একটি নিঃসঙ্গ বাড়ির কথা…

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জসিম মল্লিক

(টরন্টো থেকে): এই বাড়িটার সঙ্গে আমার নিজের কোথায় যেনো একটা মিল আছে। খুব বৈশিষ্টহীন, নিঃসঙ্গ, নিৰ্জন, সাধারন একটা বাড়ি। বাড়িটার কোনো জৌলুস নাই। কোনো আভিজাত্য নাই। কোনো অহম নাই। পুরনো একটা বাড়ি। একাকী একটা বাড়ি। ছিরিসুরাতহীন একটা বাড়ি। বাড়িটা সম্পৰ্কে আমি কিছুই জানি না। এর ভিতরে কি আছে তাও জানি না!
পথ চলতে গিয়ে বাড়িটা চোখে পড়ে একদিন এবং চলতি গাড়ি থেকে বাড়িটার একটা ছবি তুলি আমি। আর হয়তো কোনোদিন এই বাড়িটা দেখবো না। বাড়িটার পাশ দিয়ে যাবো না। ঠিক কোথা থেকে ছবিটা তুলেছি তাও মনে নাই। কোন রাস্তা, কোন ইন্টারসেকশন জানা নাই। বিশাল দেশ কানাডার অখ্যাত এক গ্রামে একাকী একটি বাড়ি।
নাহ্, এটা কোনো ওল্ড হোম বা কোনো হন্টেড হাউজ না। কোনো পৱিত্যাক্ত বাড়িও না। গভীর রাতে বাড়িৱ ভিতর থেকে কোনো ভুতুরে আওয়াজ হয় না বলেই মনে হয়। হয়তো নিঃসঙ্গ কোনো একজন মানুষ বাড়িটিতে থাকেন। একাকী তার জীবন। একাই রাঁধেন, একাই খান, একাই বাঁচেন, একাই মারা যাবেন। হয়তো কোনো স্বামী-স্ত্রী থাকেন। শেষ জীবনটা পার করছেন এখানে বা হয়তো এর কোনোটাই না।
চারিদিকে সবুজের মধ্যে একাকী বাড়িটা যেনো আমি। অনন্তকাল ধরে দাঁড়িয়ে আছি। কোথাও কেউ নাই। ক’দিন পরই প্রকৃতির পরিবৰ্তন হবে, সব পাতারা ঝড়ে যাবে। লাল, সবুজ, নীল, বেগুনী রঙ ধারণ করবে পাতারা। তারপর একদিন বরফে ঢাকা পড়বে সব। তখন আরো ভুতুরে হয়ে উঠবে প্রকৃতি এবং এই নিঃসঙ্গ বাড়িটি। যেনো আমি একটি প্রানহীন বাড়িৱ মতো দাঁড়িয়ে আছি সেই কবে থেকে..।

ছবি: লেখক

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]