সাবটেক্সট, যা অনুচ্চারিতঃ মিডিয়ায় বিনিয়োগ

ফেইসবুক এর গরম আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে । প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতিক্রিয়া।

নাজমাল হুদা ঈমন

নাজমাল হুদা ঈমন

এজেন্সি থাকা উচিৎ কি উচিৎ না, চ্যানেলগুলোতে মার্কেটিং এর লোক না অনুষ্ঠান বিভাগের লোক নাটকের ব্যাপারটা দেখবে, ডিম বেচা ব্যবসায়ী প্রডিউসার হবে না পিএইচডি করা লোক প্রডিউসার হবে… এত কিছু আমি জানি না। কারণ গত দশ বছর ধরে এই সবগুলো অপশনই আমাদের মিডিয়ায় ঘুরেফিরে রাজত্ব করেছে বা করছে। ফলাফল দৃশ্যমান।
ধরুন আপনাকে কোন কিছু বেচতে দেওয়া হল। হতে পারে সেটা কোন প্রসাধনী বা কোন খাবারের মত বস্তু যা দেখা যায় বা ধরা যায় বা যার স্বাদ নেওয়া যায়, কিংবা কোন বিজনেস প্ল্যান বাস্তবে যা এখনও জন্মই নেয় নি, অর্থাৎ যার বিস্তার এখন শুধুমাত্র কাগজে কলমে বা একটা পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনেই সীমাবদ্ধ। আপনার জন্য এইটা বিক্রি করা খুব কঠিন হলেও আপনার হাতে কিছু প্রোজেকশন আছে, যেমন জরিপ বলছে এইটা এরকম-ওরকম কিংবা এইটার রঙ হলুদ কিংবা এইটার গন্ধ গোলাপি কিংবা এইটার স্বাদ নোনতা কিংবা ২ বছরের মধ্যে মানুষ এইটা ছাড়া চলতে পারবে না কিংবা সবথেকে বড় অস্ত্র অর্থাৎ এইটা আপনি আমার কাছ থেকে কম রেটে পাচ্ছেন বা লাভ বেশী করছেন। সহজ কথায় আমি যেইটা বলতে চাচ্ছি কোন পণ্য বিক্রি করতে গেলে আপনি অনেক তথ্য-উপাত্ত সাথে নিয়ে মাঠে নামছেন। লাভ-লসতো যে কোন কিছুতেই হতে পারে।inside-chobi
কিন্তু আপনি যখন কোন গল্প বিক্রি করছেন, তখন আপনি যতই সুন্দর করে প্রেজেন্টেশন দেন না কেন কিংবা ডেমো বানিয়ে দেখান না কেন কিংবা শুধু মুখেই গল্পটা শোনান না কেন, আপনার হাতে কিন্তু একটা জিনিস নাই… প্রজেকশন যেমন গল্পের রঙটা নীল কিংবা গল্পটা দেখতে গোল কিংবা গল্পটা খেতে খুব মিষ্টি। কোন জরিপ দিয়েও আপনি বলতে পারবেন না যে গল্পটা আপনার মাথায় ঘুরছে সেইটা মানুষ খাবে। গল্প হচ্ছে একজনের মাথায় ঘুরতে থাকা একটা স্বপ্ন যেইটা প্রথমে সে একা একা দেখে এবং এর পরপরই সেই স্বপ্নটা একজন প্রডিউসারকে দেখাতে চায়।
সমস্যাটা হচ্ছে এখানেই। আমাদের মিডিয়াতে প্রডিউসাররা গল্প নামের স্বপ্নটা দেখতে পারছেন না। তারা দেখছেন স্টার, তারা দেখছেন নাম করা ডিরেক্টর, তারা দেখছেন কম বাজেট, তারা দেখছেন কাছের লোক, তারা দেখছেন যৌনতা, তারা দেখছেন স্পন্সর, তারা দেখছেন ধান্দা।
যতদিন একজন প্রডিউসার মিডিয়াতে বিনিয়োগ করার একমাত্র কারণ যেইটা হওয়া উচিৎ অর্থাৎ গল্পকে না ভালবাসছেন, ভালবাসার দরকার নেই- যতদিন তারা গল্প জিনসটাকে বিশ্বাস না করতে পারছেন, যতদিন তারা ঐ গল্প শুনে তা নিজের চোখে দেখতে না পারছেন ততদিন এজেন্সি থাকা উচিৎ কি উচিৎ না, চ্যানেলগুলোতে মার্কেটিং এর লোক না অনুষ্ঠান বিভাগের লোক নাটকের ব্যাপারটা দেখবে, ডিম ব্যাচা ব্যাবসায়ী প্রডিউসার হবে না পিএইচডি করা লোক প্রডিউসার হবে… এইসব নিয়ে তর্ক করে লাভ নেই।
দর্শক যা দেখতে চায় সেইটাইতো দেখাতে চান আপনারা। দর্শক কি দেখতে চায় জানেন?
দর্শক দেখতে চায় সেটাই, যেটা সে এখনও ভাবেনি বা ভাবতে পারে নি, আর অপেক্ষায় থাকে কবে আপনিই তাকে সেটা দেখাবেন।
বিনিয়োগ করার আরও অনেক সহজ এবং নিশ্চিত লাভজনক ক্ষেত্র আছে। তারপরও যদি মিডিয়ায় বিনিয়োগ করতে এতটাই আগ্রহী থাকেন কিংবা গল্প অনুমোদন দেওয়ার এতই ইচ্ছা থাকে, স্বাগতম এই ঝুঁকি নেওয়ার জন্য।
তবে শুধু গল্প শুনলেই হবে না, গল্পকে দেখতে জানতে হবে।
বিনিয়োগ হোক গল্পে।

ছবি: ইন্টারনেট