প্রথম দিনে বিবর্ণ বাংলাদেশ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীম

গোলাপী বলে ঐতিহাসিক তকমা পাওয়া টেস্টে বিবর্ণ বাংলাদেশ ভারতে বিপক্ষে টসে জিতে আবারও প্রথমে ব্যাট করার ভুল সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের অধিনায়ক মুমিনুল। ভারতের পেসারদের বাউন্সারের সামনে বাংলাদেশের সংগ্রহ মাত্র ৩০.৩ ওভারে ১০৬/১০।ব্যাটিং ব্যার্থতার সেই পুরানো গল্পেরই বহিঃপ্রকাশ। দলের ১২ ব্যাটসম্যান মিলে করেছেন ৯২ রান, বাকি ১৪ রান এসেছে এক্সট্রা।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক উৎসাহ নিয়ে কলকাতা ইডেন গার্ডেনে উপস্থিত হন। ব্যস্ত শিডিউলে কলকাতায় গিয়ে টেস্ট ম্যাচ দেখার অন্যতম কারণ বাংলাদেশ ক্রিকেট দল উৎসাহ পাবে। গ্যালারিতে বসে তিনি যা দেখলেন সেটা রীতিমতো বিব্রত ও বিরক্তিকর। একে একে নীরবে আউট হয়ে যাচ্ছেন এক একজন ব্যাটসম্যান। এত উৎসাহ উদ্দীপনার ম্যাচে বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ে রীতিমতো হতাশ করছে।

বাংলাদেশের অল্প রানের জবাবে ব্যাটিং করতে নেমে শুরু থেকেই বোলারদের বিপক্ষে চড়াও হয়ে খেলা শুরু করেন ভারতের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও মায়াঙ্ক আগারওয়াল।পঞ্চম ওভারে আল আমিন হোসেনের বলে মেহেদি হাসান মিরাজের হাতে তালুবন্দি হয়ে ১৪ রান করে মায়াঙ্ক ফেরেন সাজঘরে। ভারতের ইনিংসের ১২তম ওভারে আবু জায়েদ রাহির বলে রোহিত ক্যাচ লুফে নিতে ব্যর্থ হন আল আমিন।অবশ্য জীবন পেয়েও রহিত শর্মা খুব বেশি দূর যেতে পারেননি। চা পান বিরতির পর এবাদত হোসেনের ওভারের পঞ্চম বলে লেগ বিফোর উইকেটের শিকার হয়ে ফিরে যান ২১ রানে রোহিত। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিপক্ষে রিভিউ নিয়েও লাভ হয়নি। দুই ওপেনারের বিদায়ের পর অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে ৯৪ রানের জুটি গড়েন চেতেশ্বর পূজারা। হাফ সেঞ্চুরির পর এবাদতের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফিরে যান পূজারা। শেষ পর্যন্ত ভারতের সংগ্রহ ১৭৪/৩।

ক্রিকেটে ‘কংকাশান সাব’ এর নিয়ম চালু করে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। গত অ্যাশেজ সিরিজে প্রথমবার এই নিয়মে খেলেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার মার্নাস ল্যাবুশানে। ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ মাথায় আঘাত পেলে ল্যাবুশানেকে নামায় অস্ট্রেলিয়া।

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী বদলি ক্রিকেটার হতে হবে ‘লাইক ফর লাইক’।মানে ব্যাটসম্যানের জন্য ব্যাটসম্যান, বোলারের জন্য বোলার। বাংলাদেশের স্কোয়াডে কোনো ব্যাটসম্যান না থাকায় অলরাউন্ডার মিরাজকে খেলার অনুমতি দেয়া হয়।যদিও ব্যাট হাতে মিরাজও ব্যার্থতার গন্ডি পার হতে পারেননি।

ইতিহাসের চতুর্থ বদলি ক্রিকেটার হিসেবে খেলছেন মিরাজ। চলতি বছর জ্যামাইকায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের ড্যারেন ব্রাভোর বদলি হিসেবে খেলেছেন জারমাইন ব্ল্যাকউড। রাঁচিতে দক্ষিণ আফ্রিকার ডিন এলগারের বদলি ছিলেন থিউনিস ডী ব্রুইন।

একই ইনিংসে মাথায় চোট পান নাঈম হাসানও। প্রথম ইনিংসে তিনি আউট হয়েছেন ১৯ রান করে। ইনিংস শেষে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানিয়েছে, নাঈমের বদলি হিসেবে তাইজুলকে নেয়া হয়েছে কনকাশন সাব হিসেবে।টেষ্ট ক্রিকেটে ইতিহাসে একই টেষ্টে দুই বদলি খেলোয়াড় এই প্রথম।টেষ্টে লিটনের বদলি মিরাজ ব্যাটিং ও উইকেট কিপিং ছাড়া বোলিং করতে পারবেন না।অবশ্য পেসার আলরাউন্ডার নাঈমের বদলি তাইজুল বল করতে পারবেন।

ভারতের বিপক্ষে মাথায় চোট পাওয়া লিটন দাস এবং নাঈম হাসানকে সিটি স্ক্যান করানো হয়েছে। সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে দুজনকেই নিবিড় পর্যবেক্ষণা রাখা হবে বলে জানিয়েছেন, কলকাতার উডল্যান্ড হাসপাতালের ইমার্জেন্সি এন্ড ক্রিটিক্যাল কেয়ার স্পেশালিস্ট সপ্তর্ষী বসু।

‘কালার ব্লাইন্ড’ বা বর্ণান্ধ হলে কিছু রঙ দেখতে অসুবিধা হয়, বা একেবারেই দেখা দেখে না। লিটন দেখতে পান না গোলাপি রঙ, গোলাপি বলও তিনি দেখতে পান না। ইডেন টেস্টের মাধ্যমেই গোলাপি বলে নিজেদের প্রথম ম্যাচ ভারত ও বাংলাদেশ ম্যাচের আগের রাতে ,লিটনের দৃষ্টি পরীক্ষা (ভিশন টেস্ট) করে নিশ্চিত হওয়া যায় বিষয়টা।এরপরই টিম ম্যানেজমেন্টের কপালে চিন্তার ভাঁজ, দলে পর্যাপ্ত খেলোয়াড় না থাকায় লিটনের বিকল্প ছিলো না বাংলাদেশ দলের কাছে।

ছবি: লেখক

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]