চিকেন কিমা উইথ আলু এ্যান্ড মটর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

চন্দ্রবলী বিশ্বাস

আমাদের হেঁশেলে সহজ ভাবে যে কোনো সময় রান্না করা যায় এমন কিছু রান্নার রেসেপি নিয়মিত দিচ্ছেন অনেকেই। রান্নাগুলো আপনি যে কোন সময়ে চটজলদি করে ফেলতে পারেন। অবশ্যই খেতেও ভালো লাগবে। মুখের রুচিও বদল হবে।এবারে কলকাতা থেকে রেসেপি পাঠিয়েছেন চন্দ্রাবলী বিশ্বাস।

 উপকরণ :

 কিমা… ২৫০ গ্রাম

 পেঁয়াজ… দুটো বড় কুচি করা

আলু… একটা বড়, একটু বড় ডুমো কাটা

 মটর শুঁটি…আধা কাপ

টমেটো… একটা বড় গ্রেট করা

হলুদ গুঁড়ো… আধা চা চামচ

লঙ্কা গুঁড়ো… দুই চা চামচ

পেঁয়াজ বাটা… চার টেবিল চামচ

রসুন বাটা… দুই চা চামচ

 আদা বাটা… দুই চা চামচ

তেজপাতা… একটা

ছোট এলাচ… দুটো

লবঙ্গ… চারটে

দারচিনি… ছোট এক টুকরো

জয়ীত্রী… একটা ফুলের দুটো পাপড়ি

গোলমরিচ… ১০-১২ টা

জায়ফল গুঁড়ো… দু চিমটি

কাঁচা লঙ্কা… ৪-৫ টা

 ঘি… এক চা চামচ

ধনেপাতা কুচি… এক টেবিল চামচ

নুন+ চিনি… স্বাদ মত

সর্ষের তেল… তিন টেবিল চামচ

সূর্যমুখী তেল… এক টেবিল চামচ

প্রণালী :

 কিমা ধুয়ে ভালো করে জল ঝরিয়ে নিন।এবার হলুদ লঙ্কা ও বাটা মশলা সব কিমাতে মাখিয়ে নিন। আলুতে অল্প নুন মেখে রাখুন।এবার কড়াইতে তিন টেবিল চামচ সর্ষের  তেল গরম করে  আলু একটু লাল করে ভেজে তুলুন । ওই তেলের সঙ্গে সাদা তেল মিশিয়ে গরম করে কুচি কাটা পেঁয়াজ ও তেজপাতা বেরেস্তার মত লাল করে ভেজে মেখে ওর ভেতর মেখে রাখা কিমা দিয়ে মিনিট পাঁচ চড়া আঁচে কষিয়ে নিন। কিমার জল শুকিয়ে ভাজা ভাজা হলে টমেটো গ্রেট নুন চিনি গোটা গরম মশলা হামান দিস্তায় গুঁড়ো করে কিমার সঙ্গে মিশিয়ে ঢাকা দিয়ে একদম কম আঁচে বসিয়ে রাখুন। মিনিট পাঁচ পরে ঢাকানা খুলে দেখুন তেল উপরে উঠেছে। তখন এক কাপ গরম জলে কিমা মাখা বাটিটা ধুয়ে সেটা  ঢেলে দিয়ে আলু মটর শুঁটি ও কাঁচা লঙ্কা চিরে মিশিয়ে দিন। আবার ওই নিভু আঁচে কড়াই ঢাকা দিয়ে দশ মিনিট রেখে দিন। তারপর ঢাকনা খুলে দেখুন আলু মটর শুঁটি সেদ্ধ হয়েছে কি না। সেদ্ধ হয়ে গেলে আগুন থেকে নামিয়ে ঘি জায়ফল গুঁড়ো ও ধনে পাতা মিশিয়ে ঢেকে রাখুন। পনের মিনিট পরে পরিবেশন করুন জাফরানী জীরা রাইস এর সঙ্গে।


প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না, তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]


https://www.facebook.com/aquagadget
Facebook Comments Box