নতুন আইপ্যাড প্রো

সাইফ তনয় (টেক ব্লগার)

যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত ইভেন্টে নিজেদের আইপ্যাড প্রো সিরিজ বিস্তৃত করেছে মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপল। অ্যাপল জানিয়েছে আজ পর্যন্ত ৪০ কোটির বেশি আইপ্যাড বিক্রি হয়েছে। প্রিমিয়াম এই ট্যাবলেটগুলো এবার দু’ টি আকারে আনা হয়েছে আর পাতলা বেজেল ও ফেস আইডিসহ উন্মুক্ত হলো নতুন আইপ্যাড প্রোতে। লিকুইড রেটিনা ডিসপ্লেসহ ১১ ইঞ্চি ও ১২.৯ ইঞ্চি ডিসপ্লে সাইজে দুটি আইপ্যাড প্রো উন্মুক্ত হয়েছে। আইফোন টেনআর ফোনের ডিসপ্লেতে একই টেকনোলজির ডিসপ্লে ব্যবহার হয়েছিল। তবে নতুন এই স্ক্রিনে কোনো হোম বাটন নেই। হোম বাটন না থাকলেও এতে রয়েছে আইফোন ১০এস এবং ১০এস ম্যাক্স অ্যাক্টিভেশন মোড। যার মাধ্যমে হোম বাটন স্পর্শ না করেই আপনি স্ক্রিনে স্ক্রল করতে পারবেন। চলতি বছর অ্যাপল নতুন প্রজন্মের আইওএস অপারেটিং সিস্টেম চালিত যতগুলো ডিভাইস বাজারে এনেছে, তার সবগুলোতেই নতুন প্রজন্মের প্রসেসরও যুক্ত করা হয়েছে। নতুন আইপ্যাড প্রো’র ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। নতুন এই ট্যাবলেটগুলোতে ব্যবহার করা হয়েছে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে শক্তিশালী এ১২এক্স বায়োনিক প্রসেসর। এছাড়াও এই প্রথম আইপ্যাড প্রো-তে যোগ হয়েছে ফেস আইডি। একই সাথে থাকছে অ্যানিমজি। আইপ্যাড প্রোতে কানেক্টিভিটির জন্য থাকবে ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট। যা দ্বিতীয় প্রজন্মের ৩.১ ইউএসবি সমর্থন করে। এছাড়া ইউএসবি-সি চার্জ সংরক্ষণেও কাজ করবে। ক্যামেরা, ও বাদ্য.যন্ত্র থেকে হাই-ব্যান্ডউইথ ডাটা ট্রান্সফার, ৫কে ডিসপ্লে প্রদর্শন করতে এর জুড়ি নেই। এছাড়া আইপ্যাড প্রো’র ইউএসবি-সি দিয়ে আইফোন ও চার্জ করা যাবে। নতুন এই ট্যাবলেটে ছবি তোলার জন্য আছে ১২ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা। সাথে আছে ট্রু টোন এলইডি ফ্ল্যাশ। এই ক্যামেরায় ৬০ এফপিএস এ ৪কে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। অ্যাপলের দাবি, নতুন আইপ্যাড প্রো ট্যাবলেটে ১০ ঘণ্টা ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। আইপ্যাড প্রোতে ৬৪গিগাবাইট, ২৫৬গিগাবাইট, ২৫৬গিগাবাইট, ৫১২গিগাবাইট ও ১টিবি ফ্ল্যাশ স্টোরেজ। আইওএস১২ নতুন প্রজন্মের আইপ্যাড প্রো’তে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। একসঙ্গে একাধিক এপস চালানো, শর্টকাট তৈরি, ছবি ও ভিডিও এডিটিং, ফাইল ম্যানেজমেন্ট কিংবা র’ ফুটেজ বা ছবি খুব সহজে এডিট করতে আইওএস১২ এর জুড়ি নেই। একই সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দ্রুত ছবি, ফাইল, ও অডিও-ভিডিও শেয়ারিংয়ের কাজ ও করা যায় এর মাধ্যমে।
নতুন আইপ্যাড প্রো’র দুটি সংস্করণের সঙ্গেই থাকছে একটি নতুন অ্যাপল পেনসিল। তবে পূর্ববর্তী অ্যাপল পেনসিলটি বিদ্যুতের মাধ্যমে চার্জ করতে হলেও নতুন ট্যাবলেটগুলোর অ্যাপল পেনসিল ওয়্যারলেসভাবে চার্জ করা সম্ভব হবে। চার্জিং এর জন্য এটিকে ইউএসবি-সি এর সঙ্গে যুক্ত করতে হবে না। নতুন প্রজন্মের এই পেন্সিল খুব সহজেই কাঙ্খিত অ্যাপে কমান্ড দিতে পারবে। নতুন আইপ্যাড-প্রো’র স্মার্ট কিবোর্ড ডিভাইসটিতে এনেছে নতুন মাত্রা।

ছবিঃ গুগল