জনি’র ‘লাকী বাম্বো’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্প্রতি অর্ন্তজালে মুক্তি পেয়েছে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘লাকী বাম্বো’। প্রযুক্তি, প্রকৃতি ও জেনারেশন গ্যাপের মধ্যেকার টানাপোড়েনের ঘটনাকে উপজীব্য করে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করেছেন নির্মাতা তানজিল আহমেদ জনি।
স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের গল্পে দেখা যাবে, বিশ্ববিদ্যালয়ের শেষ বর্ষের ছাত্র জন তার ঘরে নতুন একটি লাকী বাম্বো গাছ কিনে আনে। ঘটনাক্রমে কিছুদিন পরে সেই গাছের সঙ্গে শুরু হয় জনের কথোপকথন। সেখানে গাছের বক্তব্যে ও জনের বিভিন্ন কাজের মধ্যে ফুটে উঠতে থাকে আমাদের পারিবারিক ও নাগরিক জীবনের কিছু অসঙ্গতি। এভাবে নানান নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে যবনিকার দিকে এগিয়ে যায় ‘লাকী বাম্বো’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটির কাহিনি।
স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি নির্মাণের পাশাপাশি কাহিনি, চিত্রনাট্য লেখার কাজটিও করেছেন নির্মাতা নিজেই।
স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি প্রসঙ্গে তিনি বলেন,‘কখনো কখনো আমরা নিজেদের ইচ্ছেকে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেওয়ার কারণে নিজের জীবনের জন্য সব ভুল সিদ্ধান্তগুলো গ্রহণ করি। সেই মুর্হুতগুলোতে যিনি আমাদের শুভাকাক্ষি হয়ে পাশে থাকেন কিংবা সুপরামর্শ দেন, আমরা এক সময় তার সঙ্গেই সবার প্রথম প্রতারণা কিংবা তাকে জীবন থেকে বহু দুরে সরিয়ে দেই। মূলত গল্পে আমাদের যাপিতজীবনের বেশ কিছু ঘটনাকে আমি লাকী বাম্বো গাছের মাধ্যমে রূপক অর্থে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।’
স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন জন এবং লাকী বাম্বো গাছের কন্ঠ দিয়েছেন স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটির প্রযোজক ভিভা।

বিনোদন প্রতিবেদক

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]