শাকিব+অপু+বুবলি=?

ঢাকার ছবি পাড়া অনেকদিন পর বেশ নড়েচড়েই বসেছিল। আলোচনা আর সমালোচনার ঘূর্ণী উঠেছিল বেশ জোরেসোরেই।পত্রিকার পাতা আর টিভি চ্যানেলের খবরের শিরোনামে ঢাকাই ছবির শীর্ষ নায়ক শাকিব খান আর অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। শাকিবের গোপন সংসারের খবর ফাঁস করে দিয়ে টিভির পর্দায় বোমা ফাটিয়েছিলেন অপু। আর তাতেই কাৎ শাকিবের সাম্রাজ্য। সমালোচনার ঝড় উঠেছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও।

কিন্তু তারপর? তারপর হাওয়া আচমকাই ঘুরে গেল। ঘটনার উত্তপ্ত আঁচ কমে এলো অনেকটাই। বলা যায় দুপক্ষের মধ্যে যুদ্ধ বিরতি ঘোষণা। কিন্তু জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটলো না। অনেকের কাছে প্রশ্ন একটাই, হঠাৎ কেন এই বিষ্ফোরণ ঘটেছিল আর হঠাৎই তা থমকে গেলো কেন? অপু বিশ্বাসের পরের কথাবর্তার সূত্র বলে দেয় ‘রংবাজ’ নামে একটি সিনেমারে কাস্টিংকে কেন্দ্র করেই শাকিবের সঙ্গে দ্বন্দ্বের সূত্রপাত। কারণ ওই সিনেমায় শবনম বুবলির অভিনয় করার বিষয়টাকে কেন্দ্র করে্ আবর্তিত হয়েছে অপুর সব অভিযোগ। তারপর যেন এক অদৃশ্য জাদুবলে গোটা ঘটনাটা চলে গেলো সবার চোখের আড়ালে। দুপক্ষ মিটিয়ে নিল তাদের কাজিয়া। তারপর সব মুখে কুলুপ আঁটা। তাহলে এরকম একটা বোমা ফাটালেন কেন অপু? আবার পিছিয়েই বা গেলেন কেন?

এর মধ্যেই রংবাজ ছবির শ্যুটিং শুরু হয়েছে। নায়িকার ভূমিকায় রয়েছেন সেই বুবলি।কিন্তু অপু এখন নীরব।সব কিছুই বেশ একটু রহস্যে মোড়ানো। সমালোচকরা বলছেন, তাহলে পুরো ঘটনাটাই কি তবে লাইম লাইটে থাকার জন্য সাজানো নাটক?নাকি যৌথ প্রযোজনার ছবি রংবাজকে হিট তালিকায় দাঁড় করানোর চেষ্টা? এসব অোলোচনা সমালোচনা নিয়েই এবার প্রাণের বাংলার প্রচ্ছদ আয়োজন। 


কিছুদিন আগেও মানুষ জানতো না শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস বিবাহিত দম্পতি। মিডিয়ার কল্যাণে আজ এই খবর সবার মুখে মুখে। গত ১০ এপ্রিল আচমকাই অপু কোলে শিশু সন্তানকে নিয়ে একটি বেসরকারি একটি টেলিভিশনের পর্দায় লাইভ  সাক্ষাৎকারে হাজির হন। সেখানে তিনি নিজেকে শাকিবের স্ত্রী হিসেবে দাবি করে বোমা ফাটালেন। কোলের শিশুটিও শাকিবেরই সন্তান বলে পরিচয় করিয়ে দিলেন। গেলো দু’সপ্তাহ ধরে মিডিয়া সরগরম ছিলো শাকিব আর অপুকে নিয়েই।সঙ্গে নায়িকা শবনম বুবলির নামও উঠে এসেছে বারবার।অপুর অভিযোগের তীর যতটা শাকিবের দিকে ততোটাই বুবুলির দিকেও নিক্ষেপিত ছিলো।কারণ বাচ্চা হওয়ার কারণে অপু যখন সিনেমা পাড়া থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেন ঠিক তখনই বুবলি পুরোপুরি শাকিবকে দখল করে চলচ্চিত্রে অপুর জায়গাটিতে আসন করে নিতে চান। অপুর কথাতে এমনই আভাস পাওয়া যায়।

মিডিয়ার সঙ্গে অপু কথা বলবেন এমন গুজব বেশ কিছুদিন ধরেই হাওয়ায় ভাসছিল। তবে এত তাড়াতাড়ি নয় আরও কিছুদিন পর আসবেন এমনই কথা ছিল। জানা যায় ‘রংবাজ’ ছবির শ্যুটিং শুরু হতে যাচ্ছে আর ছবিতে শাকিবের সঙ্গে নায়িকা হচ্ছেন বুবলি- একটি জাতীয় দৈনিকে এ খবর প্রকাশিত হলে অপু আর নিজেকে ধরে রাখতে পারেন নি।পরদিনই বেসরকারী চ্যানেলটিতে ছুটে যান তিনি এবং শাকিব খানের সঙ্গে তার বিয়ের বিষয়টি ফাঁস করেন। আর প্রকাশ্যে শাকিব খানের কাছে দাবি করলেন স্ত্রী হিসেবে তার ও সন্তানের স্বীকৃতি। ওই অনুষ্ঠানে আকারে ইঙ্গিতে শাকিবের নতুন ছবির নায়িকা বুবলীর সঙ্গে শাকিবের সম্পর্কেরও একটা ইঙ্গিত দিলেন অপু।

