প্রাণের বাংলা কেন?

প্রাণের বাংলার হৃদয়ে শুধু বাংলার জয়গান। এই পত্রিকাটি বাংলার সীমানা এই বাংলাদেশ ছাড়িয়ে গোটা বিশ্বে এখন বিস্তারিত। বিশ্বের যেখানে বাঙালীর বসবাস প্রাণের বাংলা সেখানে তাদের জীবনপ্রবাহ, তাদের ভালো লাগা, ভালোবাসা, বেদনা আর উৎসবের কাহিনিকে ধরে রাখতে চায় তার বিভিন্ন বিভাগে। অনলাইনে অনেক পত্রিকা আর ম্যাগাজিনের ভীড়ে প্রাণের বাংলা সুপাঠ্য লেখার মাধ্যমে নিজস্ব একটি জায়গা তৈরী করতে আগ্রহী। বাংলাদেশের ঋদ্ধ ইতিহাস আর ঐতিহ্যের হাত ধরে প্রাণের বাংলা তুলে ধরতে চায় আমাদের চারপাশের গল্পকে। তাই মানুষের সংকট থেকে ভালোবাসা, স্বাস্থ্য সমস্যা থেকে স্মৃতি কাহিনী, সাংস্কৃতিক জগতের খবর থেকে শুরু করে সাহিত্য সব বিভাগেই প্রাণের বাংলা চিন্তাশীল অবদান রাখতে আগ্রহী। তারুণ্যের গল্প, ফেইসবুকে আলোচনার ঝড় ওঠা কোন বিষয়, রান্নাঘরের মজাদার সব রান্না, ঘর সাজানো-এই সবকিছুই প্রাণের বাংলার লেখার সূচীতে স্থান পাচ্ছে। স্থান পাচ্ছে সারা বিশ্বে নানা ঘটনার মাঝে স্থান করে নেয়া বাঙালীর জীবন কাব্য। প্রকৃতপক্ষে দেশ এবং দেশের বাইরে বাঙালীর এক চালচিত্র হয়ে উঠতে চায় প্রাণের বাংলা। পাশাপাশি প্রাণের বাংলা বলতে চায় দেশের কথা, বলতে চায় মহান মুক্তিযুদ্ধের কথা। বলতে চায় আমাদের সংগ্রামের উজ্জ্বল কাহিনি। প্রাষের বাংলা তুলে ধরতে চায় বাঙালী সংস্কৃতির হাজার বছরের ঐতিহ্যকে। প্রাণের বাংলা অন লাইনে একটি পূর্ণাঙ্গ সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন।

pranerbangla_logo-01

লাল সূর্যঃ সাপ্তাহিক প্রাণের বাংলার লোগোতে প্রথমেই চোখে পড়ে লাল সূর্য। এই সূর্যের এখানে ব্যবহার করা হয়েছে বাংলাদেশের পতাকার লাল সূর্যের সঙ্গে মিল রেখে। স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকার আবহের সঙ্গে আমরা উদিত সূর্যের ছবি ব্যবহার করে আলোকজ্জ্বল অনাগত দিনের কথাই বলতে চাচ্ছি

মুক্ত বিহঙ্গঃ পত্রিকার লোগতে সূর্য ছাড়াও আরেকটি ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। উড়ন্ত পায়রার ছবি। খোলা আকাশে উড়ন্ত পায়রা মুক্তির প্রতীক। আমরাও এই প্রত্রিকায় মুক্ত চিন্তা, মুক্ত সংস্কৃতির কথা বলতে চাই। তাই সূর্যের ওপর ব্যবহার করা হয়েছে মুক্ত, স্বাধীন পায়রা। পাশাপাশি এই পায়রা যা রূপক অর্থে গোটা পৃথিবীতে ছড়িয়ে থাকা লক্ষ লক্ষ বাঙালীকেও বোঝাচ্ছে। বোঝানো হচ্ছে তাদের মুক্ত প্রাণকেও।

প্রাণের বাংলা মাধ্যমে গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ুক বাঙালীর বাংলাদেশের গৌরবময় ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি আর জীবন কথা।

অনুসরণ করুন

স্বত্ব © ২০১৬ - ২০২২ প্রাণের বাংলা। সম্পাদক ও প্রকাশক: আবিদা নাসরীন কলি।