কেক কুকিজের গন্ধে …

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বড়দিনে কেক না খেলে হয়? বড়দিন ভাবলেই তো চোখে ভেসে ওঠে সুস্বাদু কেক আর কুকিজ। বেকারী থেকে শুরু করে বাড়ির রান্নাঘর সবখানেই এখন কেকের মন পাগল করা সুঘ্রাণ ভাসছে। তাহলে প্রাণের বাংলাই বা কেনো দূরে থাকবে  কেকের সুঘ্রাণ মেখে সেজে ওঠা থেকে?  এবার প্রাণের বাংলার প্রচ্ছদে আপনাদের জন্য রইলো তিনজন রন্ধনশিল্পীর কেক আর কুকিজের রেসিপি। শীতমাখা বড়দিনে আপনাদের রান্নাঘর ব্যস্ত হয়ে উঠুক কেক বানানোর যজ্ঞে।

রিফাত আরা জাহান রিয়া

কোকোনাট অ্যামন্ড কেক

স্পঞ্জকেকের জন্য

ডিম – ৪টা

কোকোনাট অ্যামন্ড কেক

চিনি – ২কাপ

ময়দা – ১কাপ

অ্যামন্ড পাউডার – আধাকাপ

তেল – ১+১/২কাপ

বেকিং পাউডার – ২ চাচামচ

বেকিং সোডা – আধা চা চামচ

গুড়াদুধ – ২ চা চামচ

গ্রেটেড কোকোনাট – ২ টেবিল চামচ

ভ্যানিলা অ্যাসেন্স – আধা চা চামচ

প্রণালী :

সব গুড়া পাউডার গুলো ভাল করে মিশিয়ে আলাদা পাত্রে রাখুন।

ডিমের সাদা অংশ ভাল করে বিট করে ফোম বানান এরপর এতে তেল দিয়ে বিট করুন।

চিনি দিয়ে ভাল করে বিট করুন। চিনি মিশে গেলে এতে এসেন্স দিন।ভাল করে মিক্স করে নিন।

এরপর এতে সব গুড়ামশলা মিশিয়ে নিন ভাল করে।

ওভেনে ১৬০ডিগ্রিতে ৪০মিনিট বেক করুন।

কেক হয়ে গেলে সাবধানে নামিয়ে ঠান্ডা করুন।

 ফ্রস্টিং

আনসল্টেড মাখন – ১০০গ্রাম

ঘনচিনির সিরা – আধা কাপ (১কাপ চিনি আধা কাপ পানিতে জ্বাল দিয়ে সিরা বানান)

ডিমের সাদা অংশ – ৩টা

দুধ – ২ টেবিল চামচ (ফ্রিজিং করে নিতে হবে)

প্রণালী :

ডিমের সাদা অংশ খুব ভাল করে বিট করুন। ফোম হয়ে এলে এতে গরম চিনির সিরা আস্তে আস্তে দিয়ে বিট করতে থাকুন।ক্রিমের রঙ সাদা হয়ে এলে এতে অল্প অল্প করে বাটার দিয়ে বিট করতে থাকুন দ্রুত।ভ্যানিলা এসেন্স দিন, ঠান্ডা দুধ দিয়ে ভাল করে বিট করুন।

ফ্রিজে আধাঘন্টা রাখুন।

ডেকোরেশন :

কেক মাঝখান থেকে কেটে পাতলা ক্রিমের লেয়ার দিন। উপরে কিছু গ্রেটেড কোকোনাট (হালকা ভেজে নিলে ভাল হয়।হালকা গোল্ডেন কালার করা) ও অ্যামন্ড কুচি দিন।

কেকের চারপাশে নিজের পছন্দমত ডিজাইন করে নিন ক্রিম দিয়ে।

বাটার কুকিজ

বাটার কুকিজ

উপকরণ:

ময়দা – ১৫০গ্রাম

বাটার – ৭০গ্রাম

লবন – ২গ্রাম

গুড়া চিনি – ২৫গ্রাম

দুধ – ১৫গ্রাম (সম্পূর্ণ না লাগতে পারে)

প্রণালী:

ময়দায় লবণ ও চিনি মিশিয়ে নিন। বাটার দিয়ে ভাল করে মথে নিন।অল্প অল্প করে দুধ মিশিয়ে সফট ডো বানান।

ঢেকে আধাঘন্টা ফ্রিজে রাখুন।

আধা ঘন্টা পর আধা ইঞ্চি পুরু করে বেলে পছন্দ মত সাইজে ডাইস দিয়ে কুকিজ কেটে নিন।

উপরে চকলেট রাইস ছড়াতে পারেন কিংবা ছুড়ি দিয়ে হালকা দাগ কেটে নিতে পারেন।প্রি-হিটেড ওভেনে ১৬০° তে ৫০ মিনিট বেক করুন।

