তৃতীয় দিনে বিকেলে কেমন থাকবে উইকেট

আহসান শামীম

ওয়েষ্ট উইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ জয় করতে ঢাকায় তৈরি হয়েছে টার্নিং উইকেট।টস ভাগ্যটা টেষ্ট জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ছিল।বাংলাদেশের অধিনায়ক সেই ভাগ্য জয় করে ব্যাটিং এর সিদ্ধান্তে সময় নিলেন না। অফ স্ট্যাপের বল খেলতে গিয়ে সৌম্য প্রথম সেশনের পানি পান বিরতির আগের ওভারেই টোকা দিয়ে উইকেট উপহার দিলেন ওয়েষ্ট উইন্ডিজকে।সৌম্যের চট্রগ্রাম টেষ্টের আউট হওয়ার রিপ্লেটাই ভেসে এলো।এরপর মধ্যাহ্ন ভোজনের আগের ওভারে মুমিনুলও একই রকম বলে নিজের স্বভাব সুলভ খেলার বাইরে গিয়ে বল উড়িয়ে নিজের উইকেটের বির্সজন দিয়ে আসেন।

অভিষিক্ত সাদমান ইসলামের সাথে ভালোই খেলছিলেন মোহাম্মদ মিঠুন। জুটি গড়েছিলেন ৬৪ রানের। ৫৭তম ওভারে বোলিংয়ে এসে নিজের প্রথম বলেই মিঠুনকে বোল্ড করে সাজঘরে পাঠান ক্যারিবিয়ান স্পিনার দেবেন্দ্র বিশু।এই নিয়ে টানা তৃতীয় বার বিশুর নিষ্ঠুর শিকার মিঠুন।তামিম ইকবাল, জাভেদ ওমর বেলিম এবং হান্নান সরকারের পর চতুর্থ বাংলাদেশী ওপেনার হিসেবে অভিষেক টেস্ট ইনিংসে অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন সাদমান ইসলাম। ১৪৭ বলে টেস্ট মেজাজে ব্যাট করে এই মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি।অবশ্য অর্ধশতকের পর বেশীক্ষণ টিকতে পারেননি সাদমান।ক্যারিবিয়ান স্পিনার দেবেন্দ্র বিশুর ৫৯তম ওভারের পঞ্চম বলে এলবিডব্লিউয়ের শিকার শেষ হয় তাঁর ৭৬ রানের ইনিংসের।এরপর মুশফিকও ব্যাট হাতে ব্যার্থ হয়ে সাজঘরে ফিরে গেলে, বিপর্যস্ত বাংলাদেশকে পথ দেখাচ্ছেন সাকিব, মাহমুদুল্লাহ জুটি।প্রথম দিনএই জুটির কারনে দিন শেষে স্বস্তিতে বাংলাদেশ ২৫৯/৫।উইকেটের কথা বিবেচনা করে বাংলাদেশ কোন পেসার ছাড়াই ঢাকা টেষ্ট খেলতে নেমে নতুন ইতিহাস রচনা করলো।

প্রথম দিন শেষে অভিষিক্ত সাদমান গনমাধ্যমের কাছে জানান,”দলের পরিকল্পনায় নির্দিষ্ট কোন লক্ষ্যমাত্রা নেই,ব্যাটসম্যানদের উপর তাদের দৃঢ় বিশ্বাস আছে। পরিকল্পনায় শুধু ব্যাটসম্যানদের লম্বা ইনিংসের উপরই নির্ভর করে আছে বাংলাদেশ।” অন্যদিকে, উইন্ডিজ স্পিনার দেবেন্দ্র বিশু ঢাকা টেস্টের উইকেটকে ব্যাটিং সহায়ক উইকেট আখ্যা দিচ্ছেন। উইকেটে টার্ন থাকলেও সেটা ব্যাটিং কঠিন করে তোলার মত নয়।বিশুর  ধারনা , “উইকেট টেস্টের প্রথম তিন দিন ভাঙ্গবে না। ব্যাটসম্যানদের পক্ষে কথা বলবে। তৃতীয় দিন বিকেল বেলা থেকে কেমন আচরণ করে সেটাই দেখার বিষয়।”

ছবিঃ ইএসপিএন