ফিঙ্গারমাউথিং

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সেলফি ছবি তোলা নিয়েও কতরকম উথালপাথাল যে চলে দুনিয়ায়! কিছুদিন আগেও মেয়েরা বাচ্চাদের মতো নিজেদের ঠোঁট বিশেষ ভঙ্গিতে ফুলিয়ে ছবি তুলতো। এর নাম দেয়া হয়েছিলো পাউট।এখন বাজারে এসেছে সেলফি’র নতুন ভঙ্গি যার নাম ‘ফিঙ্গারমাউথিং’। মানে, যে অ্যাঙ্গেলে হাতের আঙুল থাকবে মুখের ভিতরে বা ঠোঁটের কাছে। এবং, শর্ত মেনে দেখা যাবে সামনে থেকে মুখের প্রোফাইল। ফিঙ্গারমাউথিংয়ের অবশ্য একটা মজাদার পোশাকি নাম আছে। সেটাকে বলা হয় ‘টিরেক্সহ্যান্ডস’। মানে, টিরেক্স প্রজাতির ডাইনোসররা যেমন মুখের সামনে হাতদুটোকে তুলে রেখে হাঁটত, সেটাই আর কী! এই কায়দাটাকে জনপ্রিয় করেছেন কিম কার্দাশিয়ান এবং আরও অনেক বিদেশি সেলেব্রিটিরা! তার পর ধীরে ধীরে তা জনপ্রিয় হচ্ছে এদেশেও! এখন ইনস্টাগ্রামে চলছে এই স্টাইলে সেলফি দেয়ার ঝড়।

একটা প্রশ্ন উঠতে পারে- সেলফি তো মুহূর্তবিলাস, তার আবার সাত-সতেরো নিয়ম-কানুন কী? হ্যাঁ, নিয়ম থাকে বটে ছবি তোলার, যেমন কোন অ্যাঙ্গেলে ছবি তোলা হবে, ফ্রেমে কতটুকু ধরা দেবে, আলোটা নিতে হবে কী ভাবে- এই সব আর কী! এখন সেলফির সব কায়দা পুরনো হয়ে যাওয়ার সূত্র ধরেই একঘেয়ে হয়েছে ‘পাউট’। একঘেয়ে হয়েছে মুখটা একদিকে সামান্য একটু বেঁকিয়ে সেলফি তোলাটাও। এখন মেয়েরা মনে করছেন মুখে আঙুল ঢুকিয়ে দিয়ে ছবি তৈরি করছে এক ধরণের যৌন উত্তেজনা।

ছবি: গুগল


প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না, তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]


https://www.facebook.com/aquagadget
Facebook Comments Box