টাইগাররা যেন বিড়াল হয়ে গেল

আহসান শামীম

তিন ওয়ানডে সিরিজে ধবল ধোলাই, প্রথম টেষ্টে পরাজয়ের পর মোটা দাগে সোয়া দুই দিনে দ্বিতীয় টেষ্টে নিউজিল্যান্ডর বিপক্ষে বাংলাদেশের টাইগাররা যেন বিড়াল হয়ে গেল।একেবারে ইনিংস পরাজয়।সাউথ আফ্রিকা, ওয়েষ্ট উইন্ডিজের পর লজ্জার নতুন আরেক অধ্যায় বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফর।

সফরটা পূর্ব পরিকল্পিত হলেও সফর উপলক্ষ্যে কোন পূর্ব প্রস্তুতির সময় ছিল না সফরত বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের।বিপিএলের মাঠ থেকে সরাসরি নিউজিল্যান্ড।প্রস্তুতিবিহীন দলে যা হবার সেটাই হয়েছে, মুশফিক,মিঠুন ইন্জুরীর কবলে।ইন্জুরী কারনে দলেই যুক্ত হতে পারেননি সাকিব। কিছুটা রানের দেখা পেলেও ওয়ানডের তিন ম্যাচেই ওপেনার তামিম -লিটন সম্পূর্ন ব্যর্থ। তিন ওয়ানডে ম্যাচে ১ রান করে তিনবারই আউট হয়েছেন লিটন, তামিমও দুই অঙ্কে পৌঁছাতেই পারেননি।বল হাতেও পেসরা বাউন্সি উইকেটে নিজেদের অসাহায়ত্বটাই প্রকাশ করলেন।কর্টিন ওয়ালশের মত লিজেন্ড বাংলাদেশ দলকে কতটুকু শিখাতে পারলেন সেই প্রশ্ন ডাল পালা মেলাতে শুরু করেছে। কর্টিন ওয়ালশের বা দোষ কোথায়? বাংলাদেশের উইকেটে ভাল পেসার তৈরীর প্রধান অন্তরায়।

আজকের লজ্জার গল্পটা অন্যরকমও হতে পারত।

‘যদি’ ‘কিন্তু’ শব্দ প্রয়োগ ছাড়া  লজ্জার ইতিহাসটা ম্লান করার মতো কোন উপযুক্ত শব্দ আমার মাথায় ঘুরছে না।২০ রানে থাকা অবস্থায় স্লিপে দুইবার জীবন পেয়ে সেটাকে ডাবল সেঞ্চুরিতে পরিণত করেই ওয়েলিংটন টেস্টের ভাগ্য বদলে দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যান রস টেইলর। স্লিপে ২০ রানের মাথায়  ক্যাচ ছেড়েছেন বাংলাদেশের দলপতি মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আর সাদমান ইসলাম অনিক। সেই সময় ক্যাচটা লুফে নিতে পারলে এই ম্যাচের গল্পটা ভিন্ন হতে পারতো।দলপতি রিয়াদও একই রকম চিন্তার কথা জানালেন ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে। দলপতি কি বলছেন সেটা থেকে বড় প্রশ্ন বিসিসিবি কর্তা ব্যাক্তিরা কী করছেন? এমন বিপর্যস্ত দল কেন জানি আগামী দিনের বাংলাদেশের ক্রিকেটের শঙ্কার পূর্বাভাসটাই দিয়ে গেলো বলে মনে হয়।

ছবিঃ ইএসপিএন