ভেষজ উপায়ে চুল হাইলাইট করুন

চুলের স্টাইলে বদল এনে সহজেই বদলে ফেলা যায় চেহারাও।তাই অনেকে চুল দিয়ে নানান ফ্যাশন করেন।এখন ফ্যাশন সচেতন ছেলে মেয়ে উভয়েই জানেন চুলের হাইলাইটের ব্যাপারটাও।অনেকেই চুল হাইলাইট করতে ভালবাসেন। তবে পার্লারে যেভাবে চুলের হাইলাইট করা হয় তাতে কেমিক্যালের মাত্রা অনেক বেশি থাকে এবং চুলের ক্ষতি হয়।মাথার ত্বকে চুলকানি, ফুসকুড়ি থেকে শুরু করে দেখা দেয় নানা রকম চর্মরোগ।তাই চাইলে আপনি প্রাকৃতিক উপায়ে ঘরে বসেই হাইলাইট করতে পারেন।আর এটা সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়ে করা হয় বলে চুলের ক্ষতিও হয় না। আসুন জেনে নেই কিভাবে ঘরে বসে প্রাকৃতিক উপায়ে চুল হাইলাইট করা যায়।কিছু সহজ ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করেই  চুলে আনা যায় চোখ ধাঁধানো চমৎকার হাইলাইট।

লেবুর রস: লেবু সবচেয়ে সস্তা। আর সহজেই হাতের কাছে পাওয়া যায়।দুর্দান্ত হাইলাইটের জন্য লেবুর রস খুবই উপযুক্ত। একটি কাঁচের পাত্রে লেবুর রসের সঙ্গে সমপরিমাণ পানি মিশিয়ে নিন। এবার চুলের গোছা আলাদা আলাদা করে ভাগ করে তাতে এই মিশ্রণ লাগিয়ে নিন । তারপর অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে চুলের গোছাগুলো মুড়ে রাখুন।এবার রোদে চুল দিয়ে বসে থাকুন খানিকক্ষণ। চুল শুকালে সামান্য উষ্ণ গরম পানিতে শ্যাম্পু করে নিবেন।এভাবে দু’য়েকবার করলেই দেখবেন,চুলে কেমন রং ধরেছে!

চায়ের লিকার: চুলকে কন্ডিশনিং করতে চায়ের লিকার যেভাবে কাজ করে তেমনি চুলকে হাইলাইট করার ক্ষেত্রেও চায়ের লিকার খুবই কার্যকর। তবে যে কোনও রকম চা দিয়ে নয় , এটি করতে ক্যামোমাইল টি ব্যাগ লাগবে।এই  টি ব্যাগ গরম পানিতে রাখুন, রং ছাড়তে শুরু করলে, ভাল করে গুলে নিন গরম পানির সঙ্গে। এইবার সেই পানি দিয়ে চুল ধুয়ে কিছুক্ষণ রোদে বসুন। বার তিনেক এভাবে করুন।সহজেই হালকা লালচে আভার হাইলাইট হয়ে যাবে।

অলিভ অয়েলের : চুলের ময়েশ্চারাইজার হিসেবে অনেকেই অলিভ অয়েল ব্যবহার করেন। চুলের ঘরোয়া হাইলাইটের জন্যও অলিভ অয়েল ব্যবহার করা যায়। চুলের যে যে অংশ হাইলাইট করতে চান সে অংশে ভাল করে অলিভ অয়েল মাখিয়ে রোদে বসে থাকুন। অলিভ অয়েল সূর্যের আলোর সঙ্গে রিঅ্যাকশনের মাধ্যমে চুলের রঙ পরিবর্তন করে ফেলে। এতে পছন্দ অনুযায়ী চুল হাইলাইট করা হয়ে যায়।

দারচিনি আর কন্ডিশনার :কয়েকটা দারচিনি মিক্সারে গুঁড়িয়ে নিন। তার পর কন্ডিশনারের সঙ্গে মেশান। রাতে ঘুমাবার আগে  ব্রাশ দিয়ে চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ভাল করে লাগিয়ে নিন এই প্যাক। তার পর মোটা দাঁড়ার চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ে চুলে খোঁপা করে রাখুন। শাওয়ার ক্যাপে মাথা ঢেকে শুয়ে পড়ুন। সকালে উঠে শ্যাম্পু করে ফেললেই চুলে ধরবে মনের মতো রং!

 ভিনিগার ও মধুর মিশ্রণ: এতে কিছু ঘরোয়া জিনিস, যা সহজেই কিনে আনা যায়। ১ কাপ মধু, ১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল, ১ টেবিল চামচ এলাচের গুঁড়োর সঙ্গে মিশিয়ে নিন ২ কাপ ভিনিগার। মিশ্রণটি ঘন করে বানান। এ বার আলাদা করে বেছে নিন কোন কোন চুলগুলিকে হাইলাইট করতে চাইছেন।রাতে ঘুমোনোর আগে  সেখানে এই প্যাক লাগিয়ে একটা শাওয়ার ক্যাপ পরে চুল ঢেকে শুয়ে পড়ুন। আর সকালে উঠে শ্যাম্পু করে নিন। সুন্দর হাইলাইট হয়ে যাবে চুল।

ছবি: গুগল