প্যান্টি ও বিউটি অফ লিভিং টুয়াইস

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বেসিক ইনস্টিংক্ট ছবিতে পরিচালকের কথায় পরনের প্যান্টি খুলে চেয়ারে বসে গোয়েন্দাদের প্রশ্নের উত্তর দেয়ার শটটা দেন প্রখ্যাত অভিনেত্রী শ্যারন স্টোন। পরিচালক তাকে বলেছিলেন, সাদা প্যান্টিতে আলোর এক ধরণের প্রতিফলন হচ্ছে যাতে শটের সমস্যা হচ্ছে। শ্যারন কিছু না-ভেবেই প্রায় নগ্ন হয়েই পায়ের ওপর পা তুলে অভিনয় করে গিয়েছিলেন সেদিন।আর সেখানেই তৈরি হয়ে গিয়েছিলো বেসিক ইনস্টিংক্টের সেই আগুনে দৃশ্য।

নিজের আত্মকাহিনী ‘বিউটি অফ লিভিং টুয়াইস’ বইতে এভাবেই পর্দায় ঝড় তোলা সেই ছবি বেসিক ইনস্টিংক্টে অভিনয় করার অভিজ্ঞতার বিবরণ দিয়েছেন তিনি। তার এই কথায় ঝড় উঠেছে হলিউডে।

১৯৯২ সালে মুক্তি পাওয়া এই ছবি শ্যারন স্টোনকে রাতারাতি খ্যাতি এনে দিলেও তার ভাষায়,  সেইসব দৃশ্যে অভিনয় কখনো কখনো ছিলো ভয়ংকর দুঃস্বপ্নের মতো।ছবির সেই উত্তাপ ছড়ানো দৃশ্যটির শুটিং হয়ে যাওয়ার পর পরিচালিক এবং তার আইনজীবীদের উপস্থিতিতে শ্যারন স্টোন দৃশ্যটি দেখেছিলেন। তিনি অবশ্য তার নিজের আইনজীবীর সঙ্গে আলোচনা করে এই দৃশ্যের ওপর কোনো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেননি। পরে ভ্যানিটি ফেয়ার পত্রিকার সাংবাদিক প্রশ্ন করলে শ্যারন উত্তর দিয়েছিলেন,‘দৃশ্যটা দেখে মনে হয়েছে চিত্রনাট্যে এরকম দৃশ্যের প্রয়োজন ছিলো চরিত্রের প্রয়োজনেই।

কিন্তু নিজের জীবনের গল্প লিখতে গিয়ে বইতে যৌন নিগ্রহের কাহিনিও লিখেছেন গোল্ডেন গ্লোব ও অ্যামি পুরস্কার পাওয়া এই অভিনেত্রী। জানিয়েছেন কোনো এক পরিচালক পর্দায় শরীরী রসায়ন আরও ভালো ভাবে কাজ করানোর জন্য তাকে কেন্দ্রিয় পুরুষ অভিনেতার সঙ্গে বিছানায় যেতে নির্দেশ দিয়েছিলেন।তবে শ্যারন স্টোন অবশ্য সেই পরিচালকের নাম ফাঁস করেননি বইতে।

শ্যারন স্টোনের এই বই নিয়ে জল্পনা চলছে অনেকদিন ধরেই। এ মাসের শেষে প্রকাশ পাবে বইটি। ৬২ তে পা রাখা শ্যারন তার শৈশব, বেড়ে ওঠা সিনেমায় অভিনয় আর জীবনের গল্প লিখেছেন সেখানে।

বেসিক ইনস্টিংক্ট ছবিতে সেই যৌন আবেদনময় চরিত্রে অভিনয় করার আগে শ্যারন স্টোন আরও ১২টি ছবিতে অভিনয় করেও হালে পানি পাচ্ছিলেন না। তার লাইমলাইটে আসার স্বপ্নও সফল হচ্ছিলো না। এই সিনেমাটি তাকে সেই কাঙ্ক্ষিত লখ্যে পৌঁছে দেয়। বলা যায় উত্তাপ ছড়ানো দৃশ্যে অভিনয় করে রীতিমত ঝড় তুলেছিলেন এই অভিনেত্রী। ছবির মূখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন হলিউডের নামী অভিনেতা মাইকেল ডগলাস। শ্যারন স্টোনকে এই ছবিতে নেয়ার আগে আরও ১২ জন নায়িকা কাজ করার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছিলেন। শ্যারন স্টোনের ভাগ্যদেবী সেদিন সহায় হয়েছিলো।

প্রাণের বাংলা ডেস্ক
তথ্যসূত্রঃ সিএনএন
ছবিঃ গুগল


প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না, তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]


Facebook Comments Box