নতুন কোচের বৃত্তান্ত

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীম

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুকের সঙ্গে বিসিবি সভাপতি বসেছিলে। বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডর বিপক্ষে তামিমের থ্রো মুশফিক অনর্থক ধরতে গিয়েছিলেন মুশফিক। আর তাতেই উইলিয়ামসকে রান আউট করার সুযোগ হাতছাড়া হয়ে কপালে জুটেছিলো সেই ম্যাচে পরাজয়। মুস্তাফিজের বলে ভারতের বিপক্ষে রহিত শর্মার সহজ ক্যাচ হাতছাড়া করেন তামিম।রহিত শর্মাকে ১ রানে আউট করার সুযোগ হাতছাড়া পর শত রান করে তিনি।সেই ম্যাচেও হারে নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় বাংলাদেশকে। এমনটা না-হলে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের আবস্থান অন্যরকম হতেই পারতো। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খারাপ ফিল্ডিং করেও খেসারত দিয়েছে বাংলাদেশ।বিশ্বকাপ শেষে বোলিং কোচ কোর্টিন ওয়ালশের বিদায় ইংল্যান্ডের মাঠ থেকেই।এরপর একে একে দলের প্রধান কোচ স্টিভ রোডর্স সহ দলের অনেক কোচিং স্টাফকেই বিদায় নিতে হয়েছে।

দলের ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুককে বিদায় না করে জানতে চাওয়া হয়েছিলো বিশ্বকাপে দলের বাজে ফিল্ডিংয়ের কারণগুলো সম্পর্কে।  কুকের সোজাসাপ্টা উত্তর ছিল, ‘বাংলাদেশের জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের ফিল্ডিং এর বেসিক জ্ঞানই নেই।’ কথার যৌক্তিকতা বুঝেছেন বিসিবি বস। তাই তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, অনুর্ধ ১৯ দল থেকে খেলোয়াড়দের ফিল্ডিংয়ের বেসিক জ্ঞান দেওয়ার কার্যক্রম শুরু করার। কুক সরাসরি জানিয়েও দিয়েছেলেন জাতীয় দলকে বেসিক ফিল্ডিং শেখানো তার পক্ষে সম্ভব নয়।বাংলাদেশ দলের ফিল্ডিং কোচ হিসাবেই তিনি থাকছেন, থাকবেন ব্যাটিং কোচ ম্যাকেন্জি আর অ্যানালিস্ট। বাকি সব বিদায়।

জাতীয় দলের নতুন প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর  প্রধান কোচের দায়িত্ব পাওয়ার পর জানান, ঘরোয়া ক্রিকেটের ওপর বেশি নজর রাখতে চান তিনি।ডমিঙ্গোর এমন বক্তব্য রোমাঞ্চ তৈরি করেছে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের মনে। নবনিযুক্ত কোচ রাসেল ডমিঙ্গো কাজ করবেন তারই স্বদেশী নেইল ম্যাকেঞ্জি, চার্লস ল্যাঙ্গেভেল্ট আর রায়ান কুকের সঙ্গে। সঙ্গী পাবেন কিউই স্পিন কোচ ভেট্রোরকে ১০০ দিনের জন্য।পাঁচ জন মিলে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন বলে প্রত্যাশা ডমিঙ্গোর।অবশ্য সাকিব, তামিম, মুশফিকদের মন মানসিকতা বুঝতে কিছুটা সময় লাগবে বলেই ডমিঙ্গো মনে করছেন।

ডোমিঙ্গর সাথে চুক্তি হবে ২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত।তার আগে তাঁকে ২০২০ টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের চ্যালেন্জ নিতে হবে।অবশ্য সেই চ্যালেন্জের পাশাপাশি একাদশ গঠনে বিসিবি প্রধানের হস্তক্ষেপ আর মাশরাফি বিহীন বাংলাদেশের ড্রেসিং রুম সামলানোটাও কম চ্যালেন্জের হবে বলে মনে হয় না।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নতুন হেড মাষ্টার ডমিঙ্গো, ২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার দায়িত্ব ছাড়েন । দক্ষিণ আফ্রিকার বাইরে কোনো দল নিয়ে কাজ করার তেমন কোন অভিজ্ঞতা নেই তাঁর ।সেই হিসেবে বাংলাদেশই হতে যাচ্ছে নিজ মহাদেশের বাইরের কোনো দল নিয়ে কাজ করার প্রথম অভিজ্ঞতা।২০১১ বিশ্বকাপের পর জয়ী ভারতকে ফেলে নিজ দেশ দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ হন গ্যারি কারস্টেন।কারস্টেনের সহকারী হিসেবে নিয়োগ পান ডমিঙ্গোকে।এক বছরের মাথায় টি-টোয়েন্টি দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব পেয়ে যান ডমিঙ্গো। ২০১৩ সালে গ্যারি কারস্টেন প্রধান কোচের দায়িত্ব ছাড়লে তিন সংস্করণেই প্রধান কোচের দায়িত্ব পান ডমিঙ্গো।

ডমিঙ্গোর অধীনে ১৩ টেস্ট সিরিজের ৮ টেষ্ট জয়ী হয়ে টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ের সাত থেকে দুইয়ে উঠে আসে দক্ষিণ আফ্রিকা। ডমিঙ্গোর সময়ে ২২ ওয়ানডে সিরিজের ১৪টা জয়ী হয়ে ওয়ানডেতে শীর্ষ দল হিসেবে জায়গা করে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। টি-টোয়েন্টিতে ৪২ ম্যাচের মধ্যে ২৩ জয় এসেছে তাঁর সময়ে। ডমিঙ্গোর অধীনে ২০১৫ বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল খেলে দক্ষিণ আফ্রিকা।

তার পুরো নাম রাসেল ক্রেইগ ডমিঙ্গো। ১৯৭৪ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার পোর্ট এলিজাবেথে জন্ম। ক্রিকেটার হিসেবে ক্যারিয়ারে তেমন কিছুই করতে পারেননি। দ্বিতীয় সারির লিগ পর্যন্তই খেলার অভিজ্ঞতা। মাত্র ২০ বছর বয়সেই ইতি টানেন খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ারের। খেলা ছেড়ে স্পোর্টস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ও  মার্কেটিংয়ের ওপর ডিগ্রি অর্জন করেন। মাত্র ২৫ বছর বয়সেই দক্ষিণ আফ্রিকার ইস্টার্ন প্রভিন্স যুব দলের কোচের দায়িত্ব পান তিনি। ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অনূর্ধ্ব-১৩, অনূর্ধ্ব-১৯ , বি দল ও এ দলের প্রধান কোচের দায়িত্বেও।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে প্রতি মাসে আয়কর বাদে প্রায় ১৫ হাজার ডলার পাবেন ডমিঙ্গো।আয়করসহ প্রায় ১৮ হাজার ডলার । বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ১৫ লাখ ২১ হাজার ৭৯২ টাকা।অবশ্য কোচের দৌড়ে সবথেকে এগিয়ে ছিলেন নিউজিল্যান্ডের হাই প্রোফাইল কোচ মাইক হেসন।বিসিবির কাছে বেতন ৩০ হাজার ডলার দাবি করেন তিনি।গ্যারি কারস্টেন বেতন দাবি করেছিলেন ৫০ হাজার ডলার।হাথুরাসিং বেতন হিসাবে পেতেন ২২ হাজার ডলার। সেদিক থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে হেড মাষ্টার ডামিঙ্গোকে বেশ অল্প মূল্যেই পেয়েছে বাংলাদেশ।

ছবিঃ গুগল

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]