মুস্তাফিজের কাঁধের চোট সেরে উঠছে

আহসান শামীমঃ টাইগারদের বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ মুস্তাফিজের বর্তমান পারফরমেন্সে দারুণ খুশি । ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে বিস্ময় বালক মুস্তাফিজের এমআরআই রিপোর্টে কোন সমস্যা পাওয়া না যাওয়ায় খোশ মেজাজেই আছেন এই কোচ। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে বাংলাদেশের কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানের অস্ত্রোপচার পরবর্তী অবস্থা পর্যবেক্ষণের জন্য এমআরআই করানো হয়েছিল। মোস্তাফিজের চোট ধীরে ধীরে সেরে উঠছে এমনটি উল্লেখ করে বিসিবি চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, স্ক্যানে ইতিবাচক ফল এসেছে। আমরা সন্তুষ্ট। কাঁধের চোট থেকে তিনি সেরে উঠছেন।
চোট কাটিয়ে মাঠে ফিরলে মোস্তাফিজকে বোলিং অ্যাকশনে কোনো পরিবর্তন আনতে হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা আসলে টেকনিক্যাল বিষয়। তবে আমি মনে করছি, শতভাগ সুস্থ হওয়ার পর কিছুদিন সময় লাগবে এটা বুঝতে।
১ নভেম্বর থেকে নেটে বোলিং শুরু করেছেন মোস্তাফিজ। প্রথম দিনে  তিন ওভার বোলিং করেন তিনি। এরপর ৩ নভেম্বর দ্বিতীয় দিনে চার ওভার বোলিং করেন ‘কাটার মাস্টার।’ আইপিএলে  ইনজুরির পরেও তাকে আইপিএল ফাইনাল খেলানো হয়। এরপর  ইংল্যান্ডের মাটিতে কাউন্টি দল সাসেক্সের হয়ে খেলতে নেমে শুরুতেই  ইনজুরিতে পড়েন মোস্তাফিজ। এরপর গেল ১১ আগস্ট লন্ডনের ক্রমওয়েল হাসপাতালে তার অস্ত্রোপচার করেন প্রখ্যাত সার্জন অ্যান্ডরু ওয়ালেস। অস্ত্রোপচারের পর বিসিবির চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে চলে মোস্তাফিজের পুনর্বাসন। বিসিবির প্রধান চিকিৎসক মনে করছেন, সবকিছু ঠিক থাকলে মোস্তাফিজের সেরে উঠতে পুরো ছয় মাস লাগবে না। সেক্ষেত্রে আসছে নিউজিল্যান্ড সফর দিয়েই মাঠে ফিরতে পারেন মোস্তাফিজ।
বাংলাদেশ ক্রিকেটের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র মোস্তাফিজ ২০১৫ সালে পথচলা শুরু করেন। রঙ্গিন জার্সিতে এখন পর্যন্ত আটটি ম্যাচে অংশ নিয়ে ২৬ টা উইকেট শিকার করেছেন তিনি। সাদা পোশাকে দুই ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ৪ উইকেট। আর টি-টোয়েন্টিতে ১৩ ম্যাচ থেকে ২২ উইকেট পেয়েছেন তিনি।