সিনেমায় রবীন্দ্রনাথ

বাংলা সাহিত্যের অনন্যপ্রতিভা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন আজ। আজ থেকে ১৫৭ বছর আগে ১২৬৮ বঙ্গাব্দের এই দিনে (৭ মে, ১৮৬১ খ্রিষ্টাব্দ) কলকাতায় জোড়াসাঁকোর ঠাকুরবাড়িতে ক্ষণজন্মা এই মানুষটির জন্ম হয়। তার লেখনীতে বাংলা সাহিত্যের সব কটি ধারা পরিপুষ্ট হয়েছে। রবীন্দ্রনাথ একাধারে কবি, কথাশিল্পী, প্রাবন্ধিক, নাট্যকার, সংগীত রচয়িতা, সুরস্রষ্টা, গায়ক ও চিত্রশিল্পী। সৃষ্টিশীলতার সমান্তরালে তিনি ধর্ম, দর্শন, রাজনীতি ও সমাজভাবনা সমানভাবেই চালিয়ে গেছেন। বিশ্বভারতী তাঁর বিপুল কর্মকাণ্ডের একটি প্রধান কীর্তি।

তার হাত ধরেই বাঙালি পেয়েছিলো প্রথম নোবেল পুরস্কার জয়ের স্বাদ। যার কাছে বাঙালি ও বাংলা সাহিত্য চিরঋণী। গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের জন্য ১৯১৩ সালে রবীন্দ্রনাথ সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান। সাহিত্যে নোবেল বিজয়ী তিনিই প্রথম এশীয় ও একমাত্র বাঙালি লেখক।

অতিক্রান্ত হলো রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৭তম জন্মদিন। বাংলা সাহিত্যের এই প্রবাদ পুরুষকে শিল্পের বিভিন্ন ঘারানায় নানা ভাবে স্মরণ করা হয়েছে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাহিত্যও সমৃদ্ধ করেছে শিল্পের নানা মাধ্যমকে। তাঁর গল্প এবং উপন্যাস নিয়ে বিভিন্ন সময়ে বাংলা ও হিন্দী ভাষায় তৈরী হয়েছে চলচ্চিত্র।

রবীন্দ্রনাথের গল্প ও উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত ১০টি ছবির তালিকা উল্লেখ করা হলো।

১. চতুরঙ্গ
ছবির কাহিনী নেওয়া হয়েছে রবীন্দ্রনাথের ‘চতুরঙ্গ’ থেকে। ঔপনিবেশিক উত্তাল বাংলাকে তুলে ধরা হয়েছে ছবিটিতে।

 ২. ঘরে বাইরে
রবীন্দ্রনাথের ঘরে-বাইরে উপন্যাসকে চলচ্চিত্রের পর্দায় তুলে আনেন সত্যজিৎ রায় ১৯৮৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবিতে। নিখিলেশের স্ত্রী বিমলার প্রতি সন্দীপের আকর্ষণ, তাদের প্রেম আর ইংরেজবিরোধী স্বদেশি আন্দোলনের অনেক সূক্ষ্ম বিষয় তুলে ধরা হয় উপন্যাসটির চিত্ররূপে। বিমলা চরিত্রে ছিলেন স্বাতীলেখা চট্টোপাধ্যায়, সন্দীপের ভূমিকায় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং নিখিলেশ ছিলেন ভিক্টর ব্যানার্জি।

 ৩. নৌকা ডুবি
রবীন্দ্রনাথের উপন্যাস নৌকাডুবি আগে হিন্দিতে চলচ্চিত্রায়িত হয়েছিল ১৯৪৬ সালে। এরপর বাংলায় নৌকাডুবিকে চলচ্চিত্রের পর্দায় সার্থক করে তোলেন ঋতুপর্ণ ঘোষ ২০১১ সালে। এটি একটি সামাজিক এবং গভীর আবেগপ্রবণ একটি চলচ্চিত্র।

৪. ডাকঘর
গল্পের নামেই রাখা হয় ছবির নাম। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন যুল ভেল্লানি।

৫. চোখের বালি
রবীন্দ্রনাথের সাহিত্য নিয়ে যতো চলচ্চিত্র নির্মিত হয়েছে তারমধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়, প্রশংসিত ছবি ‘চোখের বালি’। একই নামের উপন্যাসকে ভিত্তি করে চলচ্চিত্র তৈরি করেছেন অনেক নির্মাতা। সর্বপ্রথম এই উপন্যাস নিয়ে সিনেমা বানানো হয় ১৯৩৮ সালে।

৬. অবুঝ বউ
রবীন্দ্রনাথের ‘সমাপ্তি’ ছোটগল্প অবলম্বনে নির্মিত এ ছবিতে ছবিতে অভিনয় করেন ববিতা, ফেরদৌস, শাকিল খান ও নিপুণ। ছবিটি পরিচালনা করেন নারগিস আখতার।

৭. অতিথি
ছবিটিতে ‘তারা’ নামের একটি ছোট বালকের গল্প বলা হয়েছে। যে জীবনকে উপভোগ করতে নিজের ঘর ছেড়ে বাইরে চলে আসে। এই ছবিটি করেছেন পরিচালক তপন সিংহ।

 ৮. সুভা
চাষী নজরুল ইসলাম পরিচালিত রবীন্দ্রনাথের ছোটগল্প ‘সুভাষিণী’ অবলম্বনে নির্মিত এ ছবিতে অভিনয় করেন বাণিজ্যিক ছবির জনপ্রিয় তারকা শাকিব খান ও পূর্ণিমা। ‘সুভা’ চরিত্রে বাকপ্রতিবন্ধী মেয়ের ভূমিকায় পূর্ণিমার অভিনয় প্রশংসিত হয়েছিলো সর্বমহলে।

৯. শাস্তি
বাংলাদেশে সর্বপ্রথম রবীন্দ্রসাহিত্য নিয়ে কাজ করতে এগিয়ে আসেন চিত্র নির্মাতা চাষী নজরুল ইসলাম। রবীন্দ্রনাথের ‘শাস্তি’ গল্প অবলম্বনে ‘কাঠগড়া’ নামের একটি ছবির কাজ শুরু করেছিলেন তিনি। তবে নানা জটিলতায় কাজটি শেষ করতে পারেননি তিনি। পরে সেই একই গল্প ২০০৪ সালে ইমপ্রেস টেলিফিল্মের হাত ধরে উঠে আসে ‘শাস্তি’ ছবির মাধ্যমে। এভাবেই নির্মিত হয় বাংলাদেশের প্রথম রবীন্দ্রসাহিত্য নির্ভর চলচ্চিত্র।

১০. কাবুলিওয়ালা
‘কাবুলিওয়ালা’ গল্প থেকে একই নামে তৈরি করা হয় চলচ্চিত্র। এই গল্প নিয়ে প্রথম চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন তপন সিংহ। চলচ্চিত্রটিতে ফুটে ওঠে আফগানিস্তানের খোরমা-খেজুর বিক্রেতা রহমতের সঙ্গে গ্রামের ছোট মেয়ে মিনুর বন্ধুত্ব।

বিনোদন ডেস্ক

তথ্যসূত্রঃ ইন্টারনেট

ছবিঃ গুগল