প্রাণের সংযুক্তি

নান্দনিক

সাহিত্য

Ads-23

নির্বাচিত

দূরের হাওয়া

সর্বজয়া

pb-ads

খেলার জগৎ

ফেইসবুক কথা

বিশ্ববাংলা

প্রযুক্তি

খোলা জানালা

ফিরে দেখা

প্রিয় প্রচ্ছদ

প্রাণের কথা

বছরের শেষপ্রান্তে এসে চারপাশে ছটফটে মৃত্যু ঘুরে বেড়াচ্ছে। হাত বাড়িয়ে ভীড়ের ভেতর থেকে উপড়ে নিচ্ছে প্রাণ। কয়েকদিন আগে বিদায় নিলেন আমাদের মুক্তিযুদ্ধের এক বীর যোদ্ধা তারামন বিবি। হুট করেই বিদায় নিলেন কৃতি আলোচিত্রশিল্পী ও চিত্রগ্রাহক আনোয়ার হোসেন। আর তার মাঝেই নগরীর খ্যাতিমান একটি স্কুলের এক কিশোরী আত্নহত্যা করলো। মানুষ বাঁচতে চায়। মানুষ মরতেও চায়। রোগে আক্রান্ত হয়ে, শরীর বিকল হয়ে মৃত্যুর তবু একটা ব্যাখ্যা আছে, কিন্তু আত্নহত্যা? গভীর অভিমানে জীবনকে প্রত্যাখ্যান করে এই নিষ্ক্রমণ আমাদের শুধু গভীর বেদনায় আচ্ছাদিত করে। পাশাপাশি প্রশ্ন রেখে যায় অনেকগুলো প্রশ্ন।

গত কয়েকমাসে বেশ কয়েকটি আত্নহত্যার খবর শোনা গেলো। সবারই বয়স তিরিশের নিচে। সমাজের কিশোর এবং তরুণ বয়সীরা যখন নিজের হাতে নিজেদের জীবনের প্রদীপ নিভিয়ে দেয় তখন আমরা আবারো জেনে যাই সমাজে গভীর অনির্ভরতা আর হতাশার পরিমাণ বেড়েই চলেছে।এক ধরণের অস্থিরতা তাড়া করে ফিরছে আমাদের। তরুণ আর কিশোরদের মনের ভেতরে চলে ফিরে বেড়াচ্ছে অনিশ্চয়তার অচেনা মেঘ। এই অচেনা ব্যথাবোধ আর অস্থিরতা থেকে তাদের মুক্তি দিতে হবে। সে দায়িত্ব সমাজের দায়িত্বশীল অংশের। ঘুরে তাকিয়ে দেখতে হবে আমাদের আচরণে কোথাও কী তৈরী হচ্ছে উস্কানী? আমাদের ভাবা উচিত। আপনারা সবাই নিশ্চয়ই ভালো আছেন। ভালো থাকবেন সবাই। সন্তানদের প্রতি বিশেষ লক্ষ্য রাখবেন।

sign

এই সংখ্যায় যা থাকছে