শীতে ফ্যাশন…

kantha ahmed

কান্তা আহমেদ

শীতের দিনে পার্টি সাজের ব্যপারে অন্য সময়ের তুলনায় একটু বেশী সচেতনতার প্রয়োজন রয়েছে। নিজেকে সাজিয়ে গুজিয়ে সুন্দর করে তুলতে কে না চায়, তাই সব চেয়ে প্রথমে জানতে হবে কোন ধরনের সাজে আপনাকে মানায়। শীত কিন্তু উৎসবের আমেজ বয়ে নিয়ে আসে, আর ফ্যাশন সচেতনদের কাছে তাই শীত ভীষণ পছন্দের ঋতু । শীতে মনের মতো ফ্যাশনেবল ড্রেস পরা যায় আর মেকআপ নিয়ে তো কোন টেনশনই থাকেনাে।এবারে শীত ফ্যাশন নিয়ে লিখেছেন কান্তা আহমেদ।

শীতের সময় আমি বিশেষ করে রাতের পার্টির জন্য প্রেফার করি ডার্ক কালার লং ড্রেস অথবা শাড়ী। আর শাড়ীর ক্ষেত্রে বেছে নেওয়া যেতে পারে সিল্ক, গাদোয়াল, কিংবা কাতান। ইদানিং কাতান এবং সিল্ক এর ট্রেন্ড খুব ভালো চলছে। ব্লাউজটা হতে পাড়ে ফুল স্লিভ। সেই সাথে শাড়ীর একপাশে ম্যাচিং শাল ও ব্যবহার করা যেতে পারে। পোশাক তেমন গর্জিয়াস পরতে না চাইলে সাজ এবং গহনার দিকে বেশী মনোযোগ দিতে হবে।

মেকআপ এর প্রথম ধাপই হচ্ছে বেস তৈরী করা তাই ত্বকের ধরন অনুযায়ী সঠিক বেস মেকআপটি বেছে নিতে হবে। শীতে নিয়মিত ত্বকএর যত্ন নিলে লিকুইড, ক্রীম অথবা বেস ফাউন্ডেশনে ত্বকের কোনো ক্ষতি হবেনা। যাদের গায়ের রঙ শ্যাম বর্ণ তারা নিজেদের স্বাভাবিক গায়ের রঙ এর কাছাকাছি শেড বেছে নিন। উজ্জ্বল শ্যাম বর্ণ হলে একটু হলদে শেডের ফাউন্ডেশন বেশী ম্যাচ করবে। স্কিন তোন এর চেয়ে এক শেড আপ ফাউন্ডেশন ব্যবহার করা উচিৎ। ফাউন্ডেশন ঘসে ঘসে না লাগিয়ে চেপে চেপে ত্বকে সুন্দর করে লাগিয়ে নিতে হবে ত্বকে দাগ থাকলে কন্সিলার অথবা কারেক্টর ব্যবহারের পর ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন। download

ন্যাচারাল আই মেকআপ করতে চাইলে চোখের শেডের সঙ্গে ম্যাচিং আইশেডো না ব্যবহার করে একটু গাঢ় আইশেডো ব্যবিহার করা যেতে পারে। শিমারিং আইশেডো ব্যবহার করলে গর্জিয়াস লুক আসবে। রাতের পার্টির জন্য ব্রোঞ্জ, ওয়াইন শিমারিং আইশেডো ব্যবহার করতে পারেন। একটু মোটা করে আইলাইনার টেনে লাগান। ভ্রু এঁকে হাইলাইটার লাগান, এরপর মাসকারা লাগালেই চোখের সাজ পুর্ণ হবে।

শীতে শুষ্কতার জন্য খুব সহজে ঠোট ড্রাই হয়ে যায়, সে জন্য এই সময় ময়েশ্চারাইজিং ক্রীম অথবা ভ্যাসলিন ব্যবহার করা উচিৎ এতে ঠোটের শুষ্ক অংশ উঠে যাবে এবং ঠোট নরম থাকবে। এই সময় ম্যাট লিপস্টিক ব্যবহার ন করাই ভালো। ক্রীম লিপস্টিক ব্যাবহার করতে হবে। কেউ যদি চান লিপস্টিকটা বেশী সময় ধরে থাকে বা ম্যাট লুক আনতে চান তবে লিপস্টিক দেওয়ার পর তার উপর টিস্যু চেপে ধরুন এবার ব্রাশে লুজ পাউদার নিন এবং আলতো ব্রাশটা টিস্যুর উপর ঘসে নিন তারপর টিস্যুটা সরিয়ে নন দেখবেন ম্যাট লুক চলে এসেছে সেই সাথে এটা অনেকক্ষণ থাকবে।

এবার আসি ব্লাশার এর প্রসঙ্গে ফর্সাদের  পিঙ্ক বা কোরাল কালার ভালো মানায়, জাদের গায়ের রঙ চাপা বা শ্যমলা তারা ওয়াইন কংবা বারগেন্ডি ব্যবহার করতে পারেন।  হাইলাইটার ব্যাবহার করুন । চাইলে একটু কন্টিউরিং ও করতে পারেন এতে ফেসটা কাটা কাটা দেখাবে।

সময়টা যেহেতু শীত কাল তাই চুল নিয়ে ভাবনার কিছু নেই, চাইলে চুল সামনে একটু পাফ করে ছেড়ে রাখতে পারেন। অনুষ্ঠান এবং সাজের সাথে সামঞ্জস্য রেখে চুলের স্টাইল নির্বাচন করুন। চুল ছেড়ে রাখতে চাইলে চুল আয়রণ করতেপারেন অথবা ব্লোড্রাই কিংবা স্পাইরাল করতে পারেন। পোষাকের সাথে মিল রেখে ফুলের ব্যবহার ও করতে পারেন। আবার চুল টেনে পিছনে নিয়ে খোঁপা করে সাইডে ফুল অথবা চুলের গয়না পরতে পারেন। সাজ, পোশাক আপনার হেয়ার স্টাইল আপনার ব্যাক্তিত্বের সাথে মানিয়ে গেলে আপনার আত্ম বিশ্বাস বেড়ে যাবে বহুগুন আর আপনি আপনার সময় উপভোগ করতে পারবেন আনন্দের সঙ্গে।