পটলের দোলমা

উপকরণ :

পটল-৫-৬টা, বড় চিংড়ি-২৫০ গ্রাম (খোসা ছাড়িয়ে পরিষ্কার করা), পেঁয়াজ-২টো (মাঝারি সাইজের), রসুন-৫ কোয়া, আলু-১টা (সেদ্ধ করে গ্রেট করা), নারকেল কোরা-২ টেবিল চামচ, নুন-স্বাদমতো, সর্ষের তেল-১ কাপ, হলুদ গুঁড়ো-১ চা চামচ, সাদা ও কালো সর্ষে-১ চা চামচ, তেজপাতা-২টো, শুকনো লঙ্কা-২টো, এলাচ-২টো, দারচিনি-আধ ইঞ্চি ও লবঙ্গ-২টো, গোটা গোলমরিচ-২টো, জল-১ কাপ, পোস্তবাটা-২ টেবিল চামচ, কাজুবাদাম বাটা-২ টেবিল চামচ, ঘি-২ টেবিল চামচ, ধনেপাতা কুচি-সাজানোর জন্য।

প্রণালি:
পটল পরিষ্কার করে ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে নিন। দু’পাশের  মুখ কেটে নিয়ে ভেতর থেকে খুঁচিয়ে বিচি বের করে নিন। কড়াইতে ২ চামচ তেল দিয়ে গরম হলে ওর মধ্যে কোরানো পেঁয়াজ, রসুনবাটা, কাঁচালঙ্কা বাটা দিয়ে বাদামি করে ভেজে নিন। এবারে আদা বাটা, চিংড়ি মাছ, নুন, হলুদ, আলু, নারকেল, পটলের বিচি, সর্ষে বাটা, পোস্ত বাটা, কাজুবাদাম বাটা ও পোস্ত বাটা দিয়ে একসঙ্গে ভাল করে মাখামাখা করে ভেজে পুর তৈরি করে নিন।

পুর ঠান্ডা হলে চামচ বা হাতে করে পটলের ভেতর পুরে দিন। কড়াইতে দু’চামচ ঘি দিয়ে পটল ভেজে তুলুন। এবারে অন্য কড়াইতে সর্ষের তেল দিয়ে গরম হলে তেজপাতা, শুকনো লঙ্কা, লবঙ্গ, দারচিনি, এলাচ, গোলমরিচ, আদা বাটা, রসুন বাটা, পেঁয়াজ কোরা, নুন, হলুদ দিয়ে ভেজে নিন। ভাজা হলে আধ চামচ নারকেল কোরা, কাজুবাটা ও পোস্তবাটা দিন। হালকা ভেজে এক কাপ জল দিয়ে পটল দিন। চাপা দিয়ে ঢিমে আঁচে ১৫ থেকে ২০ মিনিট রান্না করুন। হয়ে গেলে নামিয়ে দিয়ে ধনেপাতা কুচি দিয়ে সাজিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

অসিত কর্মকার  সুজন