আজ শূণ্য হাতে ফিরছে টাইগাররা

আহসান শামীমঃ প্রায় দেড় মাসের অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড সফর শেষে আজ বুধবার তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটে শুন্য হাতে বাংলাদেশ দলের রাত ১০টা ৪০ মিনিটে ঢাকায় ফেরার কথা।ইনজুরির কারনে দ্বিতীয় টেস্টের দলে না থাকা তিন ব্যাটিং স্তম্ভ মুশফিকুর রহিম, মুমিনুল হক ও ইমরুল কায়েস আগেই দেশে ফিরেছেন ।দলের সাথে ফিরবেন বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। চন্দ্রিকা হাথুরাসিংহে সহ বাকিরা ছুটি কাটিয়ে বাংলাদেশের ফিরবেন।ভারত সফরের জন্য কন্ডিশনিং ক্যাম্পের আগেই দলের সঙ্গে যোগ দেবেন বিদেশী কোচিং স্টাফ। বাংলাদেশ দল আগামী মাসের  ৯ তারিখে ভারতের বিপক্ষে একটা টেস্ট ম্যাচ ও একটা প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে । টেষ্টের দিন ঠিক হলেও কোথায় খেলা হবে সেটা এখনো সুনির্দিষ্ট ভাবে বিসিবির জানা নেই ।আবশ্য বাংলাদেশ দলের ভারত সফরে ঐতিহাসিক হায়দরাবাদ টেস্টের আগে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার সুযোগ চেয়ে ভারতীয় বোর্ডের কাছে প্রস্তাব করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। প্রস্তুতি ম্যাচ নিয়ে এখনো ভারতীয় বোর্ডের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় আছে হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। ভারতীয় গণমাধ্যমের কাছে এমনটাই জানালেন হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসসিয়েশনের সেক্রেটারি জন মনজ।প্রস্তুতি ম্যাচের অনুমতি মিললে হায়দরাবাদের রঞ্জি ট্রফির দলের সাথে ম্যাচটা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান সাবেক সেক্রেটারি মান সিং। ভারতের বিপক্ষে টেষ্টে বাংলাদেশ দলে ব্যাপক পরিবর্তনের ইংগিত দিয়ে প্রধান কোচ হাতুর্সিংহ জানালেন, ‘আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আগে যারাই বিশ্রাম চাইবে, তাদের সেই সুযোগটা আমি দেবো।’

বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের মঙ্গলবার গণমাধ্যমের সামনে যে কথা বলেছেন তাতে ভারত সফরে টাইগার দলে কিছু সিনিয়র খেলোয়াড়দের নাও দেখা যেতে পারে ।জাতীয় দলের ফিটনেস ট্রেইনার মারিও ভিলাভারায়ণের মতে পিঠের চোটটা কাটছেইনা মুস্তাফিজের। স্বাভাবিক গতিতে বল ছুঁড়লেই ব্যথা অনুভব করছেন। ছয়মাস ধরে ফিটনেস ফিরে পাবার জন্য লড়াই করেছেন মুস্তাফিজ। পুরোপুরি সুস্থ হতে আরও কিছু সময় লাগবে। ভারত সফরে মুস্তাফিজের অন্তর্ভূক্তির সম্ভাবনা ক্ষিণ ।

অন্যদিকে ভারতের জাতীয় দলের প্রধান দুই স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও রবীন্দ্র জাদেজাকে আসন্ন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি টোয়েন্টি সিরিজ থেকে বিশ্রাম দেয়া হয়েছে।বাংলাদেশের সাথে টেস্ট সিরিজে ভারতের নতুন কৌশল হিসাবে এটাকে বিশ্লেষন করা হচ্ছে । টেস্ট ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত সাতবার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও ভারত। এর মধ্যে ছয়টাতেই  জিতেছে ভারত। একটা ড্র। ২০০৭ সালে সফরে চট্টগ্রাম টেস্টে ভারতের সাথে ড্র করে বাংলাদেশ।