নিউজিল্যান্ডে ধোলাইঃ বিপর্যস্ত বাংলাদেশ

আহসান শামীমঃ টাইগারদের ধবলধোলাই নিউজিল্যান্ডর মাঠে কিউইদের কাছে । প্রধান কোচ হাতুরাসিংহের হাতুড়ির নিচে বদলে যাওয়া বাংলাদেশ শিবিরে বাজছে করুণ সুর। অভিযোগের আঙ্গুল দল নির্বাচকদের দিকে । প্রশ্ন দ্বি স্তরের নির্বাচন কমিটি নিয়ে । ওয়েষ্ট ইন্ডিজের পথে কি চলছে বাংলার টাইগার দলের টিম ম্যানেজমেন্ট । দল গঠন নিয়ে যে বিতর্কের জন্ম সে বিতর্কের ভিত্তি কতটা মজবুত ছিল নিউজিল্যান্ডর মাঠে বাঘের অসহয় আত্মসমপর্ণ যেন সেটাই বলে দিয়ে গেল । তিন ওয়ানডে , টি টুয়েন্টি এমন কি টেষ্ট জয়ের কাছে এসেও এই ধারাবাহিক পরাজয় সহজে মানতে পারছেন না দেশের ক্রিকেট পাগল মানুষ । কোড আব কন্ডাক্টের কারনে মুখ খুলছেন না কেউ তবে দলের ভিতরে যে রক্তক্ষরণ হচ্ছে তা বন্ধ করাটা বেশ কঠিন মনে হচ্ছে।  ১৫০ ওভার উইকেট কিপারের দায়িত্ব পালনের পর ইমরুল কায়েসকে দিয়ে ইনিংস শুরু । দ্বিতীয় টেষ্টে অলরাউন্ডার মোসাদ্দেকের  মত খেলোয়াড়কে দলের বাইরে রেখে শান্তর টেষ্ট অভিষেক কতটা যৌক্তিক ছিল উত্তর দেওয়ার প্রয়োজনীয়তা কেউ অনুভব করবেন কিনা জানা নেই । হয়তো এসব প্রশ্ন হারিয়ে যাবে খেলোয়াড়দের কিছু ব্যাক্তিগত অর্জনের গল্পের মাঝে । ২০১৩ থেকে ২০১৬ প্রচলিত কথা নিউজিল্যান্ড কন্ডিশনে এক সাউথ আফ্রিকা ছাড়া কোন দলই ভাল ফল করতে পারেনি এতে কি টাইগার দলের ব্যার্থতা ঢেকে দেওয়া যাবে ?

bd vs nz-23-2017 (1)ওয়েলিংটন টেস্টে পরাজয়ের পর টাইগারদের প্রতি ক্রিকেট প্রেমীদের প্রত্যাশা ছিল সিরিজের শেষ টেস্টে ঘুরে দাঁড়াবে টাইগাররা। কিন্তু শেষ টেস্টেও প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি সাদা পোষাকের বাংলাদেশ দল। প্রথম টেস্টে লড়াই করে হারার পর দ্বিতীয় টেস্টের চতুর্থ দিনই হার মানতে হয়েছে তামিম ইকবালের দলকে। গণমাধ্যমের মাধ্যমে এজন্য দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন টেষ্ট দলের নতুন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। অধিনায়ক নিজে আর দলের সিনিয়র খেলোয়াড়দের ব্যার্থতার দায়ভার নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন তামিম। অধিনায়ক তামিম বলেন ,”খারাপ দিন মোটই না। গোটা সফরে আমরা যা করেছি এটাও তার আরেকটা পুনরাবৃত্তি।আমাদের আবার একটি সুন্দর মুহূর্ত ছিল যার শেষটা আমরা ভালো করতে পারিনি। সব সময় আমরা একটা ভালো পরিস্থিতিতে আসি। সেখান থেকে হেরে যাই।’

ওয়েলিংটন থেকে ক্রাইস্টচার্চ, ভেন্যু ভিন্ন হলেও টাইগারের হারের ধরন প্রায় একই। প্রথম টেস্টের মতই চার্চ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ধ্বস নামায় চতুর্থ দিনে ১০৯ রানের লক্ষ্য খুব কঠিন মনে হয়নি নিউজিল্যান্ডের জন্য। বাংলাদেশ দল সীমিত ওভারে ক্রিকেট ও টেস্ট সিরিজে নিজেদের সামর্থ্যর প্রমান রাখলেও সেটার ধারাবাহিকতার কমতি ছিল। বলে মনে করেন কিউই অধিনায়ক উইলিয়ামসন।

 টেস্টে বাংলাদেশের দুর্বলতাগুলো আরেকবার চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিল কিউইরা। অথচ টেস্ট সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ হওয়া বাংলাদেশের সামনে দারুন এক সুযোগ ছিল র‍্যাঙ্কিংয়ে আট নম্বরে উঠে আসার।কিউইদের বিপক্ষে একটা টেস্টে জয় পেলেই প্রথমবারের মত অষ্টম অবস্থানে থাকা উইন্ডিজদের ছাড়িয়ে যেতে পারতো বাংলাদেশ।হোয়াইটওয়াশ হয়ে বরং আরও তিন রেটিং পয়েন্ট খুইয়ে বসেছে বাংলাদেশ দল। আট নম্বরে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডীজের বর্তমান রেটিং পয়েন্ট ৬৯। বাংলাদেশের তিন পয়েন্ট কমে বর্তমান রেটিং পয়েন্ট ৬২ তে নেমে এসেছে।  বাংলাদেশ সিরিজ জিতে নিয়ে পাকিস্তানকে টপকে র‍্যাঙ্কিংয়ে ৫ নম্বরে উঠে এসেছে উইলিয়ামসন বাহিনী। অন্যদিকে ওয়ানডেতে অষ্টেলিয়ার বিপক্ষে পাকিস্তানের ১টা জয় আর অন্যগুলোর পরাজয়ের ব্যাবধান বেশি হওয়াতে বাংলাদেশের ওয়ানডে রেটিং আপাতত ঠিক থাকলেও টাইগার দলের বর্তমান অবস্থান শংঙ্কায় নিমজ্জিত ।