এখনও পিছিয়ে বাংলাদেশ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীম

প্রথম ইনিংসে আফগানিস্তানের লিড ১৩৭ রানের। এরপর নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৩৭ রান করে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করে আফগানরা।এখন পর্যন্ত এগিয়ে আছে ৩৭৪ রানে।আলোক স্বল্পতার কারণে তৃতীয় দিনে ২ বল আগেই দিনের খেলা সমাপ্ত ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। বাঁজে আবহাওয়ার জন্য আলোক স্বল্পতা দেখা গিয়েছিল।দিনের শেষ ভাগে ফ্লাডলাইটের আলোয় ম্যাচ চালিয়ে যাওয়া হয়।বিদ্যুৎ বিভ্রাটের জন্য ফ্ল্যাডলাইটও বন্ধ হয়ে গেলে, তৃতীয় দিনের খেলা ২ বল বাকী রেখেই সমাপ্ত ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। চতুর্থ দিনে সর্বোচ্চ ৯৫ ওভার খেলার হওয়ার কথা রয়েছে। তৃতীয় দিন শেষে চট্টগ্রাম টেস্টের নিয়ন্ত্রণ আফগানিস্তানের হাতে।

আফগানদের দ্বিতীয় ইনিংসের নায়ক অভিষিক্ত ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান। দারুণ ব্যাটিংয়ে ৮৭ রান করে দলকে বড় লিড পাইয়ে দিয়েছেন । বাংলাদেশের ইনিংস ২০৫ রানে শেষ হওয়ার পর ৮ উইকেটে ২৩৭ রানে দিন পার করেছে সফরকারীরা। শেষ ২ উইকেট হাতে নিয়ে লিড হয়ে গেছে ৩৭৪ রানের।আবহাওয়া পূর্বাভাস আগামী রবিবার ও সোমবার ব্যাপক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা।টেষ্ট জয়ের জন্য আফগানরা চান বৃষ্টি না হোক, আর বাংলাদেশের লজ্জাকর পরিস্থিতির হাত থেকে বাঁচার উপায় আবহাওয়ার পূর্বাভাসের বাস্ত্যবতা দেখার।মানে বৃষ্টিতে ধুঁয়ে যাক টেষ্টের বাকি সময়।বৃষ্টিপাত ছাড়া এই টেষ্টে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা ক্ষিন।

বাংলাদেশ টেষ্ট দলের এমন পরিনতির জন্য টেষ্টের দ্বিতীয় দিন শেষে, বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক দুষলেন উইকটকে।এমন ফ্লাট উইকেটে বাংলাদেশ অনেক বছরই খেলেনি।বাংলাদেশ স্পিন দিয়ে কাবু করতে চেয়েছিল টেষ্টের নবীন দেশ আফগানদের,এবার বাংলাদেশের গড়া ফাঁদেই আটকে গেল বাংলাদেশ।

বিপর্যস্ত দ্বিতীয় দিন শেষে অধিনায়ক নিজেই এলেন সংবাদ সম্মেলনে। উইকেট নিয়ে প্রকাশ্যেই জানালেন নিজের হতাশা। উইকেটে সুবিধা থাকলেই শুধু প্রতিপক্ষকে চেপে ধরতে পারে বাংলাদেশ। আফগানিস্তানের তিনজন রিস্ট স্পিনার আছে, ফলে ফ্লাট উইকেটেও বল ঘোরাতে পারেন তাঁরা। এমন যুক্তিতে উইকেটে নিজেদের স্পিনারদের জন্য সুবিধা না থাকার হতাশা স্পষ্ট করেন সাকিব, ‘আমরা সবাই অনেক বিস্মিত। কারণ আমরা এমন আশা করিনি। আমরা যেমন আশা করেছিলাম, তার পুরো বিপরীত ছিল (উইকেট)। তার মানে এই না যে আমরা ভালো কিছু করতে পারব না। অবশ্যই আমাদের প্রত্যাশার বাইরে ছিল।’

প্রথম দিনে ৫ উইকেট পাওয়াত সাকিব নিজেই অবাক হয়েছেন, কারন হিসাবে তিনি বলেন, ‘আমরা অনেক বছর পর এমন ফ্লাট উইকেটে খেলছি।’ দ্বিতীয় দিন শেষেও উইকেট খুব একটা বদলায়নি বলেই জানালেন বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব ।যদিও বাংলাদেশ দুইশো পেরুনোর আগেই হারিয়েছে ৮ উইকেট। এর মধ্যে রিস্ট স্পিনাররা তুলে নেন ৫ উইকেট, ‘খুব একটা ফিঙ্গার স্পিনারদের জন্য উইকেট বদলেছে বলে মনে হয় না। রিস্ট স্পিনাররা সব সময় সাহায্য পাবে। কারণ রিস্ট স্পিনারদের ভেতরও ওদের বৈচিত্র্য আছে। কাজেই ওদের একটু সুবিধা অবশ্যই থাকবে। সাকিবের কথায় যুক্তি আছে, সাথে আছে ব্যাটসম্যানদের ব্যার্থাও। তৃতীয়দিন শেষে টেষ্টটা এখন পুরোপুরি আফগানদের নিয়ন্ত্রনে।এমন রানের পাহাড় ঠেলে এই টেষ্ট জয় করাটা বাংলাদেশের জন্য প্রায়ই অসম্ভব।যদিও অনিশ্চিয়তার ক্রিকেটে অসম্ভব বলে কোন কথা নাই।তারপরও সাদামাটা ভাবে বলাই যায় বৃষ্টি না হলে টেষ্টের ফলাফলটা আফগানদের দিকে ঝুঁকে আছে।

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]