উইন্ডিজকে তছনছ করলো টাইগার বাহিনী

আহসান শামীম

বিশ্বকাপে নিজেদের ওয়ান ডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানা তাড়া করে জেতার রেকর্ডটা ওয়েষ্ট উইন্ডিজের বিপক্ষেই করলো বাংলাদেশ। এক ধরণের চাপে থাকা অধিনায়ক মাশরাফির মুখে অনেকদিন পর হাসির রেখা ফুটলো দলের এই সাফল্যে। শেষ ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিং এর সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর সোশ্যাল মিডিয়া মাশরাফিকে ভিলেন আসনে বসিয়ে দেয়।বোলিং, ফিল্ডিং আর ব্যাটিং সব বিভাগের দারুন পারর্ফমেন্সেনে ফসল বিশ্বকাপের পয়েন্ট তালিকায় পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। হাতে এখন পাঁচ পয়েন্ট।

বিশ্বকাপে বিশ্ব অলরাউন্ডার সাকিবের ছয় হাজার রানের ক্লাবে প্রবেশ,মুস্তাফিজের ৫০ তম ওয়ান ডে ম্যাচ আর লিটন দাসের বিশ্বকাপ অভিষেকের দিনে ৫১ রান বল ও ৭ উইকেট হাতে রেখেই জয় তুলে নিলো বাংলাদেশ। পাশাপাশি দলের প্রধান কোচ স্টিভ রোডসের জন্মদিনে এক অনবদ্য উপহার তার হাতে তুলে দিলো টাইগাররা।

গত কয়েকদিনে মাশরাফি-তামিমের বক্তব্যকে সত্য করতে সাকিব আল হাসান টনটনের মাঠ মাতিয়ে দিলেন। ৮ ওভার বল করে ৫৪ রানে ২ উইকেট। ব্যাট হাতে ৯৯ বলে অপরাজিত ১২৪ রান। টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি করে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান করে ফেলা। সাকিব নিজেকে মেলে ধরলেন আরও উচ্চতায়।লিটন দাস বড় মঞ্চে আবারও নিজেকে প্রমাণ করলেন বিশ্বকাপের অভিষেক ম্যাচে।মোহাম্মদ মিঠুনের বদলে তাকে খেলানো যে কতটা কার্যকর সিদ্ধান্ত সেটা চাপের মুখে খেলতে নেমে প্রমাণ করলেন লিটন। তড়িঘড়ি তামিম ও মুশফিক ফিরে গেলে সাকিবের সঙ্গে জুটি বাঁধেন লিটন। সেই জুটি আর ভাঙেনি। ১৩৫ বলে ১৮৯ রানের জুটিতে ম্যাচই শেষ করে দিয়ে আসেন তারা।বিশ্বকাপের প্রতি ম্যাচে নতুন নতুন রেকর্ড স্পর্শ করছেন সাকিব। উইন্ডিজের বিপক্ষে আজকের ম্যাচেও নতুন এক মাইলফলক স্পর্শ করেলেন সাকিব।দ্বিতীয় বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডেতে ছয় হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করলেন এই অলরাউন্ডার। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে এই মাইলফলক স্পর্শ করেছিলেন বন্ধু তামিম ইকবাল।আজকের সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ
অস্ট্রেলিয়ার রান সংগ্রাহকের দৌড়ে ফের শীর্ষে উঠলেন সাকিব। অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চকে টপকে সবার উপরে উঠলেন তিনি।ল হাতে মুস্তাফিজ ও সাইফউদ্দিন তিনটা করে আর সাকিব দুই উইকেটে তুলে নেন ওয়েষ্ট উইন্ডিজের। তবে লিটন দাসের সেঞ্চুরি নিয়ে আফসোস রয়ে গেলো। ম্যাচ শেষে সাকিব বললেন , বিশ্বকাপে বল হাতে এখনও নিজের সেরাটা দেয়ার বাকি রয়েছে।