ঘরেই তৈরি করুন নাইট ক্রিম…

শীতে ত্বকের শুষ্কতা বা ড্রাইনেস দূর করতে যেকোনো ক্রিম নয় বরং ব্যবহার করুন ঘরে বানানো নাইট ক্রিম। সারাদিন শরীরের ত্বকে ক্রিম বা বডিলোশন যা-ই ব্যবহার রেন না কেন রাতে অবশ্যই স্কিনকে দিন নাইট ক্রিমের ছোঁয়া। এই ক্রিম ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতেও সাহায্য করে ।ভিটামিন ই ক্যাপসুল দিয়ে বানানো নাইট ক্রিম শীতে ত্বক কালো ও ড্রাই হতে দেবে না। তাছাড়া হাতের কাছে পাওয়া যায় এমনি  কিছু জিনিস ব্যবহার করেই আপনি খুব সহজে বানাতে পারবেন এই নাইট ক্রিম।এখানে একদিনের ব্যবহারের মত দুটি নাইট ক্রিমের  উপকরণসহ প্রণালী এখানে দেয়া হলো:

১.উপকরণ:

*গোলাপজল ৪ থেকে ৫ ফোটা

*গ্লিসারিন হাফ চা চামচ

*অ্যালোভেরা জেল ১ চা চামচ

*ভিটামিন ই ক্যাপসুল ১টি

প্রণালী:

একটি কাঁচের পাত্র ভালো করে ধুয়ে মুছে অ্যালোভেরা জেল ১ চা চামচ, গ্লিসারিন হাফ চা চামচ, ভিটামিন ই ক্যাপসুল ১টি ও গোলাপজল ৪ থেকে ৫ ফোটা নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিনেএমন ভাবে মেশাবেন যেন কোন উপকরণ আলাদা না থাকে।

২. উপকরণ:

* কাচাদুধ

* কাঠবাদাম

* লেবু

প্রণালী:

বাদাম এবং কাচা দুধ ত্বকের জন্য খুবই ভালো।সারা রাত কাঠবাদাম ভিজিয়ে রাখতে হবে।সকাল বেলা খোসা ছাড়িয়ে বাদাম গুলো ব্লেন্ডার বা পাটায় পিসে গুড়া করে নিতে হবে।হাফ টেবিল চামচ কাচাদুধের সঙ্গে হাফ টেবিল চামচ বাদামের গুড়া মিশিয়ে পেস্ট তৈরী করতে হবে।তারপর ২ ঘন্টা রেখে দিতে হবে।যখন মুখে ক্রিম ক্রিমটি মাখবে তখন পেস্টের মধ্য দুই-তিন ফোটা লেবুর রস মিশিয়ে মুখে মাখতে হবে।

কাচা দুধ ত্বকের এন্টিএজিং পোরগুলো বন্ধ করতে খুবই কার্যকরী। বাজারের যে কোন নাইট ক্রিম এর থেকে এই ক্রিমটি আপনার ত্বকের জন্য ভালো হবে এবং ক্রিমটি ওয়েলি, ড্রাই, সেনসিটিভ সব রকমের স্কিনেই ব্যবহার করা যাবে।

কেউ যদি এক বারে ক্রিমগুলো বানিয়ে রাখতে চান সেক্ষেত্রে ক্রিম বানিয়ে এয়ার টাইট কৌটায় রেখে সংরক্ষজণ করতে পারেন।

ব্যবহারের পূর্বে অবশ্যই ভালো করে মুখটা ধুয়ে নিতে হবে।
এই ক্রিমটা ত্বকে মসচারাইজার এর কাজ করবে।

নাইট ক্রিম ব্যবহার করার আগে ভালো করে মুখ ধুয়ে নিন। হাতে পায়ে লাগাতে চাইলেও লাগাতে পারেন।

মুখ হাত ধোয়ার পর পরিষ্কার কাপড়ে তা মুছে নিয়ে হালকা ম্যাসাজ করে ক্রিমটি লাগিয়ে নিন।

সারা রাত মেখে থাকুন। সকালে উঠে ফেসওয়াস দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

এক সপ্তাহ নিয়মিত ব্যবহার করলে নিজেই বুঝতে পারবেন পরিবর্তন।

ছবি: গুগল