ওভেন থেকে বের করে ঠান্ডা হতে দিন।

ঠান্ডা হলে এয়ার টাইট কৌটায় ভরে রাখুন।

 

ডোনাট

ময়দা – ২০০গ্রাম

ডোনাট

ইন্সট্যান্টইস্ট – ২চাচামচ

গুড়াদুধ – ২টেবিলচামচ

চিনি – ২চাচামচ

ফুটন্ত পানি – প্রয়োজন মত

 প্রনালী

ময়দা, ইস্ট, গুড়াদুধ, চিনি খুব ভাল করে মিশিয়ে নিন।

পানি দিয়ে সফট ডো বানান।খুব ভাল করে মথে নিন।

ছোট ছোট আকারে ডোনাট কেটে নিন।

গরম স্থানে ১৫ মিনিট রাখুন।

ফুলে উঠলে ডুবো তেলে গোল্ডেন কালার করে ভেজে নিন।

কোন পাত্রে ১৫ মিনিট ঢেকে রাখুন।

২কাপ চিনিতে ১.৫কাপ পানি ও ২টা এলাচ দিয়ে জ্বাল দিয়ে সিরাপ বানিয়ে নিন।

ডোনাটগুলো  সিরায় ডুবিয়ে তুলে নিন।

উপরে গুড়া চিনি ডাস্ট করে মেল্টেড চকলেট দিয়ে পছন্দমতো সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

ননবেক ওরিও চীজ কেক

ওরিও কেক গুড়া – ১কাপ

ননবেক ওরিও চীজ কেক

মোল্টেড বাটার – ১/৩ কাপ

ক্রিমচীজ – ১০০গ্রাম

হুইপিং ক্রিম – ১০০গ্রাম

চিনি – ৩ টেবিল চামচ

ভ্যানিলাএসেন্স – আধাচাচামচ

প্রণালী :

হুইপিংক্রিম ও চিনি বিট   করুন ভাল করে।এতে ক্রিম চীজ দিয়ে  বিট করে মসৃন মিক্সার বানান।ভ্যানিলা এসেন্স মিশান।বিস্কুটের গুড়ায় বাটার মিশান ভাল করে।

ডেকোরেশন :

ছোট ছোট কাপ নিয়ে এতে বিস্কুটের লেয়ার দিন।এরপর সাবধানে ভাল করে ক্রিমচীজের লেয়ার দিন।এভাবে কয়েক লেয়ারে পছন্দ মত সাজিয়ে নিন।চাইলে উপরে চকলেটের টুকরা কিংবা ওরিও বিস্কুটের টুকরা দিতে পারেন।

অন্তত পক্ষে আধাঘন্টা ফ্রিজে রেখে জমিয়ে নিন।

ফারহানা বীথি

টিরামিসু

টিরামিসু

উপকরণঃ

ডিম ৩টি

চিনি৪৫ গ্রা্‌ম

ম্যাজকারপন চিজ ২৫০ গ্রাম

কফির গুড়া ৫ চা চামচ

ভানিলা এসেন্স ১ চা চামচ।

 প্রণালীঃ

প্রথমে পাত্রে তিনটি ডিম এর সাদা অংশ এবং কুসুম আলাদা করতে হবে কুসুম এর সঙ্গে ৪৫ গ্রাম চিনি মিক্স করে ডাবল বয়লারের বিট করতে হবে ভালো করে। অন্য একটি পাত্রে  ২৫০ গ্রামের ম্যাজকারপন চীজ দিয়ে সফটলি বিট করতে হবে সঙ্গে ডিমের সাদা অংশ বিট করে ফোম করে চিজ-এ দিয়ে মিক্স করতে হবে, সামান্য ভ্যানিলা এসেন্স ফোম এর সঙ্গে মিক্স করে কফির গুড়া দিয়ে এটি ফ্রিজে রাখতে হবে সাত থেকে আট ঘণ্টা। ফ্রিজ থেকে বের করে কফির গুড়া এবং লেডিস ফিংগার দিয়ে পছন্দমত সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে টিরামিসু।

