পাসওয়ার্ড গুলো সার্ভারে সংরক্ষিত রাখুন

লাস্টপাসআপনার অনলাইন নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং পাসওয়ার্ড মনে রাখার জন্য অনেক ধরনের ম্যানেজার রয়েছে। এদের মধ্যে কিছু আপনার ব্রাউজারের পাসওয়ার্ড লিস্ট সংরক্ষিত রাখতে সাহায্য করে। এদের মধ্যে কিছু মাল্টি ডিভাইজ এবং প্লাটফর্মের মধ্যে পাসওয়ার্ড শেয়ার করার সিস্টেম হিসেবে কাজ করে থাকে। কিন্তু প্রত্যেকটি ম্যানেজারই কিছু কমন কাজ করে থাকে, যেমন- তারা সকল পাসওয়ার্ড সংরক্ষিত করে রাখে, তারা যেকোনো লগইন ফর্মে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তথ্য পূরণ করে থাকে, এবং এরা ডাটাবেজে পাসওয়ার্ড ইনক্রিপটেড করে রাখে। বিভিন্ন প্রকারের ম্যানেজাররা বিভিন্ন সিস্টেমে এবং বিভিন্ন অ্যালগোরিদম ব্যবহার করে সাধারনত পাসওয়ার্ড ইনক্রিপটেড করে রাখে।
পাসওয়ার্ড সফটওয়্যার হিসেবে লাস্টপাস (LastPass) সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং নির্ভরযোগ্যও। কম্পিউটারের জন্য সফটওয়্যারটি নামিয়ে নিয়ে ফ্রিতে ব্যবহার করা গেলেও স্মার্টফোনে ব্যবহার করতে হলে নির্দিষ্ট ফি দিতে হতো। তবে নভেম্বর মাস থেকে লাস্টপাসের সব ধরনের পরিসেবা বিনা মূল্যে দেওয়ার ঘোষণা করা হয়েছে। এতে কম্পিউটার হোক কিংবা স্মার্টফোন, যে কোনও একটি যন্ত্রে সংরক্ষণ করা পাসওয়ার্ড পাওয়া যাবে নিজের ব্যবহার করা সব যন্ত্রে। লাস্টপাসের প্রিমিয়াম সংস্করণও রয়েছে। এতে অতিরিক্ত কিছু সুবিধা পাওয়া যাবে। প্রিমিয়াম সংস্করণে কোনো বিজ্ঞাপন দেখাবে না। তবে সেটির জন্য মাসে এক ডলার করে ব্যয় করতে হবে। আপনার পাসওয়ার্ডের একটি ইনক্রিপটেড কপি ক্লাউডে সংরক্ষিত রাখে—এবং এই পাসওয়ার্ড গুলো প্রায় আপনার দেখা সকল প্রকার ব্রাউজারে এবং ডিভাইজে ব্যবহার করা যায়। তাদের কিছু স্পেশাল ফিচার ব্যবহার করার জন্য আপনাকে প্রিমিয়াম মেম্বারশিপ নিতে হবে তবে বেসিকভাবে এই পাসওয়ার্ড ম্যানেজারটি ফ্রী। আপনার ডিভাইজটি সকল প্রকারের ইনক্রিপশন এবং ডিক্রিপশন করে থাকে—এবং মাস্টার পাসওয়ার্ডটি সার্ভারে সংরক্ষিত থাকেনা। আপনি যদি ওয়েবে অ্যাক্সেস করতে না চান তবে আপনার ডিভাইজে ক্যাশ থাকা ডাটা থেকেও আপনি পাসওয়ার্ড গুলো ব্যবহার করতে পারবেন। তাছাড়া অত্যাধিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য রয়েছে টু ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশান সিস্টেম। যদিও  লাস্টপাস হ্যাকারদের কবলে পড়েছিলো কিন্তু তারপরেও মাস্টার পাসওয়ার্ড এবং  টু ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশান একত্রে ব্যবহারের ফলে আপনার অ্যাকাউন্ট এবং জমা করা পাসওয়ার্ড গুলো নিরাপদে থাকতে পারে। আরেকটি সুবিধা হচ্ছে, আপনি আপনার মাস্টার পাসওয়ার্ড ভুলে গেলেও তা পরবর্তীতে যেকোনো সময় রিকভার করতে পারবেন।
জুলফিকার সুমন, ছবি ও তথ্যঃ ইন্টারনেট।