
কিন্তু সত্যিটা হল , এই সমাজ আসলে সেই খারাপ মেয়েরা বদলেছে , যারা প্রতিবাদ করে, যারা নিজের অধিকার নিয়ে সচেতন। এই খারাপ মেয়েরা যদি সমাজের চোখে ভাল মেয়ে হবার চেষ্টা করত ,তবে আজ মেয়েরা লেখা পড়ার সুযোগটাও পেতে না । রোকেয়া সমাজের চোখে খারাপ মেয়ে ছিল, তাই সে সমাজ বদলেছে। ইতিহাস ঘেটে দেখ , নারীর সম্মানের জন্য যে মেয়েরা লড়েছে সমাজ তাদেরই খারাপ মেয়েই বলেছে।
বরং খারাপ মেয়ে হও , মন্দ মেয়ে হও , অন্তত মানুষ হবার স্বাদ পাবে।আর যে তোমাকে ভালবেসে জীবনসঙ্গী হিসেবে চাইবে, সেই মানুষটি শুধু পুরুষ হবে না , সে একজন সত্যিকারের মানুষই হবে।
ফড়িং ক্যামেলিয়া