ঘরে বসে হেয়ার স্পা

হেয়ার স্পা বেশ জনপ্রিয় এবং প্রচলিত একটি ট্রিটমেন্ট। অনেকেই নিয়মিত পার্লারে গিয়ে হেয়ার স্পা করেন। রুক্ষ, প্রাণহীন চুলকে ঝলমল উজ্জ্বল করে তুলতে হেয়ার স্পার তুলনা নেই। কিন্তু এই যান্ত্রিকযুগে সময় করে পার্লারে গিয়ে স্পা করানো অনেক সময়ই সম্ভব হয় না। তাই আপনি বাসায় বসেই খুব সহজেই হেয়ার স্পা করে নিতে পারেন

তেলের ম্যাসাজ

অলিভ অয়েল অথবা নারকেল তেল সামান্য গরম করে নিন। তারপর ওই গরম তেল মাথার তালুতে কিছুক্ষণ ম্যাসাজ করুন।তারপর ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে একটি গরম পানিতে ভেজানো তোয়ালে দিয়ে ১০ মিনিট পুরো মাথা ঢেকে রাখুন। তোয়ালের গরম ভাব চুলে স্টিমের কাজ করবে। তারপর মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। তেলের ম্যাসাজ করলে চুলে কন্ডিশনার ব্যবহার না করলেও চলে।। অন্যান্য তেলের তুলনায় অলিভ অয়েল বেশি কার্যকর।

হট অয়েল ম্যাসাজের পর নিচের যেকোন একটি প্যাক চুলে ব্যবহার করতে পারেন।

অ্যাভোকাডো এবং মধুর হেয়ার প্যাকhear1

অ্যাভোকাডো নতুন চুল গজাতে সাহায্য যেমন করে তেমনি চুলকে মসৃণ কোমল করে থাকে। একটি অ্যাভাকাডো চটকে নিয়ে এর মধ্যে এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এবার চুলে এই প্যাক মাখুন। ২০ মিনিট এর পর মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

ডিম এবং তেলের প্যাক

ডিমের প্রোটিন নতুন চুলের গোঁড়া মজবুত করে । যেকোন ভিটামিন ই যুক্ত তেলের সঙ্গে ডিম ভাল ভাবে মিশিয়ে নিন। এই প্যাক সম্পূর্ণ চুলে মেখে ২০ থেকে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবার মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালো করে ধুয়ে ফেলুন এবং কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। এই প্যাকটি চুলকে নরম ও মসৃণ করে তুলবে।

কলার প্যাক

একটি পাকা কলা চটকে নিয়ে এতে অলিভ অয়েল এবং ডিম মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এবার প্যাকটি চুলে মেখে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর চুল শ্যাম্পু করে ফেলুন।

শসার প্যাক

একটি ডিমের সাদা অংশ ভাল করে ফেটে নিন এবং এর সঙ্গে দুই টেবিল চামচ ভিটামিন ই অয়েল এবং চার পাঁচ টুকরো শসার টুকরো করে রস বের করে সবগুলো উপাদান একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন।তারপর চুলে এই প্যাকটি ভাল করে লাগান। ২০ মিনিট পর শ্যাম্পু করে ফেলুন।

দুধ ও মধুর প্যাক

সবচেয়ে কার্যকরী একটি স্পা হল দুধ মধুর প্যাক। এক গ্লাস দুধের সঙ্গে এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে ফেলুন। এরপর এটি চুলে ভালো করে মেখে ১৫ থেকে ২০ মিনিট রাখুন। তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে চুল শ্যাম্পু করে ফেলুন। এতে চুল অনেক বেশি ঝরঝরে ও প্রাণবন্ত হবে।

স্বাগতা জাহ্নবী

.