পাওয়া গেলো মনরোর সেই নগ্ন দৃশ্য

মেরিলিন মনরো মানেই রহস্যের ঘেরাটোপ, উত্তেজনাকর আরেকটি কোনো গল্পের শুরু অথবা শেষ। অনেকদিন পর আবারো তেমনটাই ঘটলো। খুঁজে পাওয়া গেলো মনরো অভিনীত ‘দ্য মিসফিট’ সিনেমার কেটে বাদ দেয়া নগ্ন দৃশ্যের হারানো ফুটেজ। আর তাই নিয়ে মহা শোরগোল।

এই ছবি মুক্তি পেয়েছিলো এখন থেকে ৫৭ বছর আগে। জন হিউস্টোনের পরিচালনায় কাহিনি ও চিত্রনাট্য লিলেছিলেন মনরোর একদা স্বামী প্রখ্যাত সাহিত্যিক আর্থার মিলার। তখন মনরো বিশ্বজুড়ে সিনেমার পর্দায় যৌনতার আইকনে পরিণত হয়েছেন। সিনেমাটির চূড়ান্ত প্রিন্ট থেকে ছেঁটে বাদ দেয়া হয়েছিলো সেই দৃশ্য। কিন্তু মনরোর জীবনী গ্রন্থের লেখক আর্থার চার্লস ক্যাসিলিও তার বই ‘মেরিলিন মনরো, দ্য প্রাইভেট লাইফ অফ এ পাবলিক আইকন’ লেখার সময় খনন করতে গিয়ে জেনে যান ছবির প্রযোজক ফ্রাংক টেইলারের ছেলে কার্টিস টেইলারের কাছে সেই কাটা পড়া দৃশ্য সযত্নে রক্ষিত আছে।১৯৯৯ সালে পিতার মৃত্যুর পর থেকে বাড়ির একটি ক্যাবিনেটে সেই ফুটেজ তালাবন্ধ করে রেখেছেন ফ্রাংক।

কী আছে সেই দৃশ্যে? সেখানে আরেক প্রখ্যাত অভিনেতা ক্লার্ক গেবলের সঙ্গে একটি দৃশ্যে অভিনয় করতে করতে নিজের শরীরে জড়িয়ে রাখা বিছানার চাদরটি ফেলে দেন মনরো। আর সম্ভবত একজন মার্কিন অভিনেত্রীর সেটাই সর্ব প্রথম নগ্ন দৃশ্য ক্যামেরাবন্দী হওয়া। পরিচালক অবশ্য তখন যুক্তি হিসেবে বলেছিলেন দৃশ্যটির কোনো প্রয়োজন নেই তার ছবিতে।

উল্লেখ্য যে, ‘দ্য মিসফিটস’ ছিলো মেরিলিন মনরোর জীবনের শেষ সিনেমা।এরপর ছবিটি মুক্তি পাওয়ার এক বছর পর মাত্র ৩৬ বছর বয়সে সম্ভবত নিজের হাতেই জীবনপ্রদীপ নিভিয়ে দেন এই আলোচিত অভিনেত্রী।

বিনোদন ডেস্ক

তথ্যসূত্রঃ টাইমস অফ ইন্ডিয়া

ছবিঃ গুগল