ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

আহসান শামীম

জিম্বাবুয়ে সিরিজ শেষ হতে না হতেই ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ।দুই টেস্ট, তিন ওয়ানডে আর তিন টি-টুয়েন্টি খেলতে বাংলাদেশের মাটিতে পা রেখেছে ওয়েষ্ট উইন্ডিজ।দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ২২-২৬ নভেম্বর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে রোববার ১৮ নভেম্বর চট্রগ্রামে  প্রস্তুতি ম্যাচ শুরু হবে ।

দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ৩০ নভেম্বর থেকে ৪ ডিসেম্বর ঢাকার মিরপুর  স্টেডিয়ামে। টেস্ট সিরিজ শেষে,  ৯ ও ১১ ডিসেম্বর একই ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডে। তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচ ১৪ ডিসেম্বর সিলেটে অনুষ্ঠিত হবে।ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচগুলো দিবা-রা‌ত্রির।১৭ ডিসেম্বর প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ শেষে সিলেট থেকে ঢাকায় ফিরবে দুই দল। মিরপুর শের-ই-বাংলায় ২০ ও ২২ ডিসেম্বর  সিরিজের শেষ দুই টি-টোয়েন্টি ম্যাচ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ফিরেছেন  সাকিব। সাকিব ছাড়াও ১৩ সদস্যের দলে ফিরেছেন বাঁহাতি টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার।টেষ্ট দলে বড় চমক ডানহাতি অফস্পিনার নাঈম হাসান। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ থেকে বাদ পড়েছেন লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, আবু জায়েদ রাহী ও নাজমুল ইসলাম অপু।জিম্বাবুয়ে সিরিজে অভিষেক হওয়া আরিফুল হক, মিথুন আলি এবং খালেদ আহমেদ প্রথম টেস্টের স্কোয়াডে জায়গা ধরে রেখেছেন।

ওয়েষ্ট উইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিতলেই র‍্যাঙ্কিংয়ে অষ্টম স্থানে চলে যাওয়ার সুযোগ থাকছে সাকিব, মুশফিক, রিয়াদদের সামনে।আইসিসি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে বর্তমানে টাইগারদের অবস্থান নবম।অষ্টম স্থানে আছে উইন্ডিজ। জিম্বাবুয়ে সিরিজ শেষে বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট ৬৭ আর উইন্ডিজের ৭৬।ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ যদি বাংলাদেশ ১-০ ব্যবধানে জেতে তাহলে বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট হবে ৭৩। অন্যদিকে বাংলাদেশ ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতলে বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট ৭৫ আর উইন্ডিজের ৭১।

ছবিঃ গুগল