লাভ বাইট

লাভ বাইট

উপকরণঃ

ময়দা ১কাপ

চিনি১/২ কাপ

বেকিং পাউডার ১চা চামচ

দুধ ১/২কাপ

তেল১/২কাপ

ভেনিলা এসেন্স ১চা চামচ

গুড়া দুধ ২চা চামচ

স্ট্রবেরি সিরাপ ২চা চামচ।

প্রণালীঃ

প্রথমে ডিমের সাদা অংশ করে নিয়ে এতে সব শুকনো উপকরণ এক সঙ্গে চালুনীতে চেলে নিয়ে অন্যান্য উপকরণ অল্প অল্প মিশিয়ে মোল্ড এ ঢেলে স্ট্রবেরি সিরাপ দিয়ে ডিজাইন করে ১৫০ ডিগ্রী তে ২০ মিনিট বেক করতে হবে।

সারপ্রাইস ফ্লান

সারপ্রাইস ফ্লান

উপকরণঃ

ডিমঃ ২টা

চিনিঃ ৫০ গ্রাম

গুড়া দুধঃ ২চা চামচ

দুধঃ১ কাপ

আমন্ড

কাজু বাদাম গুড়া সামান্য ।

 প্রণালী:

প্রথমে ডিম,চিনি,গুড়া দুধ, ভেনিলা এসেন্স,দুধ(১ কাপ) ভালোভাবে মিশিয়ে মোল্ডে ঢেলে ওভেনে ১৬০ ডিগ্রী তে ২০ মিনিট বেক করতে হবে। এরপর ওভেন থেকে বের করে ঠান্ডা করে মাঝে কেটে বাদাম গুড়া ভিতরে দিয়ে পছন্দমত সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

সুইস রোল

সুইস রোল

উপকরণ:

ডিমঃ ২ টা

চিনিঃ৫০ গ্রাম

ময়দাঃ৫০ গ্রাম

ভেনিলা এসেন্সঃ১/২ চা চামচ।

প্রণালী:

প্রথমে সুইস স্পন্সস বানাতে হবে, তার জন্য ৩টা ডিম এবং ৫০ গ্রাম চিনি এক সঙ্গে ভাল ভাবে বিট করে ফোম করতে হবে, ফোম হয়ে গেলে ৫০ গ্রাম ময়দা ও ভেনিলা এসেন্স, ফোম এর সঙ্গে হাতে মাখিয়ে নিতে হবে এর পর বেকিং কাগজে দিয়ে ২২০ তাপমাএায় ওভেন এ বেক করতে হবে। এর পর ওভেন থেকে বের করে এর মধ্যে হুইপড ক্রীম এর সঙ্গে সামান্য স্ট্রবেরি সিরাপ মিক্স করে স্পন্স এর উপরে দিয়ে রোল করে কেটে পরিবেশন করতে হবে।

অসিত কর্মকার সুজন

ফুলকপির কাস্টার্ড

ফুলকপির কাস্টার্ড

উপকরণ:

দুধ- ১ লিটার

ফুলকপি মিহি কুঁচি- ১ কাপ

ডিমের কুসুম- ২ টা

কাস্টার্ড পাউডার- ২ টেবিল চামচ

চিনি- ১/২ কাপ

বাদাম কুচি- ২ টেবিল চামচ ।

 প্রণালী:

প্রথমে ফুলকপি কুঁচি পানিতে হালকা সেদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে সামান্য মাখনে অল্প আচে ভেজে নিন।তারপর ডিমের কুসুম দুইটা একটি বাটিতে নিয়ে ভালো করে ফেটে নিন। এখন কাস্টার্ড পাউডার দিয়ে ভালো করে মেশান এবং নরম মিশ্রণ তৈরি করুন। একটি পাত্রে দুধ নিন এবং অল্প আচেঁ জাল দিন। দুধ একটু ঘন হয়ে এলে চিনি দিয়ে নাড়তে থাকুন। ডিম এবং কাস্টার্ড এর মিশ্রনটি দুধের সঙ্গে ঢেলে দিন এবং দ্রুত নাড়তে থাকুন। এবার এতে ভাজা ফুলকপি দিন। কাস্টার্ডের মিশ্রণ হালকা ফুটে উঠলে নামিয়ে ফেলুন। এরপর ঠাণ্ডা হলে ফ্রিজে রাখুন। গ্লাসে ঢেলে বাদাম ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

লাউ ও পেস্তা লাড্ডু

লাউ ও পেস্তা লাড্ডু

উপকরণ:

লাউ  কুঁচি -২ কাপ

পেস্তা কুঁচি- ১ কাপ

কনডেন্সড মিল্ক- ১ কাপ

গুড়ো দুধ -১ কাপ

চিনি- ১ কাপ

মাওয়া- ১/২ কাপ

ছানা- ১ কাপ

ভ্যানিলা এসেন্স -১/২ চা চামচ

ঘি ১/২ -কাপ টেবিল চামচ ।

প্রণালী:

