ব্রাজিলকে কি রুখতে পারবে বেলজিয়াম

আহসান শামীমঃ সর্বশেষ, ৫৫ বছর আগে ব্রাজিলকে ৫-১ গোলে হারিয়েছিল বেলজিয়াম। ১৯৬৩ সালে এক প্রীতি ম্যাচে জিতো-গিলমারের ব্রাজিল পরাস্ত হয়েছিলো বেলজিয়ামের কাছে। এরপর দীর্ঘ ৫৫ বছরে তিনবারের মোকাবেলায় একবারও শেষ হাসি হাসতে পারেনি বেলজিয়াম। ১৯৬৫ সালে দ্বিতীয় মোকাবেলায় পেলের হ্যাটট্রিকে ৫-০ ব্যবধানে বেলজিয়ামকে হারিয়েছিল ব্রাজিল। এরপর ১৯৮৮ সালে জিওভান্নির জোড়া গোলে বেলজিয়ামকে ২-১ ব্যবধানে হারিয়েছিল সেলেসাওরা। ২০০২ সালে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে রিভালদো এবং রোনালদোর জোড়া গোলে ২-০ ব্যবধানে জয় পেয়েছিল ’০২ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল।
সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে শুক্রবার ব্রাজিল ও বেলজিয়াম শেষ আটে দাঁড়িয়েছে মুখোমুখি।ম্যাচের আগেই, বেলজিয়াম কোচ রবার্তো মার্টিনেজ জানান, ‘যখন আপনি ব্রাজিলের বিপক্ষে খেলবেন, আপনার বুঝতে হবে তারা বিশ্বকাপের সেরা দল। আমাদেরও এটা অনুধাবন করতে হবে, এই ধরণের দলের বিপক্ষে কিভাবে খেলা উচিত। এই দলে নেইমার, কৌতিনহোর মতো খেলোয়াড় আছে, যারা এক সেকেন্ডেই ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিতে পারে।’
বেলজিয়াম বিশ্বকাপের ইতিহাসে তৃতীয় বারের মত কোয়ার্টার ফাইনালে।নিজেদের শেষ ২৩ ম্যাচে ১৮ জয় ৫ ড্র অপরাজিত বেলিজিয়াম শুক্রবার কোয়ার্টার ফাইনালে হট ফেভারিট ব্রাজিলের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে। ধারনা করা হচ্ছে, ম্যাচটা ফাইনালের আগে আরেক ফাইনালের মতই হবে।
বর্তমান বিশ্বের সেরা ডিফেন্স বলা যায় ব্রাজিলের। দলে আছে দিয়াগো সিলভা, মার্সেলো মিরান্ডাদের মত ডিফেন্ডার। তাদের জন্য মার্কুইনহোসের মত তারকাকেও থাকতে হচ্ছে মাঠের বাইরে। আছে ক্যাসমিরো আর ফার্নান্দিনহোর মত ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার যারা ভরসা যোগাচ্ছে ডিফেন্ডারদের।দলের ব্যাক লাইন এতটা শক্তিশালী যা ভেদ করা প্রতিপক্ষের জন্য দূরূহ কাজ।ব্রাজিলের এলিসন এখনও সেরা গোলকিপার এর তালিকায়।
এমন ডিফেন্সের সামনে এবার পালা বেলজিয়ামের। যদিও বেলজিয়ামে আছে অনেক সেরা সেরা তারকারা। হ্যাজার্ড, ফেলাইনি, লুকাকু, ডি ব্রুইনদের নিয়ে গড়া বেলজিয়ামের আক্রমন ভাগ যথেষ্ট শক্তিশালী। এবার এই শক্তিশালী আক্রমনভাগ ব্রাজিলের শক্ত ডিফেন্সে কতটা ভীতি ছড়াতে পারে সেটাই দেখার বিষয়।ব্রাজিলের জন্য কোয়ার্টার ফাইনালের দুঃসংবাদ দুইটা হলুদ কার্ডের জন্য কাসেমিরোকে মাঠের বাইরে থাকতে হবে।কাসেমিরো পরিবর্তে বেলজিয়ামের বিপক্ষে ফার্নান্দিনহোকে মাঠে দেখা যেতে পারে।
নেইমারকে ঘিরে বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন ব্রাজিলের। সেই স্বপ্নটা উজ্জ্বল হয়েছে মেক্সিকোর বিপক্ষে শেষ ষোলোতে এই ফরোয়ার্ডের পারফরম্যান্সে। সাবেক বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড তার চেনা ছন্দে ফিরেছেন মেক্সিকোর বিপক্ষে আগের ম্যাচে, তার লক্ষ্যভেদেই ২-০ গোলে জেতা ম্যাচে ব্রাজিল এগিয়ে গিয়েছিল। ব্রাজিলিয়ান সংবাদমাধ্যম ‘গ্লোবো এস্পোর্তে’কে এই ফরোয়ার্ড সম্পর্কে বেলজিয়াম রাইটব্যাক বলেছেন, “আমি জানি না ওকে কীভাবে আটকাবো। ওকে নিয়ে আগে থেকে মোটেও কিছু বলা যায় না’
অবশ্য বেলজিয়াম দলের মিডফিল্ডার কেভিন ডি ব্রুয়েন জানালেন ভিন্ন কথা “টুর্নামেন্টে এখন যেসব দল টিকে আছে সবারই কোয়ালিটি রয়েছে। ব্রাজিলের কোয়ালিটি থাকলেও আমার কিছু যায় আসে না। আমি ৯০ মিনিটে তাদের বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে জিততে চাই।”

ছবিঃ ফক্স নিউজ