এবার বিদায় প্রধান কোচ

আহসান শামীম

গুন্জন সত্য হলো।বাংলাদেশের প্রধান কোচ স্টিভ রোডর্স পদত্যাগ করেছেন, বলা যেতে পারে পদত্যাগ করানো হয়েছে। বিসিবির প্রধান নির্বাহী রোডের্সের পদত্যাগ প্রসঙ্গে বলেন, ‘বিষয়টা এমন নয় যে আমরা তাকে বরখাস্ত করেছি। আমরা দুই পক্ষ সমঝোতায় এসেছি বিশ্বকাপের পর, যদিও তার চুক্তি ২০২০ সালের টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত ছিল। আমরা এটাকে সমঝোতা হিসেবেই নিচ্ছি। আমরা এখন থেকেই এর বাস্তবায়ন করছি, শ্রীলংকা সফরে সে আমাদের সাথে থাকছেন না।’

২০১৭ সালে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের আকস্মিক বিদায়ের পর ২০১৮ সালের জুনে টাইগারদের দায়িত্ব নেন রোডর্স। ২০২০ সালের টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত চুক্তি ছিল বিসিবি সাথে। জানা গেছে, দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে প্রভাব খাটাতে না পারায় আর সঠিক পরিকল্পনা করতে রোডর্সের উপর অসন্তুষ্ট বিসিবি। যে কারনেই শেষ পর্যন্ত চুক্তি শেষ হওয়ার আগেই চাকরি ছাড়তে হলো তাঁকে।
এ মাসের শেষে শ্রীলঙ্কায় ওয়ানডে সিরিজ খেলতে যাবে বাংলাদেশ দল। সেই সফরে ভারপ্রাপ্ত কোচের অধীনেই খেলতে হবে টাইগারদের।কে কোচ থাকবেন, সেটা ঠিক হবে আগামী ২২ জুলাই বোর্ড সভায়। ব্যক্তিগত কারণে এই সফরে যাচ্ছেন না ব্যাটিং কোচ নীল ম্যাকেঞ্জিও। এছাড়া পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ, স্পিন বোলিং কোচ সুনীল যোশি এবং ফিজিও থিহান চন্দ্রমোহনের সাথেও চুক্তি নবায়ন করেনি বিসিবি। শুধু ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক ও পারফরম্যান্স অ্যানালিস্ট শ্রীনিবাস চন্দ্রশেখরন কেবল রয়েছেন দলের।নীল ম্যাকেন্জির কারনে চলমান বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ক্রিকেটে ব্যাটাররা দারুন প্রশংসা কুড়ান বিশ্ব ক্রিকেট অনুরাগীদের মাঝে।ম্যাকেন্জির সাথেও অবশ্য বনিবনা হয়নি অধিনায়ক মাশরাফির।রোডর্স না থাকায় বিসিবির পক্ষে ম্যাকেন্জিকে ধরে রাখাটাও কঠিন হওয়ার আশংকা রয়েছে।