ফুটন্ত গরম পানিতে লাউ কুঁচি পাঁচ মিনিট রেখে ভালো করে ছেঁকে নিয়ে চিপে চিপে পানি বের করে নিয়ে সামান্য চিনির সিরা করে মেখে নিতে হবে । এবার প্যানে ঘি দিয়ে তাতে সিরা মাখানো লাউ কুঁচি দিয়ে একে একে বাকী সব উপকরণ দিয়ে মাঝারি আঁচে অনবরত নাড়তে হবে ।আঁঠালো হয়ে এলে নামিয়ে লাড্ডুর আকারে গড়ে পরিবেশন করুন ।

লেয়ার ভেজিটেবল রোলার

উপকরণ :

লেয়ার ভেজিটেবল রোলার

বিটরুট কুঁচি- ৩ কাপ

গাজর কুঁচি- ২ কাপ

ব্রকোলি কুঁচি- ১ কাপ

বাটার- দেড় কাপ

কন্ডেন্সড মিল্ক- ৩ কাপ

গুঁড়ো দুধ- দেড় কাপ

চিনি- ৩ কাপ

ভ্যানিলা এসেন্স- ১ টেবিল চামচ

বাদাম কুঁচি- আধা কাপ ( বিটরুটের জন্য )

কিশমিশ কুঁচি -২ টেবিল চামচ ( গাজরের জন্য )

চেরি কুঁচি- ১ টেবিল চামচ ( ব্রকোলির জন্য )

প্রণালী :

বিট , গাজর ও ব্রকোলি কুঁচি আলাদা ভাবে গরম পানিতে সামান্য সেদ্ধ করে পেস্ট করতে হবে । এবার প্যানে আধা কাপ বাটার দিয়ে তাতে বিট পেস্ট দিয়ে একে একে ১ কাপ কন্ডেন্সড মিল্ক , আধা কাপ গুঁড়ো দুধ, ১ কাপ চিনি , সামান্য ভ্যানিলা এসেন্স ও বাদাম কুঁচি দিয়ে ভালো ভাবে নাড়তে হবে । আঠালো হয়ে এলে নামিয়ে ফয়েল পেপারে বাটার ব্রাশ করে সমান ভাবে বিছিয়ে দিয়ে হবে । ঠিক একই ভাবে একই পরিমানের উপকরণ দিয়ে গাজর ও ব্রকোলি পেস্ট করে নিয়ে বিট পেস্ট এর উপর গাজর পেস্ট ও তার উপর ব্রকোলি পেস্ট সমান ভাবে বিছিয়ে ঠাণ্ডা করতে হবে । কিছুটা ঠান্ডা হইয়ে এলে রোলের মতো মুড়িয়ে নিয়ে ঠাণ্ডা করতে হবে। ঠাণ্ডা হয়ে এলে পিস করে কেটে পরিবেশন করতে হবে ।

কাঁচাকলার  সন্দেশ

কাঁচাকলার সন্দেশ

উপকরণ:

ক)

কাঁচাকলা পেস্ট- দেড় কাপ

ঘি- ১/২ কাপ

ছানা -১ কাপ

কন্ডেন্স মিল্ক- ১/২ কাপ

মাওয়া -১/২ কাপ

আতপ চালের গুড়ো- ২ টেবিল চামচ

বাদাম পেস্ট -১/২ কাপ

চিনি- ১/২ কাপ (স্বাদ অনুযায়ী)

ভ্যানিলা এসেন্স -১/২ চা চামচ

গুড়ো দুধ- দেড় কাপ।

খ)

পালং শাক স্বেদ্ধ পানি ১/২ কাপ, স্বেদ্ধ ডিমের কুসুম ৩ টি, মধু ২ টেবিল চামচ,  গুড়ো দুধ ১ টেবিল চামচ।

প্রণালী:

প্রথমে একটি প্যানে ঘি দিয়ে কলা পেস্ট, কচু পেস্ট ও চিনি দিয়ে নাড়তে থাকুন৷ চিনি গলে গেলে একে একে বাকী সব উপকরণ দিয়ে ভালোভাবে নাড়ুন৷ মিশ্রণ আঠালো হয়ে এলে প্যান নামিয়ে রাখুন। এবার একটি ট্রে তে ঘি ব্রাশ করে  বিছিয়ে দিন।  ঠান্ডা হলে পছন্দমতো আকারে কেটে নিয়ে গুড়ো দুধে গড়িয়ে নিন। এবার খ নং উপকরণ ভালোভাবে মিশিয়ে স্পিনাস অ্যান্ড এগ ইয়োক সুইট ক্রিমি সস তৈরি করে সন্দেশের সাথে সাজিয়ে পরিবেশন করুন৷

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]