শুভ জন্মদিন সৈয়দ শামসুল হক

এই বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর মহাকালের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন বাংলা সাহিত্যের সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক। আজ তাঁর জন্মদিন। লেখকের মৃত্যু হয় না। লেখক তো এক অবিরাম যাত্রার পথিক। যা ফেচনে ফেলে তিনি বিদায় নেন সেই সৃষ্টিকর্মই মানুষের ভবিষ্যতের সম্বল।

সৈয়দ শামসুল হক বেঁচে থাকলে আজ ৮২ বছরে পা রাখতেন। এই প্রয়াতে সাহিত্যিকের জন্মদিনে প্রাণের বাংলার পক্ষ থেকে জানাই গভীর শ্রদ্ধা, ভালোবাসা।

১৯৩৫ সালের ২৭শে ডিসেম্বর তিনি কুড়িগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। সৈয়দ শামসুল হক স্কুলজীবন থেকেই সাহিত্য রচনা শুরু করেন। এসএসসি পাস করার আগেই তার কবিতার খাতায় ২০০টি কবিতা লেখা হয়ে গিয়েছিল। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজি বিভাগে অধ্যয়নকালে পড়াশোনা অসমাপ্ত রেখে পুরোদমে সাহিত্যচর্চায় মনোনিবেশ করেন তিনি। তার প্রকাশিত প্রথম উপন্যাস ‘দেয়ালের দেশ’।

সব্যসাচী লেখক হিসেবে স্বীকৃত  সৈয়দ শামসুল হকের অসংখ্য সাহিত্যকর্মের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ‘খেলারাম খেলে যা’, ‘এক মহিলার ছবি’, ‘নীল দংশন’, ‘মৃগয়া’, ‘এক যুবকের ছায়াপথ’, ‘সীমানা ছাড়িয়ে’, ‘অনুপম দিন’, ‘আয়না বিবির পালা’, ‘এক মুঠো সুন্দরী’ ইত্যাদি।

তাঁর লেখা মঞ্চনাটক ‘পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায়’ ও ‘নূরল দীনের সারা জীবন’ মঞ্চনাটকের ইতিহাসে এক অনন্য সৃষ্টি হয়ে আছে আজো। সাহিত্যকর্মের জন্য সৈয়দ শামসুল হক একুশে পদক, বাংলা একাডেমি পুরস্কার, স্বাধীনতা পদক, আদমজী সাহিত্য পুরস্কার, জাতীয় কবিতা পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন। দীর্ঘদিন ক্যানসারে ভুগে চলতি বছরের ২৭শে সেপ্টেম্বর মৃত্যুবরণ করেন এ সব্যসাচী লেখক।

প্রাণের বাংলা প্রতিবেদক