চুল নিয়ে ভ্রান্ত ধারণা ও সমাধান

kantha ahmed

কান্তা আহমেদ

মেয়েদের চুল তার সৌন্দর্যকে অনেকাংশ বাড়িয়ে দেয় বৈকি। এখন শুধু মেয়েরাই নয় , চুলের স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন পুরুষমহলও । কিন্তু আমাদের মনে এখনও থেকে গিছে চুল সম্পর্কে কিছু ভ্রান্ত ধারণা। কী সেই ভুল ধারণা? সত্যিটাই বা কী?তা-ই জেনে নিন।

ভুল ধারণা ১: বেশিক্ষণ এসি ঘরে থাকলে চুল পড়া বেড়ে যায়। সত্যিটা কি? এসি-তে বেশিক্ষণ থাকলে চুলের স্বাভাবিক আর্দ্রতা নষ্ট হয়ে যায়। তবে চুল পড়া বেড়ে যায় কি না তা নিয়ে নির্দিষ্ট কোনও প্রমাণ নেই।

ভুল ধারণা ২: প্রতিদিন চুল পড়া মানেই মাথায় টাক পড়তে শুরু করবে। সত্যিটা কি? প্রতিদিন ১০০টা করে চুল পড়া স্বাভাবিক। তবে যদি তার থেকে বেশি হয় তাহলে নিশ্চয়ই চিন্তার ব্যাপার। তার মানে এই নয়, আপনি সারাদিন ধরে গুনতে থাকবেন আপনার কটা চুল পড়ল। মাথায় হাত দিলেই বা আঁচড়ালেই যদি মুঠো মুঠোhair-care-tips চুল উঠতে থাকে, তাহলে চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে নেওয়াই ভাল।

ভুল ধারণা ৩: স্ট্রেটনিং করালে চুল পড়া বেড়ে যায়। সত্যিটা কি? সাধারণত ভাল কোম্পানির হেয়ার কেয়ার প্রোডাক্ট ব্যবহার করলে চিন্তার কোনও কারণ থাকে না। তবে নিয়মিত স্ট্রেটনার বা হেয়ার ড্রায়ার অথবা হেয়ার স্টাইলিং প্রোডাক্ট ব্যবহার করলে চুল রুক্ষ হয়ে যায়। সেই সময়ে সঠিক যত্ন না নিলে চুল পড়া বেড়ে যেতে পারে।

ভুল ধারণা ৪: স্ক্যাল্প মাসাজ করলে চুল পড়া বন্ধ হয়। সত্যিটা কি? খুব জোরে জোরে স্ক্যাল্প ঘষলে চুলের গোড়ায় ফ্রিকশন হয়। ফলে চুল পড়া বেড়ে যেতে পারে।

ভুল ধারণা ৫: বার বার চুল কাটলে চুলের স্বাস্থ্য ভাল হয়, গোড়া মোটা হয়। সত্যিটা কি? বার বার চুল কাটার সঙ্গে চুলের স্বাস্থ্য ভাল হওয়ার কোনও সম্পর্ক নেই। সাধারণত চুলের গোড়া সবার মোটা হয়। ফলে চুল ছোট করে কাটলে গোছ বেশি লাগে।

ভুল ধারণা ৬: ব্লো ড্রাই করলে চুল পড়ে। সত্যিটা কি? ব্লো ড্রাই করলে অবশ্যই সাময়িক ক্ষতি হয়। তবে সঠিক যত্ন নিলে খুব তাড়াতাড়িই চুলের স্বাস্থ্য ফিরে আসে।

ভুল ধারণা ৭: চুল পড়ার কোনও প্রতিকার নেই। সত্যিটা কি? সব থেকে বড় ভুল ধারণা। এখন বিজ্ঞানের অগ্রগতির সঙ্গে চুলের যে কোনও সমস্যা এমনকি হেয়ার ট্রান্সপ্লান্টও খুব সহজেই সম্ভব।