তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন

সকাল থেকে রাত অবধি নানান ব্যস্ততায় কাটে আমাদের সময়,তাই নিজের যত্ন নেবার সময় কোথায়? তারপরেও প্রতিদিনই বাইরে থেকে ফিরে ত্বকের যত্ন অবশ্যই নিতে হবে।কারণ সামনে শীত চলে এলো বলে, এ সময়ের বাতাসে ধুলার ভাগ বেশি থাকে। তাই ত্বকের প্রাধান্য দিতেই হবে সুতরাং ত্বক পরিষ্কার রাখা দরকার, আজকে আমাদের আয়োজনে থাকছে ত্বকের যত্ন আর এই পর্বে আমারা আলোচনা করবো তৈলাক্ত ত্বকের যত্ন কি ভাবে নিতে হবে?

rupcare_oily-skin1তৈলাক্ত ত্বকে ধুলা-বলি সহজেই আটকে যায়।তাই সারা দিনের কর্মব্যস্ততার মধ্যেও ত্বকের যত্ন নিতে হবে। এর জন্য খুব একটা বাড়তি ঝামেলা পোহাতে হবে না। তিন-চারবার পানির ঝাপটা দিতে পারেন মুখে। এতে ক্লান্তি দূর হওয়ার পাশাপাশি ত্বকের অতিরিক্ত তেল থাকবে না। ফলে ব্রন হওয়ার প্রবণতা কমে যাবে। এ ধরনের ত্বক খুব সেনসিটিভ তাই ঘরে ফিরে দ্রুত মুখ পরিষ্কার করে ফেলতে হবে। প্রথমে তুলার সাহায্যে টোনার দিয়ে মুখ মুছে ফেলতে হবে। তেলমুক্ত ক্লেনজিং ফেসওয়াশ দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে নিবেন। এরপর স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলবেন। এবার মুখ মুছে নিয়ে ময়েশ্চারাইজার ক্রিম ব্যবহার করতে হবে। তবে যাঁদের ব্রণের সমস্যা আছে সেক্ষেত্রে তাঁরা ব্রণ প্রতিরোধক জেল লাগিয়ে নিন সারা রাত রেখে দিন এবং সকালে উঠে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এ ছাড়া ফেসপ্যাক বানিয়ে ফ্রিজে রাখতে পারেন। শসা, আপেল, কমলার রস, চন্দন ও সামান্য পরিমাণ টকদই দিয়ে একটি প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাকে শসার রস পরিমাণে বেশি রাখতে হবে। সম্ভব হলে প্রতিদিনই প্যাক ব্যবহার করতে পারেন। এতে ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়বে। তৈলাক্ত ভাব কমে যাবে।
আগামী পর্বে থাকছে রুক্ষ ত্বকের যত্ন সেই পর্যন্ত ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন সেই সাথে প্রচুর পানি পান করুন।

কান্তা আহমেদ