আসছে ফোল্ডেবল স্মার্টফোন

সাইফ তনয় (টেক ব্লগার)

বহুদিন থেকেই চর্চার বিষয় ছিল স্যামস্যাংয়ের ফোল্ডেবল ফোন৷ ঠিক কবে মার্কেট আসতে পারে ফোনটি, সে নিয়েই চলছিল জল্পনা৷ এবার সেই জল্পনার অবসান ঘটাল খোদ কর্তৃপক্ষ। ফোল্ডেবল ফোনটি খানিকটা ট্যাবলেটের ধাঁচের৷ তবে, পকেট-সাইজ ডিভাইসটির দৈঘ্য হবে মূলত ৭.৩ ইঞ্চি৷ ফোল্ড করার পর যেটিকে অনেকটা মোটা দেখাবে৷ তবে, এখনও পর্যন্ত ফোনটিকে হাতে নিয়ে দেখার কোন সুযোগই পায়নি মিডিয়া৷ গুগলের এক আধিকারিক জানান, সাধারণের মধ্যে ফোনটির গ্রহণযোগ্যতা বাড়াতে নয়া ফিচার যোগ করা হবে৷ তবে, ফোনটির প্রাইস ট্যাগ কিংবা থিকনেসর বিষয়টি ইউজারদের বিরক্তির কারণ হতে পারে৷

স্যামসাং ছাড়াও ফোল্ডেবেল স্মার্টফোন নিয়ে কাজ করছে বেশ কিছু ফোন নির্মানকারী সংস্থা৷ কিছুদিন আগেই চীনা সংস্থা Huawei জানিয়েছিল, আগামী বছরেই ফোল্ডেবল   স্ক্রিনের 5G স্মার্টফোন নিয়ে আসতে চলেছে সংস্থাটি৷ তাই আরও একবার দুই সংস্থার মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে চলেছে৷ কিন্তু, জিতবে কে? সেটাই দেখার বিষয়৷ অন্যদিকে, কিছুদিন আগেই মার্কেটে ফোল্ডেবেল ফোন (৭.৮ ইঞ্চ) লঞ্চ করেছে ফ্লেক্সপাই।

মার্কিনি সংস্থা ফ্লেক্সপাই জানাচ্ছে, এটি দুনিয়ার প্রথম ফোল্ডেবল স্মার্টফোন। কিন্তু, আদতে এটিকে ট্যাবলেট বললেও ভুল বলা হবে না। কারণ, ফোনটির ডিসপ্লে থাকছে ৭.৮ ইঞ্চির। কিন্তু, ফোনটিকে ফোল্ড করার সঙ্গে সঙ্গে সেটির ডিসপ্লেটির সাইজ কমবে। ডিসপ্লেটিকে তৈরি করেছে Royole। যেটি একটি AMOLED ডিসপ্লে। শুধুমাত্র ডিসপ্লেই নয়। বৈচিত্র্য রয়েছে ফোনটির ফিচারসেও। ফোনটিতে ৬ জিবি/৮ জিবির RAM থাকছে। এছাড়া, ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকছে যথাক্রমে ১২৮ জিবি/২৫৬ জিবির। ইউজার স্টোরেজ বাড়ানোর জন্য ব্যবহার করতে পারেন মাইক্রোএসডি কার্ড। আকর্ষণীয় এবং উন্নতমানের ক্যামেরা থাকছে ফোনটিতে। ৩৮০০ mAh ব্যাটারির সঙ্গে থাকছে ফার্স্ট চার্জিং সার্পোট।

সম্প্রতি, ডেভালপার কনফারেন্সের তারিখ সামনে এনেছে দক্ষিণ কোরিয়ান সংস্থা স্যামসাং৷ সূত্রের খবর, সেখানেই স্যামসাংয়ের ফোল্ডেবল ফোনটি লঞ্চ হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে৷ নভেম্বরে হতে চলেছে স্যামসাংয়ের এই ডেভালপার কনফারেন্স৷

তথ্য ও ছবিঃ গুগল