এদিকে শাকিব খানও একটি বেসরকারী চ্যানেলের কাছে ফোনে দেয়া ইন্টারভিউতে বলেন,আমি আমার ছেলের দায়িত্ব নেব, কিন্তু অপুর দায়িত্ব নেব না।তবে বিয়ের পরও তারা কেন একসঙ্গে থাকছেন না বারবার এ প্রশ্ন করেও শাকিবের কাছ থেকে কোন সদুত্তরই পাওয়া যায়নি।এমনকি তার ক্যারিয়ার নষ্ট করার জন্য তার শত্রুরা অপুকে ব্যবহার করছে বলেও অনেক কথা বলেন শাকিব।

এমনি পরিস্থিতে অভিনেত্রী বুবলিও থেমে থাকেননি। ঘটনার পরের দিন তিনি শাকিবের সমর্থনে মাঠে নামেন এবং ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে অপুকে এক হাত দেখিয়ে দেন।

কিন্তু মাত্র একদিন পরেই আবার ঘুরে গেলো হাওয়া। এবার শাকিব আর অপুর মুখে অন্যসুর। শাকিব সন্তানের সঙ্গে সঙ্গে স্ত্রীর মর্যাদা দিয়ে অপুর দায়িত্ব নিয়ে নেন। আর অপুও তখন বলেন, বুবলিকে নিয়ে আর কোন কথা নয়। বুবলি এখন আমার খুব কাছের মানুষ।এমনকি ‘রংবাজ’ ছবিতে এখন বুবলি অভিনয় করবেন জেনেও অপুর গাত্রদাহ নেই।

তাহলে এতকিছুর প্রয়োজন ছিলো কি? এমন সমস্যার সমাধান তো নিজেরাই করতে পারতেন।তবে কি পুরোটাই তাদের সাজানো নাটক?আবার অনেকে বলছেন,একদিকে শাকিবের ক্যারিয়ার অন্যদিকে অপু মামলা ঠুকে দিলে শাকিব খানকে জেলে পর্য্ন্তও যেতে হতে পারে। কয়েকটি সূত্র জানায়, এইসব আশঙ্কা থেকে পার পেতেই বুবলির প্রেসকিপশন শাকিব মেনে চলছেন।তাই শাকিবের এই সুর পাল্টানোর পেছনেও আছেন বুবলি।  কিন্তু এমনটা অপু বিশ্বাসই মেনে নেবেন কেন?তাহলে কি এই নাটকে অপুও জড়িত?এমন সব প্রশ্ন এখন সবার মনে।

এদিকে অসুস্থ শাকিবকে দেখতে গিয়ে অপু ছেলেকে বাসায় রেখে আসার অজুহাত দেখিয়ে তাড়াতাড়ি বাসায় ফিরে যান।জানা যায়,হাসপাতালে তাদের মধ্যে কুশলাদি ছাড়া তেমন কোন কথাবার্তাও হয়নি।

হাসপাতাল থেকে ফিরে ১৪ এপ্রিল পয়লা বৈশাখের সন্ধ্যায় আপুর বাসায়  সন্তান আব্রাহামের সঙ্গে কিছুক্ষণ সময় কাটালেন শাকিব খান। এর পরপরই  বুবলির সঙ্গে ‘রংবাজ’-এর মহরত করে দুই কুল রক্ষা করলেন শাকিব খান।

সবকিছু মিটমাট হলেও অপু এখনও রয়েছেন তার নিকেতনের বাড়িতে আর শাকিব তার নিজের বাড়িতে। এখনও তারা একসঙ্গে সংসার শুরু করতে পারছেন না কেন, বাধাঁটা এবার কোথায়? এ নিয়েও সবার মনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।এদিকে শাকিব যতবার অপুর বাসায় যাচ্ছেন ততোবারই মিডিয়াকে বলছেন ছেলের সঙ্গে সময় কাটিযে এলেন। তাহলে অপুর জায়গাটা কোথায়?

শাকিবের কথার সূত্র ধরেই বলা যায় অপুকে উস্কে দেয়ার পেছনে যে শত্রুরা ছিলো ওরা এখন কোথায়, শাকিবই বা তাদের সনাক্ত করছেন না কেন?দর্শক, ফ্যানদের মনে এমনি প্রশ্নের পাহাড় জমা হলেও শাকিব- অপু কিন্তু নির্বিকার।

এদিকে বাংলাদে‌শের রূপরঙ চল‌চ্চিত্র ও কলকাতার শ্রী ভেঙ্ক‌টেশের যৌথ প্র‌যোজনা এবং শামীম আহাম্মেদ রনির ‘রংবাজ’ ছবির শ্যুটিং শুরু হওয়ার ক’দিন আগে পরিচালক জানালেন এবার তার ঘরও ভাঙ্গার পথে।তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে স্ত্রীর সঙ্গে সেপারেশনে আছেন। এবার তিনি ডিভোর্স করবেন। অন্যদিকে তার স্ত্রী তমা বলছেন,ক’দিন আগেও আমরা একসঙ্গে ছিলাম।এ ব্যাপারটি নিয়েও অনেক প্রশ্ন দেখা দিচ্ছে।
তাহলে কি ‘রংবাজ’ ছবির পরিচালক থেকে শুরু করে নায়ক-নায়িকা এমন কি অপু সবাই মিলেই কি এই খেলা খেলছেন?ছবিটির ব্যবসায়িক সাফল্য লাভের জন্যই কি তাদের ঘরভাঙ্গা ঘরভাঙ্গা খেলা?এখন আমাদের দেখার পালা এই প্রপাগান্ডার শেষ কোথায়।

স্বাগতা জাহ্নবী

ছবি:গুগল