মুশফিকের রেকর্ড

আহসান শামীম

মিরপুরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় দিনটাও নিজেদের করে রাখলেন বাংলাদেশ টেষ্ট দলের খেলোয়াড়রা। সঙ্গে বোনাস হয়ে রইলো মুশফিকের নতুন রেকর্ড। মুশফিকুর রহীমের হার না মানা ২১৯ রান আর মুমিনুল হকের ১৬১ রানে ভর করে ৭ উইকেটে ৫২২ রানের পাহাড় গড়ে ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ।শেষ বিকালে ইনিংস ঘোষনা মানেই প্রতিপক্ষকে একটু বিপদেই ফেলা দেওয়া।জিম্বাবুয়ের  উদ্বোধনী জুটিতে বেশ দেখেশুনে খেলে মাসাকাদজা আর ব্রায়ান চারি,১৪.১ ওভারে মাত্র ২০ রান তোলেন তারা। ৭ রানে মাসাকাদজার সহজ ক্যাচটা আরিফুরের হাত ফসকে যায়।তাইজুল ইসলামের বলে স্লিপে মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে ধরা পরেন ৪৪ বলে ১৪ রানে জিম্বাবুইয়ান অধিনায়ক মাসাকাদজা।শেষ পর্যন্ত ২৫ রানে এক উইকেট হারিয়ে দিন শেষ করে জিম্বাবুয়ে।

মিরপুরে চলমান টেষ্ট ম্যাচে পঞ্চম ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতে নেমে ৫৮৯ মিনিট ব্যাটিং করেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিক।প্রথম বাংলাদেশী হিসাবে তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় দ্বিশতকও।২০০০ সাল থেকে দীর্ঘ সময় ধরে উইকেটে থাকার রেকর্ডটা ছিল আমিনুল ইসলাম বুলবুলের। অভিষেক টেস্টে ভারতের বিপক্ষে ৫৩৫ মিনিট উইকেটে ছিলেন বুলবুল। ২০১৩ সালে গল টেস্টে ৪৯৯ মিনিট ব্যাটিং করেছেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান আশরাফুল।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ টেষ্টের প্রথম দিনে ২৬ রানে তিন উইকেট পতনের পর মাঠে নেমেছিলেন মুশফিক। মুমিনুলের সাথে চতুর্থ উইকেট জুটিতে রেকর্ড জুটি গড়েন। মুমিনুল ১৬১ রানে আউট হলেও দিন শেষে ১১১ রানে অপরাজিত ছিলেন মুশফিকুর রহীম। আজ সেটাকে নিয়ে গেছেন ডাবল সেঞ্চুরীতে আর করেছেন দেশের হয়ে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ অপরাজিত ২১৯ রান।মুশফিকুর রহীমের আগে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ স্কোরার ছিল সাকিব আল হাসান। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১৭ সালে ২১৭ রান করেছিলেন সাকিব।২০১৫ সালে তামিম ইকবাল পাকিস্তানের বিপক্ষে ২০৬ রান করেছিলেন।২০১৩ সালে শ্রীলঙ্কা বিপক্ষে। একই টেষ্টে মুশফিক ২০০ ও আশরাফুল করেছিলেন ১৯০ রান।আর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চলতি টেষ্টে মুশফিক ছাড়াও মুমিনুল হক করেন ১৬১ রান।

আজই প্রথম উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানোর বিশ্বরেকর্ড গড়েন ডানহাতি ব্যাটসম্যান মুশফিক।এতদিন উইকেটরক্ষক হিসেবে টেস্টে একটা করে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানোদের তালিকায় মুশফিকের সঙ্গী ছিলেন সাঙ্গাকারা, ধোনি, অ্যান্ডি ফ্লাওয়ারদের মতো তারকা।এছাড়াও তালিকায় আরও সঙ্গী ছিলেন পাকিস্তানের সাবেক উইকেটরক্ষক ইমতিয়াজ আহমেদ, তাসলিম আরিফ, শ্রীলঙ্কার ব্র্যান্ডন কুরুপ্পু।আজ সবাইকে ছাড়িয়ে এই রেকর্ডের একমাত্র মালিক হলেন মুশফিক।

ছবিঃ ইএসপিএন